জিয়াউর রহমান বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তনের প্রতিবাদে ইশরাকের নেতৃত্বে বিক্ষোভ
jugantor
জিয়াউর রহমান বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তনের প্রতিবাদে ইশরাকের নেতৃত্বে বিক্ষোভ

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৫:০৮:৪৯  |  অনলাইন সংস্করণ

জিয়াউর রহমান বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তনের প্রতিবাদে ইশরাকের নেতৃত্বে বিক্ষোভ

পুরান ঢাকার বংশাল এলাকার মোগলটুলীতে জিয়াউর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করায় দলীয় নেতা ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেনের নেতৃত্বে বিক্ষোভ করেছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা।

রোববার সকালে বংশাল মোড় থেকে মিছিল শুরু করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। সেখান থেকে মোগলটুলী এলাকায় স্কুলের সামনে যান তারা। সেখানে বিক্ষোভ করতে থাকেন বিএনপির কর্মী-সমর্থকরা।

এ সময় বিক্ষুব্ধ কর্মীরা স্কুলের পরিবর্তিত নামফলক কালো কালি দিয়ে মুছে দেযন। এ সময় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব-উন নবী খান সোহেল এবং ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন নেতাকর্মীদের সেখান থেকে সরিয়ে নিয়ে যান। পরে নবাবপুর সড়কে পথসভা করেন তারা।

এ সময় ইশরাক বলেন, আমার বাবা অবিভক্ত ঢাকার শেষ মেয়র প্রয়াত সাদেক হোসেন খোকা ২০০৬ সালের ২৫ মার্চ জিয়াউর রহমানের নামে এ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। কিন্তু রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে সম্প্রতি বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করে মোগলটুলি উচ্চ বিদ্যালয় করা হয়েছে। এলাকাবাসী বা কারও চাহিদা না থাকলেও সিটি কর্পোরেশন থেকে বিদ্যালয়টির নাম পরিবর্তন করায় ক্ষোভ জানান তিনি।

হাবিব-উন নবী খান সোহেল এ সময় বলেন, বিদ্যালয় থেকে নাম পরিবর্তন করলেই জিয়াউর রহমানের নাম মানুষের মন থেকে মুছে ফেলা যাবে না। এ ধরনের ন্যক্কারজনক কর্মকাণ্ড দেশের সাধারণ মানুষ মেনে নেবে না। যে প্রতিবাদ শুরু হয়েছে তা চলবে বলে জানান বিএনপির এ নেতা।

জিয়াউর রহমান বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তনের প্রতিবাদে ইশরাকের নেতৃত্বে বিক্ষোভ

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৩:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
জিয়াউর রহমান বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তনের প্রতিবাদে ইশরাকের নেতৃত্বে বিক্ষোভ
ছবি: যুগান্তর

পুরান ঢাকার বংশাল এলাকার মোগলটুলীতে জিয়াউর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করায় দলীয় নেতা ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেনের নেতৃত্বে বিক্ষোভ করেছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। 

রোববার সকালে বংশাল মোড় থেকে মিছিল শুরু করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। সেখান থেকে মোগলটুলী এলাকায় স্কুলের সামনে যান তারা। সেখানে বিক্ষোভ করতে থাকেন বিএনপির কর্মী-সমর্থকরা।  

এ সময় বিক্ষুব্ধ কর্মীরা স্কুলের পরিবর্তিত নামফলক কালো কালি দিয়ে মুছে দেযন। এ সময় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব-উন নবী খান সোহেল এবং ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন নেতাকর্মীদের সেখান থেকে সরিয়ে নিয়ে যান। পরে নবাবপুর সড়কে পথসভা করেন তারা। 

এ সময় ইশরাক বলেন, আমার বাবা অবিভক্ত ঢাকার শেষ মেয়র প্রয়াত সাদেক হোসেন খোকা ২০০৬ সালের ২৫ মার্চ জিয়াউর রহমানের নামে এ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। কিন্তু রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে সম্প্রতি বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করে মোগলটুলি উচ্চ বিদ্যালয় করা হয়েছে। এলাকাবাসী বা কারও চাহিদা না থাকলেও সিটি কর্পোরেশন থেকে বিদ্যালয়টির নাম পরিবর্তন করায় ক্ষোভ জানান তিনি। 

হাবিব-উন নবী খান সোহেল এ সময় বলেন, বিদ্যালয় থেকে নাম পরিবর্তন করলেই জিয়াউর রহমানের নাম মানুষের মন থেকে মুছে ফেলা যাবে না। এ ধরনের ন্যক্কারজনক কর্মকাণ্ড দেশের সাধারণ মানুষ মেনে নেবে না। যে প্রতিবাদ শুরু হয়েছে তা চলবে বলে জানান বিএনপির এ নেতা।
 

 
আরও খবর