প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ পেয়ে পুলিশ আরও বেপরোয়া: রিজভী

  যুগান্তর রিপোর্ট ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৪৮ | অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ফাইল ছবি

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, মিডনাইট ভোটের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কয়েকদিন আগে পুলিশকে বলেছেন দ্রুত মামলার কাজ নিষ্পত্তি করতে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ পেয়ে আইনশঙ্খলা বাহিনী আগের চেয়ে আরও বেপরোয়া হয়ে গেছে।

মঙ্গলবার সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

রিজভী বলেন, সারাদেশে থানায় থানায় পুলিশি নিপীড়ন আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। বিএনপি নেতাকর্মী ও সমর্থকদের বিরুদ্ধে যেসব গায়েবি মামলা দায়ের করেছিল সেসব মামলায় চার্জশিট দেয়ার নামে ব্যাপক বাণিজ্য চলছে।

তিনি আরও বলেন, বিএনপির নেতাকর্মী ও সমর্থকদের জিম্মি করে মোটা অংকের টাকা আদায় করছে। অন্যদিকে হাজার হাজার নেতাকর্মী যারা কারাগারে বন্দি আছেন, আদালত থেকে জামিন লাভের পর তাদেরকে আবার শ্যোন অ্যারেস্টের নামে হয়রানি ও অর্থ আদায় করা হচ্ছে।

এছাড়া কারাগারের মধ্যে বন্দিদের কাছ থেকেও নানাভাবে প্রতিনিয়ত অর্থ আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন বিএনপির এ নেতা।

বিএনপির রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের পুলিশি মামলা দিয়ে হয়রানি করতে গিয়ে বিচার ব্যবস্থাকে নড়বড়ে করে ফেলা হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। এদেশে আওয়ামী ক্ষমতাসীনরা চাইলেই মামলা দিতে পারে উল্লেখ করে রিজভী বলেন, রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে অন্যান্য মিথ্যা মামলার সঙ্গে ড্রাগের মামলা দিয়ে হেয় করা হচ্ছে। আটক বিএনপির বহু নেতাকর্মীদেরকে তাদের আইনজীবীদের সঙ্গে দেখা করতে দেয়া হয় ন।

তিনি বলেন, যে দেশে প্রধানমন্ত্রী তার সমালোচকদের বিরুদ্ধে মামলা করতে উস্কানি দেন, সে দেশে আইন ও বিচার বিভাগ থেকে প্রতিকার পাওয়ার সম্ভাবনাও তিরোহিত হয়ে গেছে।

বিএনপির এ নেতা আরও বলেন, মিডনাইট ভোটের পর হৃদয়হীন ক্ষমতাসীন গোষ্ঠী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বিরোধী দলসহ জনগণের সবকিছু লুটে নিতে যেন প্রতিযোগিতায় নেমেছে। আর এই প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে তারা নিজেরাই একে অপরের জীবন কেড়ে নিচ্ছেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×