রিজভীর হাত পায়ে কিল-ঘুষি, মির্জা ফখরুলের নিন্দা
jugantor
রিজভীর হাত পায়ে কিল-ঘুষি, মির্জা ফখরুলের নিন্দা

  যুগান্তর রিপোর্ট  

৩১ জানুয়ারি ২০২০, ১১:৫৫:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) নির্বাচনে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তার হাত পায়ে কিল-ঘুষি মারা হয়েছে। রিজভীর ওপর হামলার নিন্দা জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

বিএনপির সহ দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু স্বাক্ষরিত বিবৃবিতে বলা হয়, ডিএনসিসি নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত মেয়রপ্রার্থীর শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী প্রচারের সময় সরকারের মদদে সন্ত্রাসীরা সশস্ত্র হামলা চালিয়েছে। এই হামলাই বলে দেয় ১ ফেব্রুয়ারির সিটি নির্বাচন কেমন হবে। ঢাকা সিটি নির্বাচনে ধানের শীষের গণজোয়ার সহ্য করতে না পারার জন্যই সন্ত্রাসীরা এই বর্বরোচিত হামলা সংঘটিত করল। বরাবরের মত নির্বাচনকে একতরফা করতেই আজকের এই ঘৃণ্য হামলা। বিএনপির প্রার্থীদের শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী প্রচারে সন্ত্রাসী হামলার উদ্দেশ্যই হচ্ছে ভোটের দিন যেন ভোটাররা ভোটকেন্দ্রে যেতে সাহস না পায়। 

রিজভীর ওপর হামলার নিন্দা জানিয়ে ফখরুল বলেন, বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের পক্ষে অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে নির্বাচনী প্রচারে সন্ত্রাসীদের নৃশংস হামলা পরিকল্পিত।

তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় সরকারদলীয় সন্ত্রাসীরা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীসহ নেতাকর্মীদের আহত করার ন্যক্কারজনক ঘটনায় আমি ধিক্কার জানাচ্ছি, নিন্দা জানাচ্ছি। হামলায় আহত নেতাকর্মীদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করছি।

১ ফেব্রুয়ারি ভোটারদের রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ক্ষমতার দাম্ভিকতায় ত্রাস সৃষ্টি করে আওয়ামী লীগ অতীতের নির্বাচনগুলোর মতই ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনেও ভোট ডাকাতি এবং জালিয়াতির মেশিন ইভিএমের মাধ্যমে ভোট কারচুপি করে তারা নিজেদের দলীয় প্রার্থীদের বিজয়ী করতে চায়। তবে ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠেয় ঢাকা সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও ভয়ভীতিমুক্ত করতে জনগণই হচ্ছে সবচেয়ে বড় শক্তি। ভোটের দিন ভোটাররা সরকারের সব বাধা বিপত্তি ও ষড়যন্ত্র জাল ছিন্ন করতে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়াবে।

রিজভীর হাত পায়ে কিল-ঘুষি, মির্জা ফখরুলের নিন্দা

 যুগান্তর রিপোর্ট 
৩১ জানুয়ারি ২০২০, ১১:৫৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) নির্বাচনে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তার হাত পায়ে কিল-ঘুষি মারা হয়েছে। রিজভীর ওপর হামলার নিন্দা জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

বিএনপির সহ দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু স্বাক্ষরিত বিবৃবিতে বলা হয়, ডিএনসিসি নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত মেয়রপ্রার্থীর শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী প্রচারের সময় সরকারের মদদে সন্ত্রাসীরা সশস্ত্র হামলা চালিয়েছে। এই হামলাই বলে দেয় ১ ফেব্রুয়ারির সিটি নির্বাচন কেমন হবে। ঢাকা সিটি নির্বাচনে ধানের শীষের গণজোয়ার সহ্য করতে না পারার জন্যই সন্ত্রাসীরা এই বর্বরোচিত হামলা সংঘটিত করল। বরাবরের মত নির্বাচনকে একতরফা করতেই আজকের এই ঘৃণ্য হামলা। বিএনপির প্রার্থীদের শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী প্রচারে সন্ত্রাসী হামলার উদ্দেশ্যই হচ্ছে ভোটের দিন যেন ভোটাররা ভোটকেন্দ্রে যেতে সাহস না পায়।

রিজভীর ওপর হামলার নিন্দা জানিয়ে ফখরুল বলেন, বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের পক্ষে অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে নির্বাচনী প্রচারে সন্ত্রাসীদের নৃশংস হামলা পরিকল্পিত।

তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় সরকারদলীয় সন্ত্রাসীরা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীসহ নেতাকর্মীদের আহত করার ন্যক্কারজনক ঘটনায় আমি ধিক্কার জানাচ্ছি, নিন্দা জানাচ্ছি। হামলায় আহত নেতাকর্মীদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করছি।

১ ফেব্রুয়ারি ভোটারদের রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ক্ষমতার দাম্ভিকতায় ত্রাস সৃষ্টি করে আওয়ামী লীগ অতীতের নির্বাচনগুলোর মতই ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনেও ভোট ডাকাতি এবং জালিয়াতির মেশিন ইভিএমের মাধ্যমে ভোট কারচুপি করে তারা নিজেদের দলীয় প্রার্থীদের বিজয়ী করতে চায়। তবে ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠেয় ঢাকা সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও ভয়ভীতিমুক্ত করতে জনগণই হচ্ছে সবচেয়ে বড় শক্তি। ভোটের দিন ভোটাররা সরকারের সব বাধা বিপত্তি ও ষড়যন্ত্র জাল ছিন্ন করতে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়াবে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন-২০২০

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০