দক্ষিণে ভোটকেন্দ্রের সিসি ক্যামেরার সংযোগ বিচ্ছিন্নের অভিযাগ ইশরাকের

  যুগান্তর রিপোর্ট ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০:২০:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি-যুগান্তর

বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে সিসি ক্যামেরার লাইন গতকাল রাতে কেটে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটির বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইঞ্জি‌নিয়ার ইশরাক হোসেন।

শনিবার সকালে মতিঝিলের আরকে মিশন রোডের শহীদ শাহজাহান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট প্রদান শেষে সাংবাদিকদের এ অভিযোগ করেন তিনি।

ইশরাক বলেন, গতকাল রাতে বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে সিসি ক্যামেরার সংযোগ কেটে দেয়া হয়েছে। তার কিছু ভিডিও পেয়েছি; যা আপনাদের শেয়ার করেছি। পরে অভিযোগ জানানোর পর তা ঠিক করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বংশালের একটি কেন্দ্রে রাতে আওয়ামী লীগ কর্মীরা ঢোকার চেষ্টা করেছিল। এসময় বাধা দেয়ায় তারা আমাদের এক কর্মীর মাথা ফাটিয়ে দেয়। পরে এলাকাবাসী ধাওয়া দিয়ে তাদের তাড়িয়ে দেয়।

ভোট দিয়ে ইশরাক বলেন, আমি আমার জীবনে প্রথম ভোট দিলাম। ধানের শীষে আমার ভোট দিয়েছি। একইসঙ্গে বিএনপি সমর্থিত দুই কাউন্সিলর প্রার্থীকেও ভোট দিয়েছি।

তবে নির্বাচনে যে কোনো পরিস্থিতির জন্য প্রস্তত আছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

ইশরাক বলেন, কোনো বাধাই আমাকে আটকাতে পারবে না। আমি আজকে আল্লাহর নাম নিয়ে এবং আমার বাবাকে স্মরণ করে বাসা থেকে বের হয়েছি। আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় সম্পূর্ণ প্রস্তত আছি।

‘আজকে যদি আমাকে হামলার শিকার হতে হয়, আহত হতে হয়, হব। তবুও ভোটকেট দখলমুক্ত এবং ভোটারদের নিরাপদভাবে ভোট দেয়ার জন্য যা যা করা দরকার তা আমি করব।’

বিএনপির এ প্রার্থী আরও বলেন, অনেক কেন্দ্রে বিএনপির এজেন্টদের ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। এ বিষয়ে ম্যাজিস্ট্রেটকে অবহিত করা হয়েছে। এছাড়া কেন্দ্রে এজেন্টরা কেন আসছে না তা জানার চেষ্টা করব।

তিনি বলেন, বিভিন্ন জরিপে ধানের শীষ ৮০ শতাংশের বেশি এগিয়ে আছে। যদি ঠিকমতো ভোট হয় তাহলে বিপুল ভোটে জয়ী হব ইনশাআল্লাহ।

ইভিএম প্রসঙ্গে ইশরাক বলেন, শুরু থেকেই বলে আসছি, ইভিএমে মানুষের আস্থা নেই। জয়ী হলেও একই কথা বলব।

তিনি আরও বলেন, দক্ষিণ সিটিতে অনেকগুলো মনিটরিং সেল গঠন করা হয়েছে। আপনারা চাইলে যে কেউ সেখানে অভিযোগ জানাতে পারবেন।

ঘটনাপ্রবাহ : ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন-২০২০

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত