রিজভীর সামনেই বিএনপির দুই গ্রুপের সংঘর্ষ (ভিডিও)
jugantor
রিজভীর সামনেই বিএনপির দুই গ্রুপের সংঘর্ষ (ভিডিও)

  কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি  

১৯ আগস্ট ২০২০, ২০:৪৮:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর সামনেই বিএনপির ত্রাণ বিতরণকে কেন্দ্র করে কুড়িগ্রামে জেলা বিএনপির দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে।

বুধবার বিকালে সদর উপজেলার ভেলাকোপা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বন্যার্তদের মাঝে কেন্দ্রীয় বিএনপির ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে।

এতে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রানা ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোহেল হোসনাইন কায়কোবাদসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অনুষ্ঠানস্থলে আসনে বসাকে কেন্দ্র করে ঘটনাটি ঘটে। ফলে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম ভেস্তে যায়। এ সময় ত্রাণ নিতে আসা ছয় শতাধিক মানুষ আতঙ্কে দিগ্বিদিক ছোটাছুটি শুরু করেন এবং অনুষ্ঠান স্থল ত্যাগ করেন। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। নেতাকর্মীরা দ্রুত দলের যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেন।

কুড়িগ্রাম সদর থানার ওসি মাহফুজার রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিএনপির ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। এ সময় অনুষ্ঠানে আসনে বসা নিয়ে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রানা গ্রুপের সঙ্গে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সোহেল হোসনাইন কায়কোবাদ গ্রুপের সংঘর্ষ শুরু হয়।

সংঘর্ষে দুই গ্রুপের আহতরা কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এখন পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি। পরিস্থিতি বর্তমানে নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

এ ব্যাপারে জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক জানান, যারা কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিবের উপস্থিতিতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে দলের ভাবমূতি ক্ষুণ্ন করেছে, তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে দাবি জানানো হবে।

রিজভীর সামনেই বিএনপির দুই গ্রুপের সংঘর্ষ (ভিডিও)

 কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি 
১৯ আগস্ট ২০২০, ০৮:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর সামনেই বিএনপির ত্রাণ বিতরণকে কেন্দ্র করে কুড়িগ্রামে জেলা বিএনপির দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে।

বুধবার বিকালে সদর উপজেলার ভেলাকোপা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বন্যার্তদের মাঝে কেন্দ্রীয় বিএনপির ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে। 

এতে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রানা ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোহেল হোসনাইন কায়কোবাদসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অনুষ্ঠানস্থলে আসনে বসাকে কেন্দ্র করে ঘটনাটি ঘটে। ফলে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম ভেস্তে যায়। এ সময় ত্রাণ নিতে আসা ছয় শতাধিক মানুষ আতঙ্কে দিগ্বিদিক ছোটাছুটি শুরু করেন এবং অনুষ্ঠান স্থল ত্যাগ করেন। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। নেতাকর্মীরা দ্রুত দলের যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেন।

কুড়িগ্রাম সদর থানার ওসি মাহফুজার রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিএনপির ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। এ সময় অনুষ্ঠানে আসনে বসা নিয়ে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রানা গ্রুপের সঙ্গে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সোহেল হোসনাইন কায়কোবাদ গ্রুপের সংঘর্ষ শুরু হয়।

সংঘর্ষে দুই গ্রুপের আহতরা কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এখন পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি। পরিস্থিতি বর্তমানে নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

এ ব্যাপারে জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক জানান, যারা কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিবের উপস্থিতিতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে দলের ভাবমূতি ক্ষুণ্ন করেছে, তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে দাবি জানানো হবে।