মহিউদ্দিনের পথে হাঁটবেন রেজাউল
jugantor
মহিউদ্দিনের পথে হাঁটবেন রেজাউল

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১:২৩:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে ঢাকা থেকে ফেরার পর রেজাউল করিম চৌধুরীকে ফুল দিয়ে বরণ করে নিয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় তাদের শুভেচ্ছার জবাবে রেজাউল করিম বলেন, আওয়ামী লীগের প্রয়াত নেতা এমএ আজিজ, জহুর আহমেদ চৌধুরী ও এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর পথ ধরে চলব।

বুধবার বিকাল ৩টায় ট্রেনযোগে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে ফেরেন রেজাউল করিম চৌধুরী। পুরনো রেলস্টেশন চত্বরে একটি ট্রাকে লাল-সবুজ কাপড়ে মুড়িয়ে বানানো অস্থায়ী মঞ্চে রেজাউল করিমের সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। চট্টগ্রাম উত্তর, দক্ষিণ ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতারা মঞ্চে ছিলেন। এই অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত বর্তমান মেয়র নাছির উদ্দীনের যাওয়ার কথা থাকলেও তিনি শেষ পর্যন্ত যাননি।

ট্রেন থেকে নামার পর বাজনা বাজিয়ে এবং ফুল ছিটিয়ে নেতাকর্মীরা বরণ করে নেন রেজাউলকে।

সংবর্ধনার জবাবে রেজাউল করিম চৌধুরী এ সময় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, ‘চট্টলবাসী আমার প্রতি যে আন্তরিকতা দেখিয়েছেন সে জন্য আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ। কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করছি যারা আমাকে রাজনৈতিক শিক্ষা দিয়েছেন- এই চট্টলার শেখ মোজাজফর আহমদ, এমএ আজিজ, জহুর আহমেদ চৌধুরী, এমএ হান্নান, এমএ মান্নান, কাজেম আলী মাস্টার, মনিরুজ্জামান ইসলামাবাদী, আতাউর রহমান খান কায়সার, আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু এবং সদ্যপ্রয়াত চট্টলবীর এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীকে।

তিনি বলেন, এই সমাবেশে দাঁড়িয়ে বলতে চাই– নেত্রী শেখ হাসিনা আমার ওপর যে আস্থা রেখেছেন, সেই আস্থার প্রতিদান প্রয়াত নেতাদের পদাঙ্ক অনুসরণ করে আমার শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও পালন করে যাব। একটি কথা দিতে পারি– অর্থবিত্তের প্রতি আমার কোনো মোহ নেই। এমএ আজিজ, জহুর আহমেদ চৌধুরী ও এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীরা যে পথে গেছেন, আমিও সেই পথে হাঁটব।

তিনি বলেন, এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ১৭ বছর এই চট্টলবাসীর সেবা করেছেন। এই চট্টগ্রামকে সমগ্র বাংলাদেশে একটা মডেল সিটি হিসেবে উপহার দিয়েছেন। তার পরে পাঁচ বছর সিটি কর্পোরেশন আমাদের হাতে ছিল না। আবার ২০১৫ সালে এই সিটি কর্পোরেশন আমাদের হাতে এসেছিল। মহিউদ্দিন চৌধুরী যে উন্নয়ন করেছেন, সেই উন্নয়নের ধারা বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির অব্যাহত রেখেছেন। আমি যদি আপনাদের ভোটে মেয়র নির্বাচিত হতে পারি, সেই ধারা বহমান রাখব।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) সাবেক চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম।

মহিউদ্দিনের পথে হাঁটবেন রেজাউল

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১:২৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে ঢাকা থেকে ফেরার পর রেজাউল করিম চৌধুরীকে ফুল দিয়ে বরণ করে নিয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় তাদের শুভেচ্ছার জবাবে রেজাউল করিম বলেন, আওয়ামী লীগের প্রয়াত নেতা এমএ আজিজ, জহুর আহমেদ চৌধুরী ও এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর পথ ধরে চলব।

বুধবার বিকাল ৩টায় ট্রেনযোগে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে ফেরেন রেজাউল করিম চৌধুরী। পুরনো রেলস্টেশন চত্বরে একটি ট্রাকে লাল-সবুজ কাপড়ে মুড়িয়ে বানানো অস্থায়ী মঞ্চে রেজাউল করিমের সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। চট্টগ্রাম উত্তর, দক্ষিণ ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতারা মঞ্চে ছিলেন। এই অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত বর্তমান মেয়র নাছির উদ্দীনের যাওয়ার কথা থাকলেও তিনি শেষ পর্যন্ত যাননি।

ট্রেন থেকে নামার পর বাজনা বাজিয়ে এবং ফুল ছিটিয়ে নেতাকর্মীরা বরণ করে নেন রেজাউলকে। 

সংবর্ধনার জবাবে রেজাউল করিম চৌধুরী এ সময় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, ‘চট্টলবাসী আমার প্রতি যে আন্তরিকতা দেখিয়েছেন সে জন্য আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ। কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করছি যারা আমাকে রাজনৈতিক শিক্ষা দিয়েছেন- এই চট্টলার শেখ মোজাজফর আহমদ, এমএ আজিজ, জহুর আহমেদ চৌধুরী, এমএ হান্নান, এমএ মান্নান, কাজেম আলী মাস্টার, মনিরুজ্জামান ইসলামাবাদী, আতাউর রহমান খান কায়সার, আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু এবং সদ্যপ্রয়াত চট্টলবীর এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীকে।

তিনি বলেন, এই সমাবেশে দাঁড়িয়ে বলতে চাই– নেত্রী শেখ হাসিনা আমার ওপর যে আস্থা রেখেছেন, সেই আস্থার প্রতিদান প্রয়াত নেতাদের পদাঙ্ক অনুসরণ করে আমার শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও পালন করে যাব। একটি কথা দিতে পারি– অর্থবিত্তের প্রতি আমার কোনো মোহ নেই। এমএ আজিজ, জহুর আহমেদ চৌধুরী ও এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীরা যে পথে গেছেন, আমিও সেই পথে হাঁটব।

তিনি বলেন, এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ১৭ বছর এই চট্টলবাসীর সেবা করেছেন। এই চট্টগ্রামকে সমগ্র বাংলাদেশে একটা মডেল সিটি হিসেবে উপহার দিয়েছেন। তার পরে পাঁচ বছর সিটি কর্পোরেশন আমাদের হাতে ছিল না। আবার ২০১৫ সালে এই সিটি কর্পোরেশন আমাদের হাতে এসেছিল। মহিউদ্দিন চৌধুরী যে উন্নয়ন করেছেন, সেই উন্নয়নের ধারা বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির অব্যাহত রেখেছেন। আমি যদি আপনাদের ভোটে মেয়র নির্বাচিত হতে পারি, সেই ধারা বহমান রাখব।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) সাবেক চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম।

 

ঘটনাপ্রবাহ : চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন ২০২০

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০