‘নেতাকর্মীদের রক্ষা করতে গিয়ে আহত ইশরাক’ 
jugantor
‘নেতাকর্মীদের রক্ষা করতে গিয়ে আহত ইশরাক’ 

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩:২৯:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

পুলিশের পিটুনি থেকে কর্মীকে বাঁচাতে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী প্রকৌশলী ইশরাক হোসেনের প্রানান্তকর চেষ্টা। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকায় বিএনপির প্রতিবাদ সমাবেশে পুলিশের লাঠিপেটায় ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র প্রার্থী ও দলটির আন্তর্জাতিকবিষয়ক কমিটির অন্যতম সদস্য প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন আহত হয়েছেন।

বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে শনিবার জাতীয় প্রেসবক্লাবের সামনে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

শায়রুল কবির খান যুগান্তরকে বলেন, শান্তিপূর্ণ সমাবেশের শেষ পর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করে। এতে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের অনেক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

নেতাকর্মীদের রক্ষা করতে গিয়ে পুলিশের লাঠিপেটায় ইশরাক হোসেন আহত হয়েছেন বলে জানান শায়রুল।

শনিবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বক্তব্য দিচ্ছিলেন।

পুলিশের লাঠিপেটা শুরু হলে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমানুল্লাহ আমান ও হাবিবুন্নবী খান সোহেলকে নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবের ভেতরে নিয়ে যান।

অনেক নেতাকর্মী দৌড়ে অন্যত্র সরে যান। তবে এ সময় তাদের স্লোগান দিতে দেখা গেছে।

‘নেতাকর্মীদের রক্ষা করতে গিয়ে আহত ইশরাক’ 

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০১:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পুলিশের পিটুনি থেকে কর্মীকে বাঁচাতে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী প্রকৌশলী ইশরাক হোসেনের প্রানান্তকর চেষ্টা। ছবি: সংগৃহীত
পুলিশের পিটুনি থেকে কর্মীকে বাঁচাতে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী প্রকৌশলী ইশরাক হোসেনের প্রানান্তকর চেষ্টা। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকায় বিএনপির প্রতিবাদ সমাবেশে পুলিশের লাঠিপেটায় ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র প্রার্থী ও দলটির আন্তর্জাতিকবিষয়ক কমিটির অন্যতম সদস্য প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন আহত হয়েছেন।   

বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে শনিবার জাতীয় প্রেসবক্লাবের সামনে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। 

শায়রুল কবির খান যুগান্তরকে বলেন, শান্তিপূর্ণ সমাবেশের শেষ পর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করে। এতে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের অনেক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

নেতাকর্মীদের রক্ষা করতে গিয়ে পুলিশের লাঠিপেটায় ইশরাক হোসেন আহত হয়েছেন বলে জানান শায়রুল।

শনিবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বক্তব্য দিচ্ছিলেন। 

পুলিশের লাঠিপেটা শুরু হলে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমানুল্লাহ আমান ও হাবিবুন্নবী খান সোহেলকে নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবের ভেতরে নিয়ে যান। 

অনেক নেতাকর্মী দৌড়ে অন্যত্র সরে যান। তবে এ সময় তাদের স্লোগান দিতে দেখা গেছে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন