আমাদের নিঃস্বার্থভাবে কাজ করতে হবে: সালমা ইসলাম এমপি
jugantor
আহ্বায়ক কমিটির মতবিনিময় সভা
আমাদের নিঃস্বার্থভাবে কাজ করতে হবে: সালমা ইসলাম এমপি

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৯ জানুয়ারি ২০২১, ১৮:১১:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

আমাদের নিঃস্বার্থভাবে কাজ করতে হবে: সালমা ইসলাম এমপি

জাতীয় মহিলা পার্টির নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের নিঃস্বার্থভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি।

শনিবার বিকাল ৩টা থেকে দৈনিক যুগান্তর কার্যালয় ভবনে অনুষ্ঠিত জাতীয় মহিলা পার্টির নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির পরিচিতি ও মতবিনিময় সভায় তিনি এ আহ্বান জানান। নবগঠিত এ কমিটির আহ্বায়কও তিনি ।

সভার নেতৃত্ব দেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি। সভায় জাতীয় পার্টির নারী নেত্রী ও সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা হেনা খান পন্নিকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান পার্টির সদস্যরা।

অনুষ্ঠানের প্রাথমিক বক্তব্যে আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের উদ্দেশে সালমা ইসলাম এমপি বলেন, করোনা পরিস্থিতি ও ব্যস্ততার মাঝেও আপনারা আমার ডাকে সাড়া দিয়ে উপস্থিত হয়েছেন, আমি চিরকৃতজ্ঞ। আমাদের চেয়ারম্যান জিএম কাদের চার মাসের মধ্যে জাতীয় মহিলা পার্টির কমিটি গড়ে তা দেশব্যাপী ছড়িয়ে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। এ লক্ষ্যে তিনি আমাকে আপনাদের কিছু দিকনির্দেশনা দিতে বলেছেন। আমি চাই আগামী দুই মাসের মধ্যেই আমরা সফল হব। দেশের ৬৪ জেলায় জাতীয় মহিলা পার্টির শক্ত ভিত গড়ব। স্বচ্ছ, নির্ভেজাল ও শিক্ষিত মেয়েদের দলে অন্তর্ভুক্ত করে এ কাজ এগিয়ে নেব। জেলা-উপজেলা থেকে এমন নারীদের কর্মী হিসেবে বেছে নেব, যারা সামাজিকভাবে সুপরিচিত, স্থানীয়ভাবে মানবতার সেবায় যারা কাজ করেন, এলাকায় যারা নিবেদিতপ্রাণ।

তিনি আরও বলেন, এসব কর্মী হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ৯ বছরের শাসনের ভালো কাজগুলোর কথা সমাজে উপস্থাপন করবেন এবং দলের জন্য ভিত গড়ে তুলবেন। এক কথায় নিঃস্বার্থভাবে ও সব সমালোচনার ঊর্ধ্বে থেকে আমাদের কাজ করতে হবে।

আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব হেনা খানের বিষয়ে সালমা ইসলাম বলেন, পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর সুপারিশে হেনা খান পন্নিকে সদস্য সচিব করা হয়েছে। তিনি অত্যন্ত যোগ্য ও ভরসার প্রতীক। তাকে আমি দীর্ঘসময় ধরে চিনি। তিনি আমার সহপাঠী ছিলেন। দলের প্রতি তার নিষ্ঠা ও নিবেদন অকৃত্রিম। তাকে পেয়ে আমরা কৃতজ্ঞ।

বক্তব্য দিচ্ছেন অ্যাড. সালমা ইসলাম এমপি

সদস্য সচিব হেনা খান পন্নি বলেন, এ দায়িত্ব পেয়ে আমি আপনাদের কাছে চিরকৃতজ্ঞ। নেত্রী সালমা ইসলামের কথায় আমি অভিভূত যে, তিনি আমার ওপর এতটা ভরসা রেখেছেন। আমি অবশ্যই এর মূল্য দেব। সালমা ইসলাম দলের জন্য সার্বক্ষণিক ভাবেন। কীভাবে মহিলা পার্টিকে এগিয়ে নেয়া যায়, তা নিয়ে নানা পরিকল্পনা করেন। আমি চেয়ারম্যান ও কো-চেয়ারম্যান সালমা ইসলামের সব দিক-নির্দেশনা মেনে কাজ এগিয়ে নেব। দিক-নির্দেশনা অনুযায়ী ঢাকার বাইরে কমিটি গঠন করার ক্ষেত্রে আমি সালমা ইসলাম ও সদস্যদের সহায়তা কামনা করছি। ইনশাআল্লাহ আগামী ২ মাসের মধ্যেই আমরা কাজ শেষ করব।

রওশন আরা মান্নান এমপি বলেন, সালমা ইসলাম এখন যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান। এমন গুরুদায়িত্ব পালনের মাঝেও তিনি জাতীয় পার্টির জন্য সময় বের করেন। এতে আমরা তার কাছে চিরকৃতজ্ঞ। তাকে হৃদয় থেকে জাতীয় পার্টির নারী সদস্যরা সম্মান জানান। আমি মনে করি, সালমা ইসলাম শুধু একজন নারী নন, তিনি একটি প্রতিষ্ঠান। তিনি যোগ্য ব্যক্তিত্ব জেনেই পার্টির চেয়ারম্যান তাকে এ দায়িত্ব দিয়েছেন। আমরা আশা করি, তিনি সঠিকভাবেই জাতীয় মহিলা পার্টিকে এগিয়ে নেবেন।

উপস্থিত সদস্যরা জানান, অ্যাডভোকেট সালমা ইসলামের নেতৃত্বে সবাই ঐকমত্য গড়ে কাজ করবেন। তিনি যেভাবে দিক-নির্দেশনা দেন মহিলা পার্টির কার্যক্রম সেভাবেই এগিয়ে যাবে।

সভায় আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- অ্যাডভোকেট লাকী, ড. সেলিমা খান, হাসনা হেনা, আসমা আক্তার রুমি, শাহানাজ পারভীন, মোমেনা সরকার, শারমিন পারভিন লিজা, ফরিদা সিকদার, অ্যাডভোকেট শাহিদা রহমান রিংকু, মিনি খান, সীমানা আমির, কেয়া মাসুদ, জেসমিন নূর প্রিয়াঙ্কা, ফেরদৌসি বকুল, জোনাকী মুনশি, দেলওয়ারা বেগম, রেহেনা আক্তার, রিমা আক্তার, রেহানা খান, তাজনিনা আহাম্মেদ, শ্যামলী, ঝর্ণা, রোখসানা প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, ২৯ ডিসেম্বর জাতীয় মহিলা পার্টির আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন করেন পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

সেদিন এক বিজ্ঞপ্তিতে, মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর সুপারিশে পার্টির কো-চেয়ারম্যান সালমা ইসলামকে আহ্বায়ক এবং চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা হেনা খান পন্নিকে সদস্য সচিব করে আগামী চার মাসের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে জেলা সম্মেলন করে কেন্দ্রীয় সম্মেলন করার শর্তে জাতীয় মহিলা পার্টির ৭৫ সদস্যবিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন করা হয়।

আহ্বায়ক কমিটির মতবিনিময় সভা

আমাদের নিঃস্বার্থভাবে কাজ করতে হবে: সালমা ইসলাম এমপি

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৯ জানুয়ারি ২০২১, ০৬:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আমাদের নিঃস্বার্থভাবে কাজ করতে হবে: সালমা ইসলাম এমপি
সালমা ইসলাম এমপি ও জাতীয় মহিলা পার্টির আহ্বায়ক কমিটির সদস্যরা। ছবি: যুগান্তর

জাতীয় মহিলা পার্টির নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের নিঃস্বার্থভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি।

শনিবার বিকাল ৩টা থেকে দৈনিক যুগান্তর কার্যালয় ভবনে অনুষ্ঠিত জাতীয় মহিলা পার্টির নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির পরিচিতি ও মতবিনিময় সভায় তিনি এ আহ্বান জানান। নবগঠিত এ কমিটির আহ্বায়কও তিনি ।

সভার নেতৃত্ব দেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি। সভায় জাতীয় পার্টির নারী নেত্রী ও সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা হেনা খান পন্নিকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান পার্টির সদস্যরা।

অনুষ্ঠানের প্রাথমিক বক্তব্যে আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের উদ্দেশে সালমা ইসলাম এমপি বলেন, করোনা পরিস্থিতি ও ব্যস্ততার মাঝেও আপনারা আমার ডাকে সাড়া দিয়ে উপস্থিত হয়েছেন, আমি চিরকৃতজ্ঞ। আমাদের চেয়ারম্যান জিএম কাদের চার মাসের মধ্যে জাতীয় মহিলা পার্টির কমিটি গড়ে তা দেশব্যাপী ছড়িয়ে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। এ লক্ষ্যে তিনি আমাকে আপনাদের কিছু দিকনির্দেশনা দিতে বলেছেন। আমি চাই আগামী দুই মাসের মধ্যেই আমরা সফল হব। দেশের ৬৪ জেলায় জাতীয় মহিলা পার্টির শক্ত ভিত গড়ব। স্বচ্ছ, নির্ভেজাল ও শিক্ষিত মেয়েদের দলে অন্তর্ভুক্ত করে এ কাজ এগিয়ে নেব। জেলা-উপজেলা থেকে এমন নারীদের কর্মী হিসেবে বেছে নেব, যারা সামাজিকভাবে সুপরিচিত, স্থানীয়ভাবে মানবতার সেবায় যারা কাজ করেন, এলাকায় যারা নিবেদিতপ্রাণ।

তিনি আরও বলেন, এসব কর্মী হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ৯ বছরের শাসনের ভালো কাজগুলোর কথা সমাজে উপস্থাপন করবেন এবং দলের জন্য ভিত গড়ে তুলবেন। এক কথায় নিঃস্বার্থভাবে ও সব সমালোচনার ঊর্ধ্বে থেকে আমাদের কাজ করতে হবে।

আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব হেনা খানের বিষয়ে সালমা ইসলাম বলেন, পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর সুপারিশে হেনা খান পন্নিকে সদস্য সচিব করা হয়েছে। তিনি অত্যন্ত যোগ্য ও ভরসার প্রতীক। তাকে আমি দীর্ঘসময় ধরে চিনি। তিনি আমার সহপাঠী ছিলেন। দলের প্রতি তার নিষ্ঠা ও নিবেদন অকৃত্রিম। তাকে পেয়ে আমরা কৃতজ্ঞ।

বক্তব্য দিচ্ছেন অ্যাড. সালমা ইসলাম এমপি

সদস্য সচিব হেনা খান পন্নি বলেন, এ দায়িত্ব পেয়ে আমি আপনাদের কাছে চিরকৃতজ্ঞ। নেত্রী সালমা ইসলামের কথায় আমি অভিভূত যে, তিনি আমার ওপর এতটা ভরসা রেখেছেন। আমি অবশ্যই এর মূল্য দেব। সালমা ইসলাম দলের জন্য সার্বক্ষণিক ভাবেন। কীভাবে মহিলা পার্টিকে এগিয়ে নেয়া যায়, তা নিয়ে নানা পরিকল্পনা করেন। আমি চেয়ারম্যান ও কো-চেয়ারম্যান সালমা ইসলামের সব দিক-নির্দেশনা মেনে কাজ এগিয়ে নেব। দিক-নির্দেশনা অনুযায়ী ঢাকার বাইরে কমিটি গঠন করার ক্ষেত্রে আমি সালমা ইসলাম ও সদস্যদের সহায়তা কামনা করছি। ইনশাআল্লাহ আগামী ২ মাসের মধ্যেই আমরা কাজ শেষ করব।

রওশন আরা মান্নান এমপি বলেন, সালমা ইসলাম এখন যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান। এমন গুরুদায়িত্ব পালনের মাঝেও তিনি জাতীয় পার্টির জন্য সময় বের করেন। এতে আমরা তার কাছে চিরকৃতজ্ঞ। তাকে হৃদয় থেকে জাতীয় পার্টির নারী সদস্যরা সম্মান জানান। আমি মনে করি, সালমা ইসলাম শুধু একজন নারী নন, তিনি একটি প্রতিষ্ঠান। তিনি যোগ্য ব্যক্তিত্ব জেনেই পার্টির চেয়ারম্যান তাকে এ দায়িত্ব দিয়েছেন। আমরা আশা করি, তিনি সঠিকভাবেই জাতীয় মহিলা পার্টিকে এগিয়ে নেবেন।  

উপস্থিত সদস্যরা জানান, অ্যাডভোকেট সালমা ইসলামের নেতৃত্বে সবাই ঐকমত্য গড়ে কাজ করবেন। তিনি যেভাবে দিক-নির্দেশনা দেন মহিলা পার্টির কার্যক্রম সেভাবেই এগিয়ে যাবে।

সভায় আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- অ্যাডভোকেট লাকী, ড. সেলিমা খান, হাসনা হেনা, আসমা আক্তার রুমি, শাহানাজ পারভীন, মোমেনা সরকার, শারমিন পারভিন লিজা, ফরিদা সিকদার, অ্যাডভোকেট শাহিদা রহমান রিংকু, মিনি খান, সীমানা আমির, কেয়া মাসুদ, জেসমিন নূর প্রিয়াঙ্কা, ফেরদৌসি বকুল, জোনাকী মুনশি, দেলওয়ারা বেগম, রেহেনা আক্তার, রিমা আক্তার, রেহানা খান, তাজনিনা আহাম্মেদ, শ্যামলী, ঝর্ণা, রোখসানা প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, ২৯ ডিসেম্বর জাতীয় মহিলা পার্টির আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন করেন পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

সেদিন এক বিজ্ঞপ্তিতে, মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর সুপারিশে পার্টির কো-চেয়ারম্যান সালমা ইসলামকে আহ্বায়ক এবং চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা হেনা খান পন্নিকে সদস্য সচিব করে আগামী চার মাসের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে জেলা সম্মেলন করে কেন্দ্রীয় সম্মেলন করার শর্তে জাতীয় মহিলা পার্টির ৭৫ সদস্যবিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন করা হয়।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন