অলির দাওয়াত নিয়ে মান্নার বাসায় সেলিম, আজ দুদলের সংবাদ সম্মেলন

  যুগান্তর রিপোর্ট ০২ আগস্ট ২০১৯, ১২:৩৯ | অনলাইন সংস্করণ

অলির দাওয়াত নিয়ে মান্নার বাসায় সেলিম, আজ দুদলের সংবাদ সম্মেলন

২০ দলীয় জোটের বাইরে আলাদা প্লাটফর্ম গড়েছেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির সভাপতি ড. কর্নেল (অব.) অলি আহমদ। এর নাম দিয়েছেন জাতীয় মুক্তি মঞ্চ। এই মঞ্চে বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দলকে যুক্ত করেছেন তিনি।

জাতীয় মুক্তিমঞ্চে নাগরিক ঐক্যকেও চান অলি আহমদ। নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক সাবেক ডাকসু ভিপি মাহমুদুর রহমান মান্নাকে এই মঞ্চে যোগ দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন অলি আহমদ।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা মাহমুদুর রহমানের বাসায় ৩০ জুলাই অলির দাওয়াত নিয়ে যান এলডিপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম। তিনি কর্নেল অলির ইচ্ছার কথা মান্নাকে জানিয়েছেন।

এর আগে মান্নাকে টেলিফোন করেন অলি আহমদ। তিনি মান্নাকে মুক্তি মঞ্চে যোগ দেয়ার আহ্বান জানান। ধারণা করা হচ্ছে টেলিফোনে ইতিবাচক সাড়া পেয়েই মান্নার বাসায় দূত পাঠান অলি আহমদ।

এলডিপি ও নাগরিক ঐক্যের একাধিক দায়িত্বশীল জানান, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নতুন নির্বাচনের দাবিতে জাতীয় মুক্তি মঞ্চে মান্নাকে চান অলি আহমদ। মঞ্চের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে অনুরোধ করা হয় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম এই নেতাকে। এরইমধ্যে দুই নেতার মধ্যে ফোনালাপও হয়েছে। শুক্রবার গোলটেবিল করার কথা থাকলেও শেষ মুহূর্তে তা সংবাদ সম্মেলনে রূপ নেয়। শুক্রবার বিকালে এলডিপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন অলি আহমদ।

এদিকে আজ শুক্রবার দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন মাহমুদুর রহমান মান্না। জাতীয় প্রেসক্লাবে তার সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করে নাগরিক ঐক্যের নেতা ডা. জাহেদ উর রহমান বলেন, বর্তমানে ডেঙ্গু পরিস্থিতি ও বন্যা মোকাবিলায় সরকারের যে অবস্থান ও রাষ্ট্রের যে উদ্যোগ, এসব নিয়ে দলীয় অবস্থান তুলে ধরা হবে সংবাদ সম্মেলনে।’

জানা গেছে, বিএনপির নেতৃত্বাধীন দুই জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় জোটের নেতাদের মধ্যে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এই দুই নেতাই ভোকাল। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কোনো কর্মসূচিতে জোটের অন্য নেতারা খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে তেমন জোরালো বক্তব্য না রাখলেও মান্না বরাবরই এই দাবি করে আসছেন। অন্যদিকে ২০ দলের জোটভূক্ত অন্য নেতা খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নতুন নির্বাচন দাবিতে সোচ্চার থাকলেও ছোট দলের নেতা হওয়ায় তা তেমন একটা গুরুত্ব পায় না। জোটের প্রধান সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করা অলি আহমদ জোটনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বরাবরই জোরালো বক্তব্য রেখে আসছেন। তাই এই জায়গায় এই দুই নেতার একটা মিল আছে। অলি আহমেদ মুক্তি মঞ্চ গঠনের শুরুর দিকেই মান্নাকে যোগ দেয়ার আহবান জানিয়েছিলেন।

তবে উভয় দলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অলি আহমদের জামায়াত ঘনিষ্ঠতাসহ কয়েকটি কারণে তার আহবানে সাড়া দিচ্ছেন না মান্না। বিশেষ করে মঞ্চের আত্মপ্রকাশের দিনে জামায়াতকে কেন্দ্র করে অলি আহমদের বক্তব্যের পর মঞ্চের ভবিষ্যত কর্মসূচি নিয়েও প্রশ্ন আছে অনেক নেতার।

মঞ্চের ব্যাপারে নাগরিক ঐক্যের নেতারা বলছেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি বা নতুন নির্বাচন-উভয় ইস্যুতে বিএনপির নেতৃত্বেই সামনে এগোতে হবে। বিশেষ করে রাজনৈতিক বাস্তবতায় বিএনপিকে বাদ দিয়ে নতুন কোনো রাজনৈতিক মঞ্চের কার্যকরিতা নিয়ে প্রশ্ন আছে। তবে এলডিপি নেতারা আশাবাদী মুক্তিমঞ্চ আগামী দিনে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নতুন নির্বাচন দাবিতে বড় রাজনৈতিক ঐক্য গড়ে তোলতে সক্ষম হবে।

এ বিষয়ে এলডিপির যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম জানান, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নতুন নির্বাচন বাংলাদেশের গণতন্ত্রের জন্য অপরিহার্য। মাহমুদুর রহমান মান্না ঐক্যফ্রন্টে আছেন। আমরা সবাইকে নিয়েই সামনে এগিয়ে যেতে চাই।’

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×