‘এভাবে চললে খালেদা জিয়াকে জীবিত অবস্থায় বাসায় নিতে পারব না’
jugantor
‘এভাবে চললে খালেদা জিয়াকে জীবিত অবস্থায় বাসায় নিতে পারব না’

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১৯:১৭:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

এভাবে চললে খালেদা জিয়াকে জীবিত অবস্থায় বাসায় নিতে পারব না

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার বোন সেলিমা ইসলাম। তিনি বলেন, আমরা ভাবছি তার উন্নত চিকিৎসার জন্য সরকারের কাছে আবেদন করব।

শুক্রবার বিকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান।

খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজনে কবে নাগাদ সরকারের কাছে আবেদন করা হবে- এমন প্রশ্নের জবাবে সেলিমা ইসলাম বলেন, কবে নাগাদ আবেদন করব- তা এখনও ঠিক করিনি। কারণ এভাবে বেশি দিন চললে খালেদা জিয়াকে জীবিত অবস্থায় বাসায় নিয়ে যেতে পারব না। যে কোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে।

এর আগে বিকাল ৩টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে প্রবেশ করেন পরিবারের ৫ সদস্য। সঙ্গে নিয়ে যান বাসায় রান্না করা খাবার ও কিছু ফল।

সেলিমা ইসলাম ছাড়াও খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করা পরিবারের অন্য সদস্যরা হলেন তার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার, ভাইয়ের স্ত্রী কানিজ ফাতেমা ও ছেলে অভিক ইস্কান্দার, ভাই সাইদ ইস্কান্দারের স্ত্রী নাসরিন ইস্কান্দার।

তবে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে আরাফাত রহমান কোকোর শাশুড়ি ফাতেমা রেজা গেলেও সাক্ষাৎকারের তালিকায় নাম না থাকায় তিনি দেখা করতে পারেননি।

খালেদা জিয়া সারাক্ষণ বমি করছেন উল্লেখ করে সেলিমা ইসলাম বলেন, তার গায়ে জ্বর আছে। ব্যথায় কাতরাচ্ছেন। বাম হাত সম্পূর্ণ বেঁকে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্য কোথাও নিতে হবে। এ হাসপাতালে তার চিকিৎসা সম্ভব নয়।

তিনি বলেন, এখানকার হাসপাতালের ডাক্তার তাকে দেখছেন। কিন্তু যে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে, তাতে কোনো কাজ হচ্ছে না। তার যে অবস্থা, এর চেয়ে উন্নত চিকিৎসার বন্দোবস্ত করতে হবে। তার শরীর খুবই খারাপ। আজকেও তার ডায়াবেটিস ১৫ ছিল। এভাবে আর কতদিন চলবে? এই হাসপাতালে তো আজ প্রায় ১ বছরের কাছাকাছি হয়ে যাচ্ছে।

বিএসএমএমইউতে যে চিকিৎসা চলছে তাতে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার কোনো উন্নতি হচ্ছে না অভিযোগ করে সেলিমা ইসলাম বলেন, দিন দিন তার অবস্থার আরও অবনতি হচ্ছে। এজন্য আমরা চাই উন্নত হাসপাতালে তার চিকিৎসা করা হোক। তাকে মুক্তি দেয়া হোক। শারীরিক অবস্থার অবনতির কারণে খালেদা জিয়া কথা বলতে পারছেন না বলেও তিনি দাবি করেন।

সিটি নির্বাচনের বিষয়ে কোনো বার্তা দিয়েছেন কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, সে তো কথাই বলতে পারছে না। তবে দেশবাসীর কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছে।

‘এভাবে চললে খালেদা জিয়াকে জীবিত অবস্থায় বাসায় নিতে পারব না’

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৪ জানুয়ারি ২০২০, ০৭:১৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
এভাবে চললে খালেদা জিয়াকে জীবিত অবস্থায় বাসায় নিতে পারব না
বিএসএমএমইউতে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন তার বোন সেলিমা ইসলাম। ছবি: যুগান্তর

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার বোন সেলিমা ইসলাম।  তিনি বলেন, আমরা ভাবছি তার উন্নত চিকিৎসার জন্য সরকারের কাছে আবেদন করব। 

শুক্রবার বিকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান।

খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজনে কবে নাগাদ সরকারের কাছে আবেদন করা হবে- এমন প্রশ্নের জবাবে সেলিমা ইসলাম বলেন, কবে নাগাদ আবেদন করব- তা এখনও ঠিক করিনি।  কারণ এভাবে বেশি দিন চললে খালেদা জিয়াকে জীবিত অবস্থায় বাসায় নিয়ে যেতে পারব না।  যে কোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে।

এর আগে বিকাল ৩টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে প্রবেশ করেন পরিবারের ৫ সদস্য। সঙ্গে নিয়ে যান বাসায় রান্না করা খাবার ও কিছু ফল।  

সেলিমা ইসলাম ছাড়াও খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করা পরিবারের অন্য সদস্যরা হলেন তার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার, ভাইয়ের স্ত্রী কানিজ ফাতেমা ও ছেলে অভিক ইস্কান্দার, ভাই সাইদ ইস্কান্দারের স্ত্রী নাসরিন ইস্কান্দার। 

তবে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে আরাফাত রহমান কোকোর শাশুড়ি ফাতেমা রেজা গেলেও সাক্ষাৎকারের তালিকায় নাম না থাকায় তিনি দেখা করতে পারেননি।

খালেদা জিয়া সারাক্ষণ বমি করছেন উল্লেখ করে সেলিমা ইসলাম বলেন, তার গায়ে জ্বর আছে।  ব্যথায় কাতরাচ্ছেন। বাম হাত সম্পূর্ণ বেঁকে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্য কোথাও নিতে হবে।  এ হাসপাতালে তার চিকিৎসা সম্ভব নয়। 

তিনি বলেন, এখানকার হাসপাতালের ডাক্তার তাকে দেখছেন।  কিন্তু যে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে, তাতে কোনো কাজ হচ্ছে না।  তার যে অবস্থা, এর চেয়ে উন্নত চিকিৎসার বন্দোবস্ত করতে হবে।  তার শরীর খুবই খারাপ।  আজকেও তার ডায়াবেটিস ১৫ ছিল।  এভাবে আর কতদিন চলবে? এই হাসপাতালে তো আজ প্রায় ১ বছরের কাছাকাছি হয়ে যাচ্ছে।

বিএসএমএমইউতে যে চিকিৎসা চলছে তাতে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার কোনো উন্নতি হচ্ছে না অভিযোগ করে সেলিমা ইসলাম বলেন, দিন দিন তার অবস্থার আরও অবনতি হচ্ছে। এজন্য আমরা চাই উন্নত হাসপাতালে তার চিকিৎসা করা হোক।  তাকে মুক্তি দেয়া হোক। শারীরিক অবস্থার অবনতির কারণে খালেদা জিয়া কথা বলতে পারছেন না বলেও তিনি দাবি করেন।

সিটি নির্বাচনের বিষয়ে কোনো বার্তা দিয়েছেন কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, সে তো কথাই বলতে পারছে না।  তবে দেশবাসীর কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : কারাগারে খালেদা জিয়া