রাষ্ট্রে আলেমদের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে হবে: চরমোনাই পীর
jugantor
রাষ্ট্রে আলেমদের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে হবে: চরমোনাই পীর

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৬ মার্চ ২০২১, ১৯:৫৪:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

‘দুর্নীতিবাজদের বর্জন করে রাষ্ট্রে আলেমদের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে হবে’

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে সব দল ও সামাজিক সংগঠনকে ইসলামের পক্ষে সম্পৃক্ত করার গুরুদায়িত্ব ওলামায়ে কেরামকে পালন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম।

তিনি বলেছেন, দেশের সার্বিক পরিস্থিতি অত্যন্ত উদ্বেগজনক। ইসলামের নাম-নিশানা মুছে দিতে একটি চক্র উঠেপড়ে লেগেছে। স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও দেশের স্বাধীনতা নিয়ে উদ্বিগ্ন থাকতে হয়। দুর্নীতিবাজদের বর্জন করে রাষ্ট্রে আলেম সমাজের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

শনিবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে জাতীয় ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদ আয়োজিত জাতীয় ওলামা মাশায়েখ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চরমোনাই পীর এসব কথা বলেন।

সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল্লামা নূরুল হুদা ফয়েজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে হাটহাজারী মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সদস্য আল্লামা শেখ আহমদ চাটগামী, বগুড়া জামিল মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওলানা আব্দুল হক আজাদসহ অর্ধশত ওলামা প্রতিনিধি বক্তব্য রাখেন।

সম্মেলনে মাওলানা নূরুল হুদা ফয়েজী সভাপতি এবং মাওলানা গাজী আতাউর রহমান সাধারণ সম্পাদক পুনঃনির্বাচিত হন।

কমিটির অন্যদের মধ্যে রয়েছেন- মাওলানা আব্দুল হক আজাদ সিনিয়র সহ-সভাপতি, মুফতি ওমর ফারুক সন্দ্বিপী, আল্লামা খালিদ সাইফুল্লাহ, ড. মুশতাক আহমদ, ড. আফম খালিদ হোসাইন, মাওলানা নেয়ামতুল্লাহ আল-ফরিদী সহ-সভাপতি।

দেশের সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক সংস্কৃতি ও নাগরিক মূল্যবোধকে ইসলামের আলোকে সাজিয়ে তোলাসহ আলেমদের ঐক্যবদ্ধ কার্যক্রম পরিচালনার লক্ষ্যে সম্মেলনে ১৫ দফা কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

অনুষ্ঠানে মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করীম বলেন, আমাদের সবাইকে হিংসা-বিদ্বেষ ও পরশ্রীকাতরতা পরিহার করে উত্তম আখলাকের মাধ্যমে সবাইকে কাছে টানতে হবে।

ড. আ ফ ম খালিদ হোসাইন বলেন, পীর সাহেব চরমোনাইর নেতৃত্বে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ বাংলাদেশে আলেমদের জন্য একটি সম্ভাবনার দুয়ার উন্মোচিত করেছে। ওলামায়ে কেরামের উচিত এ সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে এ জনবান্ধব আন্দোলনটি সফলতার দিকে নিয়ে যাওয়া।

রাষ্ট্রে আলেমদের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে হবে: চরমোনাই পীর

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৬ মার্চ ২০২১, ০৭:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
‘দুর্নীতিবাজদের বর্জন করে রাষ্ট্রে আলেমদের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে হবে’
জাতীয় ওলামা মাশায়েখ সম্মেলনে অতিথিরা। ছবি: যুগান্তর

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে সব দল ও সামাজিক সংগঠনকে ইসলামের পক্ষে সম্পৃক্ত করার গুরুদায়িত্ব ওলামায়ে কেরামকে পালন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম। 

তিনি বলেছেন, দেশের সার্বিক পরিস্থিতি অত্যন্ত উদ্বেগজনক। ইসলামের নাম-নিশানা মুছে দিতে একটি চক্র উঠেপড়ে লেগেছে। স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও দেশের স্বাধীনতা নিয়ে উদ্বিগ্ন থাকতে হয়। দুর্নীতিবাজদের বর্জন করে রাষ্ট্রে আলেম সমাজের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

শনিবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে জাতীয় ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদ আয়োজিত জাতীয় ওলামা মাশায়েখ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চরমোনাই পীর এসব কথা বলেন। 

সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল্লামা নূরুল হুদা ফয়েজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে হাটহাজারী মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সদস্য আল্লামা শেখ আহমদ চাটগামী, বগুড়া জামিল মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওলানা আব্দুল হক আজাদসহ অর্ধশত ওলামা প্রতিনিধি বক্তব্য রাখেন। 

সম্মেলনে মাওলানা নূরুল হুদা ফয়েজী সভাপতি এবং মাওলানা গাজী আতাউর রহমান সাধারণ সম্পাদক পুনঃনির্বাচিত হন। 

কমিটির অন্যদের মধ্যে রয়েছেন- মাওলানা আব্দুল হক আজাদ সিনিয়র সহ-সভাপতি, মুফতি ওমর ফারুক সন্দ্বিপী, আল্লামা খালিদ সাইফুল্লাহ, ড. মুশতাক আহমদ, ড. আফম খালিদ হোসাইন, মাওলানা নেয়ামতুল্লাহ আল-ফরিদী সহ-সভাপতি। 

দেশের সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক সংস্কৃতি ও নাগরিক মূল্যবোধকে ইসলামের আলোকে সাজিয়ে তোলাসহ আলেমদের ঐক্যবদ্ধ কার্যক্রম পরিচালনার লক্ষ্যে সম্মেলনে ১৫ দফা কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। 

অনুষ্ঠানে মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করীম বলেন, আমাদের সবাইকে হিংসা-বিদ্বেষ ও পরশ্রীকাতরতা পরিহার করে উত্তম আখলাকের মাধ্যমে সবাইকে কাছে টানতে হবে।

ড. আ ফ ম খালিদ হোসাইন বলেন, পীর সাহেব চরমোনাইর নেতৃত্বে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ বাংলাদেশে আলেমদের জন্য একটি সম্ভাবনার দুয়ার উন্মোচিত করেছে। ওলামায়ে কেরামের উচিত এ সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে এ জনবান্ধব আন্দোলনটি সফলতার দিকে নিয়ে যাওয়া।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন