দণ্ডপ্রাপ্তদের বাড়িতে যাচ্ছেন বিএনপির ৭ এমপি

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৫ জুলাই ২০১৯, ২০:০৩ | অনলাইন সংস্করণ

দণ্ডপ্রাপ্তদের বাড়িতে যাচ্ছেন বিএনপির ৭ এমপি
দণ্ডপ্রাপ্তদের বাড়িতে যাচ্ছেন বিএনপির ৭ এমপি

একাদশ জাতীয় সংসদে নির্বাচিত বিএনপির সাত সংসদ সদস্য মঙ্গলবার পাবনা যাচ্ছেন। ১৯৯৪ সালে পাবনার ঈশ্বরদীতে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ট্রেনবহরে হামলার মামলায় সাজাপ্রাপ্ত নেতাকর্মীদের পরিবারের খোঁজ-খবর নিতে তারা সেখানে যাচ্ছেন।

সকাল সাড়ে সাতটায় সড়কপথে গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের নেতৃত্বে তারা রওনা হবেন।

চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান বলেন, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে বিএনপির সংসদ সদস্যরা মঙ্গলবার সকালে পাবনার উদ্দেশে রওনা হবেন। জিএম সিরাজের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলে আছেন- হারুনুর রশীদ, আমিনুল ইসলাম, আবদুস সাত্তার ভুঁইয়া, মোশাররফ হোসেন, জাহিদুর রহমান জাহিদ ও সংরক্ষিত আসনের মহিলা সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা।

গত ৩ জুলাই পাবনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতে ৯ জনের ফাঁসি, ২৫ জনের যাবজ্জীবন ও ১৩ জনের ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের রায় হয়। ওই রায়ের পর বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সংবাদ সম্মেলন করে দাবি করেন, আওয়ামী লীগের দুপক্ষের গোলাগুলিতেই ২৪ বছর আগে পাবনার ঈশ্বরদীতে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনার ট্রেনবহরে গুলি লেগেছিল।

গুলি ছুড়েছে আওয়ামী লীগ আর ফাঁসি হলো বিএনপি নেতাদের। ৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতের দেয়া ফাঁসির আদেশে আমরা শুধু হতাশই নয়, ক্ষুব্ধও। এ রায়ের মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে এদেশে স্বাধীন বিচারব্যবস্থা নেই। বিএনপিসহ বিরোধী দলমত নিশ্চিহ্নকরণে নাৎসিবাদী আয়োজনের নগ্ন বহিঃপ্রকাশ আজকে সরকারের নির্দেশে পাবনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের রায় বলেও সংবাদ সম্মেলনে মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×