আবারও এনজিওগ্রাম করা লাগবে রিজভীর
jugantor
আবারও এনজিওগ্রাম করা লাগবে রিজভীর

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৯ নভেম্বর ২০২০, ১৬:০৭:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

আবারও এনজিওগ্রাম করা লাগবে রিজভীর

অসুস্থ বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর আবারও এনজিওগ্রাম করা লাগবে।

তিনি এখন ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি। হাসপাতালে অধ্যাপক ডা. সোহরাবুজ্জামানের নেতৃত্বে গঠিত মেডিকেল বোর্ড আগামী শনিবার ফের তার এনজিওগ্রাম করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এনজিওগ্রাম করে তার হার্টের অবস্থা দেখে মেডিকেল বোর্ড পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন। যুগান্তরকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান।

এর আগে গত ১৫ অক্টোবর ল্যাবএইড হাসপাতালে রিজভীর হার্টের এনজিওগ্রাম করা হয়। এ সময় তার হার্টে একটি ব্লক ধরা পড়লে ইনজেকশনের মাধ্যমে সেটির ৪০ থেকে ৪৫ শতাংশ অপসারণ করা হয়।

গত ১১ নভেম্বর বিএসএমএমইউতে তার হার্টের এমপিআই টেস্ট করা হয়েছে। এমপিআই পরীক্ষায় কিছু সমস্যা ধরা পড়ে। রিজভী পরবর্তী চিকিৎসা নিতে গত সোমবার থেকে আবার ল্যাবএইড হাসপাতালের ৬০১ নম্বর কেবিনে ভর্তি হয়েছেন।

রিজভীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও বিএনপির সহস্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর হার্টের ভায়াবিলিটি (কার্যক্ষমতা) দেখার পর পরবর্তী চিকিৎসা দেয়া হবে।

গত ১৩ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শ্রমিক দলের মানববন্ধন শেষে দলীয় কার্যালয়ে যাওয়ার সময় রিজভীর হার্টঅ্যাটাক হয়। প্রথমে তাকে কাকরাইলের ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে ধানমণ্ডির ল্যাবএইড হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

আবারও এনজিওগ্রাম করা লাগবে রিজভীর

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৯ নভেম্বর ২০২০, ০৪:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আবারও এনজিওগ্রাম করা লাগবে রিজভীর
ফাইল ছবি

অসুস্থ বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর আবারও এনজিওগ্রাম করা লাগবে। 

তিনি এখন ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি। হাসপাতালে অধ্যাপক ডা. সোহরাবুজ্জামানের নেতৃত্বে গঠিত মেডিকেল বোর্ড আগামী শনিবার ফের তার এনজিওগ্রাম করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এনজিওগ্রাম করে তার হার্টের অবস্থা দেখে মেডিকেল বোর্ড পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন।  যুগান্তরকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান। 

এর আগে গত ১৫ অক্টোবর ল্যাবএইড হাসপাতালে রিজভীর হার্টের এনজিওগ্রাম করা হয়। এ সময় তার হার্টে একটি ব্লক ধরা পড়লে ইনজেকশনের মাধ্যমে সেটির ৪০ থেকে ৪৫ শতাংশ অপসারণ করা হয়।

গত ১১ নভেম্বর বিএসএমএমইউতে তার হার্টের এমপিআই টেস্ট করা হয়েছে।  এমপিআই পরীক্ষায় কিছু সমস্যা ধরা পড়ে। রিজভী পরবর্তী চিকিৎসা নিতে গত সোমবার থেকে আবার ল্যাবএইড হাসপাতালের ৬০১ নম্বর কেবিনে ভর্তি হয়েছেন।

রিজভীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও বিএনপির সহস্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর হার্টের ভায়াবিলিটি (কার্যক্ষমতা) দেখার পর পরবর্তী চিকিৎসা দেয়া হবে।

গত ১৩ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শ্রমিক দলের মানববন্ধন শেষে দলীয় কার্যালয়ে যাওয়ার সময় রিজভীর হার্টঅ্যাটাক হয়। প্রথমে তাকে কাকরাইলের ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে ধানমণ্ডির ল্যাবএইড হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।  
 

 
আরও খবর