ইউনুস আলী আকন্দকে আইন পেশা থেকে অব্যাহতি
jugantor
ইউনুস আলী আকন্দকে আইন পেশা থেকে অব্যাহতি

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪:৩৩:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউনুস আলী আকন্দকে আইন পেশা থেকে অব্যাহতি

দেশের বিচার বিভাগ নিয়ে ফেসবুকে বিরূপ মন্তব্য করায় ড. ইউনুস আলী আকন্দকে সুপ্রিমকোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগে আইনজীবী হিসেবে প্র্যাকটিস করা থেকে দুই সপ্তাহের জন্য অব্যাহতি দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

একই সঙ্গে আগামী ১১ অক্টোবর তাকে আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি তার স্ট্যাটাসটি মুছে দিয়ে অ্যাকাউন্টটি ব্লক করে দিতে বিটিআরসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

রোববার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

স্ট্যাটাসটি আদালতের নজরে আনেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা। এর পর আপিল বিভাগ শুনানি নিয়ে উপরোক্ত আদেশ দেন।

এ সময় সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজলও আদালতের সঙ্গে সংযুক্ত ছিলেন।

আইনজীবীরা জানান, ফেসবুকে ভার্চুয়াল আদালত নিয়ে ‘আদালত অবমাননাকর’ স্ট্যাটাস দেয়ায় ইউনুস আলী আকন্দকে তলব করেছেন সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে তাকে দুই সপ্তাহের জন্য আইন পেশা থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। দুই সপ্তাহ তিনি সুপ্রিমকোর্টে কোনো ধরনের মামলা পরিচালনা করতে পারবেন না। এ ছাড়া তার বিতর্কিত পোস্ট ফেসবুক থেকে মুছে ফেলতে বিটিআরটিসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ইউনুস আলী আকন্দকে আইন পেশা থেকে অব্যাহতি

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইউনুস আলী আকন্দকে আইন পেশা থেকে অব্যাহতি
ফাইল ছবি

দেশের বিচার বিভাগ নিয়ে ফেসবুকে বিরূপ মন্তব্য করায় ড. ইউনুস আলী আকন্দকে সুপ্রিমকোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগে আইনজীবী হিসেবে প্র্যাকটিস করা থেকে দুই সপ্তাহের জন্য অব্যাহতি দিয়েছেন আপিল বিভাগ। 

একই সঙ্গে আগামী ১১ অক্টোবর তাকে আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি তার স্ট্যাটাসটি মুছে দিয়ে অ্যাকাউন্টটি ব্লক করে দিতে বিটিআরসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। 

রোববার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

স্ট্যাটাসটি আদালতের নজরে আনেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা। এর পর আপিল বিভাগ শুনানি নিয়ে উপরোক্ত আদেশ দেন।

এ সময় সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজলও আদালতের সঙ্গে সংযুক্ত ছিলেন।

আইনজীবীরা জানান, ফেসবুকে ভার্চুয়াল আদালত নিয়ে ‘আদালত অবমাননাকর’ স্ট্যাটাস দেয়ায় ইউনুস আলী আকন্দকে তলব করেছেন সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে তাকে দুই সপ্তাহের জন্য আইন পেশা থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। দুই সপ্তাহ তিনি সুপ্রিমকোর্টে কোনো ধরনের মামলা পরিচালনা করতে পারবেন না। এ ছাড়া তার বিতর্কিত পোস্ট ফেসবুক থেকে মুছে ফেলতে বিটিআরটিসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।