খালেদা জিয়ার আর্থ্রাইটিজের সমস্যা বেড়েছে, হাঁটুতেও কষ্ট

  যুগান্তর ডেস্ক    ০৭ এপ্রিল ২০১৮, ০৮:৫৮ | অনলাইন সংস্করণ

খালেদা জিয়া

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আর্থ্রাইটিজের সমস্যাটা বেশ বেড়ে গেছে। তার হাঁটতেও কষ্ট হচ্ছে। এজন্য তার প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দরকার বলে জানান দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, কারাগারে সত্যিকার অর্থেই খালেদা জিয়া অসুস্থ। দুঃখজনক হলেও সত্য, ওই চিকিৎসা এখনও তিনি পাচ্ছেন না। কারণ তাকে যারা চিকিৎসা করতেন, তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের এখনও দেখা করতে দেয়া হয়নি। তবে খালেদা জিয়ার মনোবল অনেক শক্ত। তিনি আমাদের চেয়েও শক্ত মনের মানুষ। চেয়ারপারসন চলমান শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

শুক্রবার বিকাল ৪টার দিকে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে যান বিএনপি মহাসচিব। প্রায় এক ঘণ্টা খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠক করেন। কারাগার থেকে বেরিয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের মির্জা ফখরুল এ তথ্য জানান। এসময় খালেদা জিয়ার সঙ্গে অবিলম্বে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের সাক্ষাতের ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি দাবি জানান বিএনপি মহাসচিব।

খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য কেমন দেখলেন প্রশ্ন করা হলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বন্দিজীবনে খালেদা জিয়া অভ্যস্ত নন। তাকে যখন বন্দি করে রাখা হয়, তখন চাপ পড়েই। তবে উনার মনোবল অনেক শক্ত। উনি আমাদের চেয়েও শক্ত মনের মানুষ।’

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া বারবার বলেছেন, আমার জন্য আপনারা ভাববেন না। আমি ভালো আছি, আমি শক্ত আছি।’

খালেদা জিয়ার বার্তা কী জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দেশে যে সংকট বিরাজ করছে, সেই সংকট থেকে উত্তরণের জন্য তিনি মনে করেন, একমাত্র পথ গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা। সেজন্য চলমান আন্দোলন অব্যাহত রাখতে বলেছেন। তিনি মনে করেন, আন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনাই হল একমাত্র পথ।’

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান ও মহাসচিবের একান্ত সহকারী কৃষিবিদ ইউনুস আলী উপস্থিত ছিলেন।

বৃহস্পতিবার রাতে গুলশান কার্যালয়ে সিনিয়র নেতাদের এক বৈঠকে বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে সাক্ষাতে আলোচনার বিষয়বস্তু চূড়ান্ত করা হয়। সেখানে বেশকিছু বিষয়ে খালেদা জিয়ার মতামত নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। খালেদা জিয়ার সঙ্গে দলের মহাসচিবের সাক্ষাতে দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের প্রার্থী ঠিক করা, বর্তমান পরিস্থিতিতে দলের করণীয়, সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সরকারের বাইরে থাকা দলগুলোর সঙ্গে বৃহত্তর ঐক্য গঠন প্রসঙ্গেও কথা হয়েছে। সাক্ষাৎ শেষে বিএনপি মহাসচিবের সঙ্গে দলের কয়েকজন নেতা কথা বলেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই নেতারা এসব তথ্য জানান।

এর আগে ২৯ মার্চ খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার সময় সাক্ষাৎ স্থগিত করা হয় বিএনপিনেত্রীর অসুস্থতার কারণে। সর্বশেষ ৭ মার্চ মির্জা ফখরুলসহ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সাত নেতা খালেদা জিয়ার সঙ্গে কারাগারে দেখা করার সুযোগ পেয়েছিলেন। 

ওইদিন স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, ড. আবদুল মঈন খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী এবং খালেদা জিয়ার একান্ত সচিব এমবিএম আবদুস সাত্তারও ছিলেন ফখরুলের সঙ্গে। খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান ও তার ছোট মেয়ে জাহিয়া রহমান, খালেদা জিয়ার বোন সেলিনা ইসলাম, ছোট ভাই শামীম এস্কান্দর, স্ত্রী কানিজ ফাতিমাসহ পরিবারের সদস্যরাও কারাগারে গিয়ে দেখা করেছেন। এছাড়া খালেদা জিয়ার জ্যেষ্ঠ আইনজীবীরাও দুই দফা কারাগারে দেখা করেছেন তার সঙ্গে।

ঘটনাপ্রবাহ : কারাগারে খালেদা জিয়া

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter