সরকার বেকায়দায় পড়ে শোভন-রাব্বানীকে অপসারণ করেছে: মওদুদ
jugantor
সরকার বেকায়দায় পড়ে শোভন-রাব্বানীকে অপসারণ করেছে: মওদুদ

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৭:৩১:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

সরকার বেকায়দায় পড়ে শোভন-রাব্বানীকে অপসারণ করেছে: মওদুদ

নেতাদের দুর্নীতির কারণে সরকার বেকায়দায় পড়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে অপসারণ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এ মন্তব্য করেন তিনি।

খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে বিএনপিপন্থী প্রকৌশলীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (এইবি) এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

অ্যাসোসিয়েশনটির আহ্বায়ক প্রকৌশলী রিয়াজুল ইসলাম রিজুর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও সিনিয়র সাংবাদিক শওকত মাহমুদসহ আরও অনেকে বক্তব্য দেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মওদুদ বলেন, আজ সরকারের মুখোশ খুলে গেছে। সরকার এমন বেকায়দায় পড়েছে যে, বাধ্য হয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে অপসারণ করতে হয়েছে। কেন? টাকার জন্য, ঘুষের জন্য, তারা দুর্নীতি করেছে সে জন্য।

এ সময় রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে সরকারের পররাষ্ট্রনীতির কড়া সমালোচনা করেন তিনি। মওদুদ বলেন, সরকারের নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণে দেশ আজ সমস্যার সম্মুখীন। নানা সংকটের মধ্যে একটি হল রোহিঙ্গা। এই রোহিঙ্গা সংকট এ সরকারের সৃষ্টি। এ জন্য সরকারই সম্পূর্ণভাবে দায়ী। তাদের কূটনৈতিক ব্যর্থতার কারণে আজ ১১ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অবস্থান করছে। এখন পর্যন্ত একজন রোহিঙ্গাকেও তাদের দেশে ফেরত পাঠাতে পারেনি সরকার।

বিএনপির সাবেক এ আইনমন্ত্রী বলেন, আজ এক বছর ৭ মাস তিনি (খালেদা জিয়া) জেলখানায়। একটি বানোয়াট মামলায় তাকে সাজা দেয়া হয়েছে। আইনিভাবে তাকে মুক্ত করার জন্য অনেক চেষ্টা করেছি। এ ধরনের মামলায় তার জেলখানায় থাকার কথা নয়। আইনি প্রক্রিয়ায় তার মুক্তি হবে না। রাজপথে আন্দোলন করে তাকে মুক্ত করতে হবে। তাই নতুন করে আন্দোলনের কর্মসূচি দিতে হবে।

সরকার বেকায়দায় পড়ে শোভন-রাব্বানীকে অপসারণ করেছে: মওদুদ

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সরকার বেকায়দায় পড়ে শোভন-রাব্বানীকে অপসারণ করেছে: মওদুদ
ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। ফাইল ছবি

নেতাদের দুর্নীতির কারণে সরকার বেকায়দায় পড়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে অপসারণ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এ মন্তব্য করেন তিনি।  

খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে বিএনপিপন্থী প্রকৌশলীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (এইবি) এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

অ্যাসোসিয়েশনটির আহ্বায়ক প্রকৌশলী রিয়াজুল ইসলাম রিজুর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও সিনিয়র সাংবাদিক শওকত মাহমুদসহ আরও অনেকে বক্তব্য দেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মওদুদ বলেন, আজ সরকারের মুখোশ খুলে গেছে।  সরকার এমন বেকায়দায় পড়েছে যে, বাধ্য হয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে অপসারণ করতে হয়েছে।  কেন? টাকার জন্য, ঘুষের জন্য, তারা দুর্নীতি করেছে সে জন্য।  

এ সময় রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে সরকারের পররাষ্ট্রনীতির কড়া সমালোচনা করেন তিনি।  মওদুদ বলেন, সরকারের নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণে দেশ আজ সমস্যার সম্মুখীন।  নানা সংকটের মধ্যে একটি হল রোহিঙ্গা।  এই রোহিঙ্গা সংকট এ সরকারের সৃষ্টি।  এ জন্য সরকারই সম্পূর্ণভাবে দায়ী।  তাদের কূটনৈতিক ব্যর্থতার কারণে আজ ১১ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অবস্থান করছে।  এখন পর্যন্ত একজন রোহিঙ্গাকেও তাদের দেশে ফেরত পাঠাতে পারেনি সরকার। 

বিএনপির সাবেক এ আইনমন্ত্রী বলেন, আজ এক বছর ৭ মাস তিনি (খালেদা জিয়া) জেলখানায়।  একটি বানোয়াট মামলায় তাকে সাজা দেয়া হয়েছে।  আইনিভাবে তাকে মুক্ত করার জন্য অনেক চেষ্টা করেছি।  এ ধরনের মামলায় তার জেলখানায় থাকার কথা নয়।  আইনি প্রক্রিয়ায় তার মুক্তি হবে না।  রাজপথে আন্দোলন করে তাকে মুক্ত করতে হবে।  তাই নতুন করে আন্দোলনের কর্মসূচি দিতে হবে।