বিজয় দিবসে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার শপথ বিএনপির
jugantor
বিজয় দিবসে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার শপথ বিএনপির

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৪:২১:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

বিজয় দিবসে দলীয় চেয়ারপারসন কারাবন্দি খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার শপথ নিয়েছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। 

সোমবার সকাল ১০টার দিকে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করতে গিয়ে তারা এ প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। 

এ সময় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশনেত্রী খালেদা জিয়া মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর হাতে বন্দি ও নির্যাতিত হয়েছিলেন। সবচেয়ে দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে তাকে আজকে কারাগারে আটক করে রাখা হয়েছে। তিনি দীর্ঘ ৯ বছর স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে গণতন্ত্রের জন্য লড়াই ও সংগ্রাম করেছিলেন। তিনি জনগণের ভোটে তিনবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছিলেন। দুবার বিরোধী দলীয় নেত্রী ছিলেন। গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করতে গিয়ে আজ অন্যায় ও নির্মমভাবে তাকে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে।

জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘সবচেয়ে দুঃখজনক ব্যাপার, স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় যিনি স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন, তার সহধর্মিণী (খালেদা জিয়া) সে সময় পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর হাতে বন্দী হয়েছিলেন, নির্যাতনের শিকার হয়েছিলাম, তাকে আজকে অন্ধকার কারাগারে আটক করে রাখা হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা আজকের এই দিনে শপথ গ্রহণ করছি- যে চেতনার ভিত্তিতে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করে দেশকে স্বাধীন করেছিলাম, সেই চেতনাকে সামনে নিয়ে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে গণতন্ত্রকে মুক্ত করব, দেশনেত্রীকে মুক্ত করব।

এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবু, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল, ঢাকা জেলা যুবদলের সভাপতি রেজাউল করিম পল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিজয় দিবসে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার শপথ বিএনপির

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০২:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বিজয় দিবসে দলীয় চেয়ারপারসন কারাবন্দি খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার শপথ নিয়েছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা।

সোমবার সকাল ১০টার দিকে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করতে গিয়ে তারা এ প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

এ সময় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশনেত্রী খালেদা জিয়া মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর হাতে বন্দি ও নির্যাতিত হয়েছিলেন। সবচেয়ে দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে তাকে আজকে কারাগারে আটক করে রাখা হয়েছে। তিনি দীর্ঘ ৯ বছর স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে গণতন্ত্রের জন্য লড়াই ও সংগ্রাম করেছিলেন। তিনি জনগণের ভোটে তিনবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছিলেন। দুবার বিরোধী দলীয় নেত্রী ছিলেন। গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করতে গিয়ে আজ অন্যায় ও নির্মমভাবে তাকে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে।

জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘সবচেয়ে দুঃখজনক ব্যাপার, স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় যিনি স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন, তার সহধর্মিণী (খালেদা জিয়া) সে সময় পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর হাতে বন্দী হয়েছিলেন, নির্যাতনের শিকার হয়েছিলাম, তাকে আজকে অন্ধকার কারাগারে আটক করে রাখা হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা আজকের এই দিনে শপথ গ্রহণ করছি- যে চেতনার ভিত্তিতে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করে দেশকে স্বাধীন করেছিলাম, সেই চেতনাকে সামনে নিয়ে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে গণতন্ত্রকে মুক্ত করব, দেশনেত্রীকে মুক্ত করব।

এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবু, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল, ঢাকা জেলা যুবদলের সভাপতি রেজাউল করিম পল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 
আরও খবর