পেঁয়াজের ডাবল সেঞ্চুরি, বাণিজ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ চাইল জামায়াত
jugantor
পেঁয়াজের ডাবল সেঞ্চুরি, বাণিজ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ চাইল জামায়াত

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৩৫:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

পেঁয়াজের দাম বেড়ে ২০০ টাকা ছাড়িয়ে যাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির পদত্যাগের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী।

বৃহস্পতিবার সংগঠনটির সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়েছে।

তিনি বলেন, অযৌক্তিভাবে পেঁয়াজের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধিতে দেশের ভুক্তভোগী জনগণসহ আমরা সবাই গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। পেঁয়াজের মূল্য সাধারণ জনগণের নাগালের বাইরে চলে গেছে।

রফিকুল ইসলাম বলেন, কয়েক দিন আগে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছিলেন, ১০০ টাকার কম কেজি দরে পেঁয়াজ পাওয়ার সম্ভাবনা আপাতত নেই এবং বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি করা হচ্ছে। পেঁয়াজের চালান দেশে এসে পৌঁছালে পেঁয়াজের দাম কমে আসবে। কিন্তু আমরা উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি যে, বর্তমানে বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ২০০ টাকা থেকে ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

তিনি বলেন, পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধিতে জনগণের নাভিশ্বাস উঠেছে। জনগণের মধ্যে চরম হতাশা বিরাজ করছে। 

জামায়াতের প্রশ্ন , পেঁয়াজের বাজার কারা নিয়ন্ত্রণ করছে? তারা কী এতই শক্তিশালী যে, সরকার তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না? পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি অসাধু ব্যবসায়ীরা নাকি সরকার নিজেই বা তাদের দলীয় লোকদের দ্বারা সিন্ডিকেট তৈরি করে বাড়াচ্ছে? 

পেঁয়াজের দাম জনগণের ক্রয়সীমার মধ্যে সীমিত রাখতে না পারাটা সরকারের চরম ব্যর্থতা উল্লেখ করে এ দায় কাঁধে নিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রীর অবিলম্বে পদত্যাগ দাবি করেছে জামায়াত। 

পেঁয়াজের ডাবল সেঞ্চুরি, বাণিজ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ চাইল জামায়াত

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৩৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পেঁয়াজের দাম বেড়ে ২০০ টাকা ছাড়িয়ে যাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির পদত্যাগের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী।

বৃহস্পতিবার সংগঠনটির সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়েছে।

তিনি বলেন, অযৌক্তিভাবে পেঁয়াজের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধিতে দেশের ভুক্তভোগী জনগণসহ আমরা সবাই গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। পেঁয়াজের মূল্য সাধারণ জনগণের নাগালের বাইরে চলে গেছে।

রফিকুল ইসলাম বলেন, কয়েক দিন আগে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছিলেন, ১০০ টাকার কম কেজি দরে পেঁয়াজ পাওয়ার সম্ভাবনা আপাতত নেই এবং বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি করা হচ্ছে। পেঁয়াজের চালান দেশে এসে পৌঁছালে পেঁয়াজের দাম কমে আসবে। কিন্তু আমরা উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি যে, বর্তমানে বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ২০০ টাকা থেকে ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

তিনি বলেন, পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধিতে জনগণের নাভিশ্বাস উঠেছে। জনগণের মধ্যে চরম হতাশা বিরাজ করছে।

জামায়াতের প্রশ্ন , পেঁয়াজের বাজার কারা নিয়ন্ত্রণ করছে? তারা কী এতই শক্তিশালী যে, সরকার তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না? পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি অসাধু ব্যবসায়ীরা নাকি সরকার নিজেই বা তাদের দলীয় লোকদের দ্বারা সিন্ডিকেট তৈরি করে বাড়াচ্ছে?

পেঁয়াজের দাম জনগণের ক্রয়সীমার মধ্যে সীমিত রাখতে না পারাটা সরকারের চরম ব্যর্থতা উল্লেখ করে এ দায় কাঁধে নিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রীর অবিলম্বে পদত্যাগ দাবি করেছে জামায়াত।

 
আরও খবর