কৃষকের পাকা ধানে আগুন জাতির জন্য লজ্জাজনক: মোশাররফ

  যুগান্তর রিপোর্ট ২২ মে ২০১৯, ২০:৪৫ | অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। ফাইল ছবি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, দেশে গণতান্ত্রিক সরকার নেই বলে কৃষকের কপাল পুড়েছে। কৃষক ধান বিক্রি করে উৎপাদন খরচও পাচ্ছে না। তাই বিক্ষুব্ধ কৃষক মনের দুঃখে পাঁকা ধান ক্ষেত আগুনে পুড়িয়ে দিচ্ছে। এটি জাতির জন্য চরম লজ্জা ও দুর্ভাগ্যজনক।

বুধবার রাজধানীর শনির আখড়ায় একটি কমিউনিটি সেন্টারে ইফতারপূর্ব এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকাস্থ হোমনা উপজেলা জাতীয়তাবাদী ফোরাম এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।

মোশাররফ বলেন, সরকার চাল রফতানির চিন্তা করছে, অন্যদিকে আমদানিও করছে। চাল মজুত যদি পর্যাপ্তই থাকে তাহলে আবার আমদানি কেন? অথচ কৃষককে ধানের ন্যায্য মূল্য দিতে সরকারের কোনো মাথাব্যথা নেই। এতে করে আগামীতে কৃষক ধান উৎপাদন করবে না। দেশ হবে চাল আমদানি নির্ভর। ফলে জাতীয় অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব পড়বে। যা দেশের জন্য অশনিসংকেত।

বিএনপির এই নীতিনির্ধারক বলেন, দেশের প্রতিটি স্তরে অস্থিরতা চলছে। সরকারের কোথাও কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই, জবাবদিহিতা নেই, স্বচ্ছতা নেই। সরকারের নিয়ন্ত্রণ নেই বলে রূপপুর প্রকল্পে কেনাকাটার নামে চলছে অবাধে লুটপাট। মন্ত্রী-এমপিরা পাশ কাটিয়ে যে যার মতো বলছে, যা ইচ্ছা তা করছে। প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীরা সরকারের নির্দেশ মানছে না। প্রশাসনে এক জগাখিচুড়ী অবস্থা বিরাজমান। আওয়ামী লীগ অলিখিত বাকশাল ও স্বৈরাচারী কায়দায় দেশ চালাচ্ছে। পৃথিবীতে কোনো স্বৈরাচার স্বেচ্ছায় ক্ষমতা ছাড়েনি, আওয়ামী লীগও ছাড়বে না। আন্দোলন করে তাদের হটাতে হবে।

মোশাররফ হোসেন গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করছেন এটাই তার বড় অপরাধ। তিনি সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। সরকারের হস্তক্ষেপে খালেদা জিয়ার জামিন দেয়া হচ্ছে না। কারান্তরীণ রেখে তার জীবন বিপন্ন করছে।

তিনি বলেন, গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য আগে গণতন্ত্রের মাতা খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আন্দোলনের মাধ্যমে নিরপেক্ষ নির্বাচন দিতে এই সরকারকে বাধ্য করা হবে।

সংগঠনের সভাপতি দেলোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন- শ্রমিক দলের একেএম ফজলুল হক মোল্লা, কাউন্সিলর আলহাজ্ব মো. জুম্মন মিয়া, মো. মহিউদ্দিন, শফিকুল ইসলাম, ব্যারিষ্টার সাইফুল ইসলাম উজ্জল, ফোরামের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম সরকার প্রমুখ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×