‘একাত্তরের জামায়াত আর বর্তমান জামায়াত এক নয়’
jugantor
‘একাত্তরের জামায়াত আর বর্তমান জামায়াত এক নয়’

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৭ জুন ২০১৯, ২১:৪৫:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ
এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ। ফাইল ছবি

এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রম বলেছেন, ১৯৭১ সালের জামায়াত আর ২০১৯ সালের জামায়াত এক নয়। 

তিনি বলেন, ১৯৭১ সালের জামায়াত আর ২০১৯ সালের জামায়াত এক নয়। এরা বাংলাদেশের। এই দেশকে তারা ভালবাসে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। 

জাতীয় সংসদের পুননির্বাচন ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তিসহ ১৮ দফা দাবি আদায়ের লক্ষে ‘জাতীয় মুক্তিমঞ্চ’ নামের আলাদা প্লাটফর্ম ঘোষণা দেন কর্নেল (অব.) অলি আহমদ।

তিনি বলেন, এই মুক্তিমঞ্চ কোনো জোট নয়। কারা কারা আছেন তা যথাসময়ে প্রকাশ করব। তবে বেঈমানদের এই মঞ্চে স্থান হবে না। 

জামায়াত সম্পর্কে কর্নেল অলি আরও বলেন, তাদের মধ্যে অনেক সংশোধনী আসছে। তারা নিজেদের মধ্যে বসে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তারা দেশপ্রেমিক শক্তি। কাজেই আমরা আশা করব, যারা দেশকে ভালবাসে, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে চায়, দেশবাসীকে মুক্ত করতে চায় যারাই আমাদের সঙ্গে আসবে, সবাইকে আমরা সঙ্গে রাখব। তবে বেঈমানদের নয়।

তিনি বলেন, দেশের বর্তমান নাজুক অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে আমরা নির্বিকার থাকতে পারি না। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে। খালেদা জিয়া যদি কারাগার থেকে মুক্ত হন, একনায়কতন্ত্র থেকে যদি দেশ মুক্ত হয় তখন জাতি মুক্ত হবে। 

নতুন এই মঞ্চ ঘোষণার পর ২০ দলীয় জোটে আপনি থাকবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, জাতীয় মুক্তিমঞ্চ কোনো জোট নয়। আমরা ২০ দলীয় জোটে আছি এবং থাকব। ২০ দলীয় জোটের মূল দল বিএনপি।

‘একাত্তরের জামায়াত আর বর্তমান জামায়াত এক নয়’

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৭ জুন ২০১৯, ০৯:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ
এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ। ফাইল ছবি

এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রম বলেছেন, ১৯৭১ সালের জামায়াত আর ২০১৯ সালের জামায়াত এক নয়।

তিনি বলেন, ১৯৭১ সালের জামায়াত আর ২০১৯ সালের জামায়াত এক নয়। এরা বাংলাদেশের। এই দেশকে তারা ভালবাসে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

জাতীয় সংসদের পুননির্বাচন ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তিসহ ১৮ দফা দাবি আদায়ের লক্ষে ‘জাতীয় মুক্তিমঞ্চ’ নামের আলাদা প্লাটফর্ম ঘোষণা দেন কর্নেল (অব.) অলি আহমদ।

তিনি বলেন, এই মুক্তিমঞ্চ কোনো জোট নয়। কারা কারা আছেন তা যথাসময়ে প্রকাশ করব। তবে বেঈমানদের এই মঞ্চে স্থান হবে না।

জামায়াত সম্পর্কে কর্নেল অলি আরও বলেন, তাদের মধ্যে অনেক সংশোধনী আসছে। তারা নিজেদের মধ্যে বসে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তারা দেশপ্রেমিক শক্তি। কাজেই আমরা আশা করব, যারা দেশকে ভালবাসে, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে চায়, দেশবাসীকে মুক্ত করতে চায় যারাই আমাদের সঙ্গে আসবে, সবাইকে আমরা সঙ্গে রাখব। তবে বেঈমানদের নয়।

তিনি বলেন, দেশের বর্তমান নাজুক অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে আমরা নির্বিকার থাকতে পারি না। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে। খালেদা জিয়া যদি কারাগার থেকে মুক্ত হন, একনায়কতন্ত্র থেকে যদি দেশ মুক্ত হয় তখন জাতি মুক্ত হবে।

নতুন এই মঞ্চ ঘোষণার পর ২০ দলীয় জোটে আপনি থাকবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, জাতীয় মুক্তিমঞ্চ কোনো জোট নয়। আমরা ২০ দলীয় জোটে আছি এবং থাকব। ২০ দলীয় জোটের মূল দল বিএনপি।

 

ঘটনাপ্রবাহ : কারাগারে খালেদা জিয়া

আরও খবর