'বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার জন্য ছিটমহল সমস্যার সমাধান হয়েছে'
jugantor
'বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার জন্য ছিটমহল সমস্যার সমাধান হয়েছে'

  লালমনিরহাট প্রতিনিধি   

১৪ জানুয়ারি ২০২১, ২১:৩২:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেছেন, আমরা ছিটমহলের মতো জটিল সমস্যা দূর করেছি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্যই ৬৮ বছরের বন্দিদশা জীবন থেকে মুক্তি লাভ করেছে হাজারও ছিটমহলবাসী। ছিটমহলের বাসিন্দাদের নাগরিকসেবা নিশ্চিত করতে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করে কাজ করছে এ সরকার।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার আগে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বিলুপ্ত ছিটমহলে বাঁশকাটা কমিউনিটি সেন্টারে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ছিটমহলবাসীর নাগরিক সুবিধাসমূহ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বিলুপ্ত ছিটমহলের অবকাঠামোসমূহ উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে এলজিইডি একটি প্রকল্প প্রণয়ন করে, যা গত ২০১৬ সালের ৫ জানুয়ারি একনেক সভায় অনুমোদিত হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন লালমনিরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেন, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ, এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী আব্দুর রশিদ খান, জনস্বাস্থ্যের প্রধান প্রকৌশলী সাইফুর রহমান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান, পাটগ্রাম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বাবুল প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ৩১ জুলাই ইন্দ্রা-মুজিব চুক্তির মাধ্যমে ছিটমহল সমস্যার সমাধান করা হয়।

'বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার জন্য ছিটমহল সমস্যার সমাধান হয়েছে'

 লালমনিরহাট প্রতিনিধি  
১৪ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:৩২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেছেন, আমরা ছিটমহলের মতো জটিল সমস্যা দূর করেছি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্যই ৬৮ বছরের বন্দিদশা জীবন থেকে মুক্তি লাভ করেছে হাজারও ছিটমহলবাসী। ছিটমহলের বাসিন্দাদের নাগরিকসেবা নিশ্চিত করতে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করে কাজ করছে এ সরকার। 

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার আগে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বিলুপ্ত ছিটমহলে বাঁশকাটা কমিউনিটি সেন্টারে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ছিটমহলবাসীর নাগরিক সুবিধাসমূহ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বিলুপ্ত ছিটমহলের অবকাঠামোসমূহ উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে এলজিইডি একটি প্রকল্প প্রণয়ন করে, যা গত ২০১৬ সালের ৫ জানুয়ারি একনেক সভায় অনুমোদিত হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন লালমনিরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেন, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ, এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী আব্দুর রশিদ খান, জনস্বাস্থ্যের প্রধান প্রকৌশলী সাইফুর রহমান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান, পাটগ্রাম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বাবুল প্রমুখ।  

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ৩১ জুলাই ইন্দ্রা-মুজিব চুক্তির মাধ্যমে ছিটমহল সমস্যার সমাধান করা হয়।

 
আরও খবর