মুজিবনগরে আমির হোসেন আমু

অন্যান্য দেশের মতো সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে

  মেহেরপুর প্রতিনিধি ১৭ এপ্রিল ২০১৮, ২০:৪৪ | অনলাইন সংস্করণ

মুজিবনগর

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, সব গণতান্ত্রিক দেশে যে পদ্ধতিতে নির্বাচন হয়, এ দেশেও সেই পদ্ধতিতে বর্তমান সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে মেহেরপুরের মুজিবনগর আম্রকাননের শেখ হাসিনা মঞ্চে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় ও মেহেরপুর জেলা প্রশাসন আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি জামায়াতকে উদ্দেশ করে আমির হোসেন আমু বলেন, আপনারা যাদের কথায় উঠাবসা করেন সেসব দেশেও বর্তমান সরকারের অধীনেই নির্বাচন হয়। তাই শেখ হাসিনার অধীনেই আগামী নির্বাচন হবে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব ষড়যন্ত্র উপেক্ষা করে সফল রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে চিহ্নিত হয়েছেন। তিনি দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তনের মাধ্যমে ২৭ টি আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করেছেন। আজ তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ হতে নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তরিত হয়েছে।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, আবদুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী একেএম মোজাম্মেল হক, খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল স্বপন, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন (অব.) এবিএম তাজুল ইসলাম, শ্রমবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, উপদফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় সদস্য আমিনুল ইসলাম মিলন, পারভিন জামান কল্পনা, জাতীয় সংসদের হুইপ সোলাইমান হক জোয়ার্দার, আবদুল হাই, মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফরহাদ হোসেন, সাবেক এমপি জয়নাল আবেদীন, সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য সেলিনা আখতার বানু, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিয়াজান আলী, চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলি আজগর টগর, মেহেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মকবুল হোসেন, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সহকারী সাইফুজ্জামান শেখর, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দীন খান, মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিয়া উদ্দিন বিশ্বাস।

সমাবেশে সঞ্চালনা করেন মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ খালেক।

সভাপতির বক্তব্যে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ডিসেম্বর মাসেই জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ডিসেম্বর বিজয়ের মাস। এই নির্বাচন মন্ত্রী এমপি হওয়ার নির্বাচন নয়, স্বাধীনতা রক্ষা করার নির্বাচন। এই নির্বাচনে নৌকার বিজয় করতে হবে। আওয়ামী লীগকে বিজয় করতে হবে। এর কোনো বিকল্প নাই।

তিনি বলেন, নির্বাচন হবে সংবিধান অনুযায়ী। তত্ত্বাবধায়ক সরকার মরে গেছে। যে মরে গেছে সে আর আসবে না। আমেরিকা, ব্রিটেন, মালয়েশিয়াসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশে যেভাবে নির্বাচন হয় সেভাবেই নির্বাচন হবে। বর্তমান সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে।

নাসিম বলেন, বিএনপি নেত্রী জেলে গেছেন দুর্নীতির দায়ে। আওয়ামী লীগ তাকে জেলে পাঠায় নাই। ১০ বছর আগে মামলা হয়েছিল। আপনি মামলা কনটেস্ট করেছেন। রায় হয়েছে আপনি জেলে গিয়েছেন। আপনি পাপ করেছিলেন, জঙ্গি উত্থান করেছিলেন। আইভি রহমানকে হত্যা করে বিচার করেছিলেন না। বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়েছিলেন।

খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, আমরা চাই আপনি ফিরে আসুন। আপনি আইনজীবীদের মাধ্যমে ফিরে আসুন। আমরা ফাঁকা মাঠে খেলতে চাই না। আমরা দুই দল খেলব। রেফারি হবে নির্বাচন কমিশন। যদি বিএনপি ফাউল করে তাহলে রেফারির লাল কার্ডে বিএনপিকে মাঠ ছাড়তে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, ১৭ এপ্রিল ছাড়া বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাস সম্ভব নয়। যারা এই ১৭ এপ্রিল পালন করে না তারা অবশ্যই স্বাধীনতাকে স্বীকার করে না।

তিনি বলেন, বিএনপির শীর্ষপর্যায়ের সব নেতাই চোর, তাদের কাছে আত্মমর্যাদাশীল জাতি বলে কিছু নেই। বিএনপি-জামায়াত এমনই এক অশুভ শক্তি যারা ক্ষমতায় আসলে এদেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব পর্যন্ত পরাস্ত হবে।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী একে এম মোজাম্মেল হক বলেন, এই মুজিবনগর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিকেন্দ্রে নতুন করে ৩০০ কোটি টাকা বরাদ্দ ব্যয়ে নতুন প্রকল্প চালু করতে যাচ্ছি। প্রায় ৩৫ একর জমি অধিগ্রহণ করা হবে। যাদের জমি অধিগ্রহণ করা হবে তাদের পুনর্বাসন করা হবে।

এর আগে জাতীয় সকাল পোনে ১১টার দিকে জাতীয় নেতারা মুজিবনগরে পৌঁছে মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন। পরে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন। পতাকা উত্তোলন শেষে আনছার ও ভিডিপি সদস্যদের পরিবেশনায় জল মাটি ওমানুষ শীর্ষক গীতিনাট্য পরিবেশনা ও পুলিশ বিজিবি বিএনসিসি ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter