প্রচার শেষে ভিডিওবার্তায় ভোটারদের যে আহ্বান জানালেন ইশরাক
jugantor
প্রচার শেষে ভিডিওবার্তায় ভোটারদের যে আহ্বান জানালেন ইশরাক

  যুগান্তর ডেস্ক  

৩১ জানুয়ারি ২০২০, ০২:১০:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন নির্বাচনী প্রচারণার শেষ মুহূর্তে ভোটারদের উদ্দেশে একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছেন। ভিডিও বার্তায় শেষবারের মতো ভোট প্রার্থনা করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার রাতে ফেসবুকে শেয়ার করা তার বক্তব্যটি পূর্ণ তুলে ধরা হল-

‘প্রিয় ঢাকাবাসী,

আমি আপনাদের ইশরাক হোসেন। আপনাদেরই প্রিয় গেরিলা যোদ্ধা প্রয়াত সাদেক হোসেন খোকার ছেলে। আমার বাবার প্রতি আপনাদের শ্রদ্ধা আর ভালবাসার প্রমাণ পেয়েছি তার শেষ যাত্রায়। লাখো মানুষের ভালবাসার সেই ঋণ শোধ হবার নয়।

বাবা হারানোর শোক এখনও কাটিয়ে উঠতে পারিনি আমি। এখনো প্রতি রাতে ঘুমানোর আগে আমি তার ভিডিও দেখি। সকালে উঠলে আমি তার কথা স্মরণ করে বাসা থেকে বের হই।

এরই মধ্যে সামনে চলে আসে ঢাকা সিটি নির্বাচন। আপনাদের স্নেহ, অনুপ্রেরণা এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের সিদ্ধান্তে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে আমাকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। নির্বাচনের পথে হাঁটতে গিয়ে গত কয়েকদিন ঢাকার রাজপথের অলিতে গলিতে আমি চষে বেড়িয়েছি। সেখানকার বাসিন্দাদের যে ভালোবাসা আমি পেয়েছি, সেটি আসলে ভুলবার মত নয়।

এখন আমি বুঝি আমার বাবার শেষ কষ্টটা ছিল উনি ৫ বছর দেশে আসতে পারেননি। যিনি শুধু প্রতিহিংসার রাজনীতির কারণে জীবনের শেষ সময়টুকু নিজদেশে কাটাতে পারেননি। শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করতে পারেননি সেই দেশে- যে দেশের জন্য জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছিলেন। ওনার শেষ যাত্রায় দল-মত, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই যে ভালোবাসা দেখিয়েছেন, সেটি সত্যিই আমাকে আবেগাপ্লুত করে তোলে।

আমার বাবা সারাজীবন জনগণের রাজনীতি করেছেন। আমিও তার আদর্শে বেড়ে উঠেছি এবং আমিও আমৃত্যু জনগণের পাশে থেকে সেবা করতে চাই। নির্বাচনে পথ হাঁটতে গিয়ে গেল কয়েকদিন রাজপথে আপনারা যে ভালোবাসা এবং সমর্থন দেখিয়েছেন, আমি সত্যিই আপ্লুত।

মুসলিম, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সকল ধর্মের মানুষ আমাকে যেভাবে কাছে টেনে নিয়েছেন আপন জনের মত, তাতে বোঝা আরো ভারী হয়েছে। আমৃত্যু আপনাদের কাছে থেকে এই ঋণের বোঝা কিছুটা হালকা করার সুযোগ চাই। জানি রাষ্ট্রের কাছে আপনাদের বেশি কিছু চাওয়ার নেই। চান শুধু মন খুলে কথা বলতে। চান নিরাপদ নির্ভয়ে থাকতে। মত প্রকাশের অন্যতম হাতিয়ার, স্বাধীনভাবে ভোট দিতে।

পাঁচ বছর পর একটি ভোট। সেই অধিকারটুকু কেড়ে নিয়েছে ক্ষমতাসীনরা। সেই ভোটের অধিকার রক্ষায় যেই সংগ্রামে নেমেছি জীবন দিয়ে হলেও থাকতে চাই এই যুদ্ধে। পহেলা ফেব্রুয়ারী একটি দিন দেখিয়ে দিন আপনাদের ক্ষমতা। যে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে কেউ তা রুখতে পারবে না। কোন অন্যায় কান চক্রান্ত এবার আর জনগণকে হারাতে পারবে না।

আসুন, পহেলা ফেব্রুয়ারী সকাল সকাল দলবেঁধে ভোটকেন্দ্রে যাই। ধানের শীষে আপনাদের একটি ভোট ফিরিয়ে আনবে আপনাদের ভোটাধিকার, মুক্তি পাবে গণতন্ত্র, বেগবান হবে গণতন্ত্রের মা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন।

প্রিয় ঢাকাবাসী, পিতৃহারা ইশরাক হোসেনের অভিভাবক আপনারাই। আমি আপনাদের সন্তান আমি বেড়ে উঠেছি আপনাদের অলিগলিতে। থাকতে চাই আপনাদের মাঝে আমার বাবার মত, বঞ্চিত জনতার সঙ্গে। ভোট আপনাদের অধিকার, এই রাষ্ট্রের মালিক আপনারা, এই দেশের মালিক আপনারা।

১৯৭১ সালে আমাদের বাবারা মুক্তিযুদ্ধ করে যে রাষ্ট্র স্বাধীন করেছিল তার মূলমন্ত্র ছিল জনগণ হবে ক্ষমতার মালিক। পহেলা ফেব্রুয়ারী আপনাদের মাঝে একটি সুবর্ণ সুযোগ এসেছে অবশ্যই আপনারা সকল ভয় বাধা-বিপত্তি সকল প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবেলা করে ভোটকেন্দ্রে আসবেন। আমরা আছি আপনাদের পাশে।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) আপনাদের ভোট সম্পন্ন করার জন্য যা যা করার সব কিছুই করবে। আমরা বীরের জাতি, আমরা কোন রক্তচক্ষুকে ভয় পাই না। আমরা আপনাদের আহ্বান জানাচ্ছি অবশ্যই পহেলা ফেব্রুয়ারী ভোটকেন্দ্রে আসবেন এবং আপনাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে আপনাদের জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করবেন।’

প্রচার শেষে ভিডিওবার্তায় ভোটারদের যে আহ্বান জানালেন ইশরাক

 যুগান্তর ডেস্ক 
৩১ জানুয়ারি ২০২০, ০২:১০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন।
ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন। ফাইল ছবি

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন নির্বাচনী প্রচারণার শেষ মুহূর্তে ভোটারদের উদ্দেশে একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছেন। ভিডিও বার্তায় শেষবারের মতো ভোট প্রার্থনা করেন তিনি।  

বৃহস্পতিবার রাতে ফেসবুকে শেয়ার করা তার বক্তব্যটি পূর্ণ তুলে ধরা হল-

‘প্রিয় ঢাকাবাসী,

আমি আপনাদের ইশরাক হোসেন। আপনাদেরই প্রিয় গেরিলা যোদ্ধা প্রয়াত সাদেক হোসেন খোকার ছেলে। আমার বাবার প্রতি আপনাদের শ্রদ্ধা আর ভালবাসার প্রমাণ পেয়েছি তার শেষ যাত্রায়। লাখো মানুষের ভালবাসার সেই ঋণ শোধ হবার নয়। 

বাবা হারানোর শোক এখনও কাটিয়ে উঠতে পারিনি আমি। এখনো প্রতি রাতে ঘুমানোর আগে আমি তার ভিডিও দেখি। সকালে উঠলে আমি তার কথা স্মরণ করে বাসা থেকে বের হই।

এরই মধ্যে সামনে চলে আসে ঢাকা সিটি নির্বাচন। আপনাদের স্নেহ, অনুপ্রেরণা এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের সিদ্ধান্তে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে আমাকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। নির্বাচনের পথে হাঁটতে গিয়ে গত কয়েকদিন ঢাকার রাজপথের অলিতে গলিতে আমি চষে বেড়িয়েছি। সেখানকার বাসিন্দাদের যে ভালোবাসা আমি পেয়েছি, সেটি আসলে ভুলবার মত নয়।

এখন আমি বুঝি আমার বাবার শেষ কষ্টটা ছিল উনি ৫ বছর দেশে আসতে পারেননি। যিনি শুধু প্রতিহিংসার রাজনীতির কারণে জীবনের শেষ সময়টুকু নিজদেশে কাটাতে পারেননি। শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করতে পারেননি সেই দেশে- যে দেশের জন্য জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছিলেন। ওনার শেষ যাত্রায় দল-মত, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই যে ভালোবাসা দেখিয়েছেন, সেটি সত্যিই আমাকে আবেগাপ্লুত করে তোলে। 

আমার বাবা সারাজীবন জনগণের রাজনীতি করেছেন। আমিও তার আদর্শে বেড়ে উঠেছি এবং আমিও আমৃত্যু জনগণের পাশে থেকে সেবা করতে চাই। নির্বাচনে পথ হাঁটতে গিয়ে গেল কয়েকদিন রাজপথে আপনারা যে ভালোবাসা এবং সমর্থন দেখিয়েছেন, আমি সত্যিই আপ্লুত। 

মুসলিম, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সকল ধর্মের মানুষ আমাকে যেভাবে কাছে টেনে নিয়েছেন আপন জনের মত, তাতে বোঝা আরো ভারী হয়েছে। আমৃত্যু আপনাদের কাছে থেকে এই ঋণের বোঝা কিছুটা হালকা করার সুযোগ চাই। জানি রাষ্ট্রের কাছে আপনাদের বেশি কিছু চাওয়ার নেই। চান শুধু মন খুলে কথা বলতে। চান নিরাপদ নির্ভয়ে থাকতে। মত প্রকাশের অন্যতম হাতিয়ার, স্বাধীনভাবে ভোট দিতে।

পাঁচ বছর পর একটি ভোট। সেই অধিকারটুকু কেড়ে নিয়েছে ক্ষমতাসীনরা। সেই ভোটের অধিকার রক্ষায় যেই সংগ্রামে নেমেছি জীবন দিয়ে হলেও থাকতে চাই এই যুদ্ধে। পহেলা ফেব্রুয়ারী একটি দিন দেখিয়ে দিন আপনাদের ক্ষমতা। যে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে কেউ তা রুখতে পারবে না। কোন অন্যায় কান চক্রান্ত এবার আর জনগণকে হারাতে পারবে না।  

আসুন, পহেলা ফেব্রুয়ারী সকাল সকাল দলবেঁধে ভোটকেন্দ্রে যাই। ধানের শীষে আপনাদের একটি ভোট ফিরিয়ে আনবে আপনাদের ভোটাধিকার, মুক্তি পাবে গণতন্ত্র, বেগবান হবে গণতন্ত্রের মা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন।

প্রিয় ঢাকাবাসী, পিতৃহারা ইশরাক হোসেনের অভিভাবক আপনারাই। আমি আপনাদের সন্তান আমি বেড়ে উঠেছি আপনাদের অলিগলিতে। থাকতে চাই আপনাদের মাঝে আমার বাবার মত, বঞ্চিত জনতার সঙ্গে। ভোট আপনাদের অধিকার, এই রাষ্ট্রের মালিক আপনারা, এই দেশের মালিক আপনারা। 

১৯৭১ সালে আমাদের বাবারা মুক্তিযুদ্ধ করে যে রাষ্ট্র স্বাধীন করেছিল তার মূলমন্ত্র ছিল জনগণ হবে ক্ষমতার মালিক। পহেলা ফেব্রুয়ারী আপনাদের মাঝে একটি সুবর্ণ সুযোগ এসেছে অবশ্যই আপনারা সকল ভয় বাধা-বিপত্তি সকল প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবেলা করে ভোটকেন্দ্রে আসবেন। আমরা আছি আপনাদের পাশে। 

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) আপনাদের ভোট সম্পন্ন করার জন্য যা যা করার সব কিছুই করবে। আমরা বীরের জাতি, আমরা কোন রক্তচক্ষুকে ভয় পাই না। আমরা আপনাদের আহ্বান জানাচ্ছি অবশ্যই পহেলা ফেব্রুয়ারী ভোটকেন্দ্রে আসবেন এবং আপনাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে আপনাদের জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করবেন।’

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন-২০২০

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০