রাজনীতিতে অস্থিরতা চলছে: জিএম কাদের

  যুগান্তর রিপোর্ট ০২ নভেম্বর ২০১৯, ১৮:৩৫ | অনলাইন সংস্করণ

রাজনীতিতে অস্থিরতা চলছে: জিএম কাদের
মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দিচ্ছেন জিএম কাদের। ছবি: যুগান্তর

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদের এমপি বলেছেন, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় জাতীয় পার্টি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের আদর্শ বাস্তবায়নে এগিয়ে যাবে। দেশের রাজনীতিতে অস্থিরতা চলছে, অস্থিরতা বিরাজ করছে সমাজে। তাই দেশের মানুষ সার্বিক অস্থিরতা থেকে মুক্তি পেতে জাতীয় পার্টির দিকে তাকিয়ে আছে।

শনিবার জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় মিলনায়তনে ময়মনসিংহ বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

জিএম কাদের বলেন, জাতীয় পার্টি সাংগঠনিকভাবে শক্তি অর্জন করতে পারলে, দেশের মানুষ জাতীয় পার্টির ওপর আস্থা রাখবে। দেশের রাজনীতিতে জাতীয় পার্টির সম্ভাবনা আরও উজ্জ্বল হবে।

জিএম কাদের এ সময় দলকে আরও শক্তিশালী করতে জাতীয় পার্টির তৃণমূল নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ময়মনসিংহ বিভাগ সাংগঠনিক টিমের আহ্বায়ক এমএ সাত্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান আরও বলেন, পার্টির জন্য ত্যাগ, নেতৃত্বের প্রতি আনুগত্য এবং অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধদের জাতীয় পার্টিতে মূল্যায়ন করা হবে।

সভা পরিচালনা করেন জাতীয় পার্টির ভাইস-চেয়ারম্যান ও ময়মনসিংহ বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের সদস্য সচিব মোস্তফা আল মাহমুদ।

এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কমিটির যুগ্ম-আহ্বায়ক ফখরুল ইমাম এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক জসীম উদ্দিন ভূঁইয়া।

ময়মনসিংহ বিভাগের বিভিন্ন জেলার নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার মো. মামুনুর রশীদ, ইলিয়াস উদ্দিন, জাহাঙ্গীর আহমেদ, আবদুল আওয়াল সেলিম, লিয়াকত আলী খান, শফিকুল ইসলাম, সবুজ মিয়া, শফিকুল আলম তপন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×