দেশজুড়ে হাহাকার, দুর্ভিক্ষের প্রতিধ্বনি: রিজভী
jugantor
দেশজুড়ে হাহাকার, দুর্ভিক্ষের প্রতিধ্বনি: রিজভী

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২২ নভেম্বর ২০১৯, ১৪:১৩:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল
কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল। ছবি-যুগান্তর

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী বলেছেন, চারদিকে এখন  দুর্ভিক্ষের প্রতিধ্বনি শোনা যাচ্ছে। দেশজুড়ে হাহাকার চলছে। চুয়াত্তরের চেয়েও খারাপ অবস্থা বিদ্যমান। 

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে সরকারের একেক মন্ত্রী দ্রব্যমূল্যের বাজার নিয়ে একেক কথা বললেও বাজার নিয়ন্ত্রণে আসছে না। 

‘মন্ত্রীদের কথা এখন চরম রসিকতায় পরিণত হয়েছে। অত্যাবশ্যকীয় খাদ্যপণ্যের দাম জ্যামিতিক হারে বাড়ছে। সরকারের কোথাও কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। নিজেদের এই সীমাহীন ব্যর্থতা ঢাকতেই বিরোধী দল ও মতকে দমন করা হচ্ছে।’

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে শুক্রবার সকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক বিক্ষোভ মিছিল শেষে তিনি রিজভী এসব কথা বলেন।

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া মুক্ত না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। 

সংক্ষিপ্ত সমাবেশে রিজভী বলেন, অত্যাচার নির্যাতন করে খালেদা জিয়ার মুক্তি ব্যাহত করা যাবে না।

সরকার কথিত উন্নয়নের নামে অর্থ লোপাট করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মহানগর ছাত্রদলের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীদের নিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেন রিজভী।

মিছিলটি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে নাইটিঙ্গেল মোড় হয়ে আবার কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

দেশজুড়ে হাহাকার, দুর্ভিক্ষের প্রতিধ্বনি: রিজভী

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২২ নভেম্বর ২০১৯, ০২:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল
কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল। ছবি-যুগান্তর

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী বলেছেন, চারদিকে এখন দুর্ভিক্ষের প্রতিধ্বনি শোনা যাচ্ছে। দেশজুড়ে হাহাকার চলছে। চুয়াত্তরের চেয়েও খারাপ অবস্থা বিদ্যমান।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে সরকারের একেক মন্ত্রী দ্রব্যমূল্যের বাজার নিয়ে একেক কথা বললেও বাজার নিয়ন্ত্রণে আসছে না।

‘মন্ত্রীদের কথা এখন চরম রসিকতায় পরিণত হয়েছে। অত্যাবশ্যকীয় খাদ্যপণ্যের দাম জ্যামিতিক হারে বাড়ছে। সরকারের কোথাও কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। নিজেদের এই সীমাহীন ব্যর্থতা ঢাকতেই বিরোধী দল ও মতকে দমন করা হচ্ছে।’

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে শুক্রবার সকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক বিক্ষোভ মিছিল শেষে তিনি রিজভী এসব কথা বলেন।

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া মুক্ত না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সংক্ষিপ্ত সমাবেশে রিজভী বলেন, অত্যাচার নির্যাতন করে খালেদা জিয়ার মুক্তি ব্যাহত করা যাবে না।

সরকার কথিত উন্নয়নের নামে অর্থ লোপাট করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মহানগর ছাত্রদলের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীদের নিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেন রিজভী।

মিছিলটি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে নাইটিঙ্গেল মোড় হয়ে আবার কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

 
আরও খবর