‘খালেদা জিয়া দেশের যেকোনো জায়গায় চিকিৎসা নিতে পারবেন’
jugantor
‘খালেদা জিয়া দেশের যেকোনো জায়গায় চিকিৎসা নিতে পারবেন’

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৮ মার্চ ২০২১, ১৮:০১:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

আনিসুল হক

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া দেশের মধ্যে যেকোনো জায়গায় বিশেষায়িত চিকিৎসা নিতে পারবেন বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। এ ছাড়া বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দণ্ড স্থগিত করে মুক্তির মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়ানোর সুপারিশ করেছে আইন মন্ত্রণালয়।

সোমবার দুপুরে সচিবালয় সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, পরিবারের সাজা স্থগিতের সময়সীমা বাড়ানো এবং বিশেষায়িত চিকিৎসার জন্য যে আবেদন, সেটি আমাদের কাছে মতামতের জন্য পাঠানো হয়েছিল। আমরা যে মতামত দিয়েছি সেটি হলো আগের মতো উনার এই সাজা স্থগিত করে বেগম খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের সময়সীমা আরো ছয় মাসের জন্য বাড়ানো হয়েছে। যে শর্তগুলো আগে ছিল সেগুলো হলো তিনি দেশের বাইরে যেতে পারবেন না এবং বাসায় থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করবেন। সেই শর্তসাপেক্ষে এটাকে বাড়ানো হয়েছে।

তিনি জানান, আবেদনে তারা একটা কথা লিখেছিলেন বিশেষায়িত চিকিৎসার ব্যাপারে, মতামতে বলা হয়েছে দেশের ভেতরে তিনি যদি বিশেষায়িত চিকিৎসা নেন সরকারের তাতে কোনো আপত্তি নেই।

এর আগে শর্তসাপেক্ষে অন্তর্বর্তীকালীন মুক্তিতে থাকা খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ানোর সুপারিশ করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নথি পাঠিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এসম্পর্কিত নথিতে অনুমোদন দেওয়ার পর সোমবার দুপুরে ওই নথি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে বেগম জিয়ার চিকিৎসা যথাযথভাবে করতে না পারায় তার পরিবারের পক্ষ থেকে সাজা স্থগিতের মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য গত ২ মার্চ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বরাবর আবেদন করা হয়েছিল।

‘খালেদা জিয়া দেশের যেকোনো জায়গায় চিকিৎসা নিতে পারবেন’

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৮ মার্চ ২০২১, ০৬:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আনিসুল হক
ফাইল ছবি

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া দেশের মধ্যে যেকোনো জায়গায় বিশেষায়িত চিকিৎসা নিতে পারবেন বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। এ ছাড়া বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দণ্ড স্থগিত করে মুক্তির মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়ানোর সুপারিশ করেছে আইন মন্ত্রণালয়।

সোমবার দুপুরে সচিবালয় সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, পরিবারের সাজা স্থগিতের সময়সীমা বাড়ানো এবং বিশেষায়িত চিকিৎসার জন্য যে আবেদন, সেটি আমাদের কাছে মতামতের জন্য পাঠানো হয়েছিল। আমরা যে মতামত দিয়েছি সেটি হলো আগের মতো উনার এই সাজা স্থগিত করে বেগম খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের সময়সীমা আরো ছয় মাসের জন্য বাড়ানো হয়েছে। যে শর্তগুলো আগে ছিল সেগুলো হলো তিনি দেশের বাইরে যেতে পারবেন না এবং বাসায় থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করবেন। সেই শর্তসাপেক্ষে এটাকে বাড়ানো হয়েছে।

তিনি জানান, আবেদনে তারা একটা কথা লিখেছিলেন বিশেষায়িত চিকিৎসার ব্যাপারে, মতামতে বলা হয়েছে দেশের ভেতরে তিনি যদি বিশেষায়িত চিকিৎসা নেন সরকারের তাতে কোনো আপত্তি নেই।

এর আগে শর্তসাপেক্ষে অন্তর্বর্তীকালীন মুক্তিতে থাকা খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ানোর সুপারিশ করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নথি পাঠিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এসম্পর্কিত নথিতে অনুমোদন দেওয়ার পর সোমবার দুপুরে ওই নথি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে বেগম জিয়ার চিকিৎসা যথাযথভাবে করতে না পারায় তার পরিবারের পক্ষ থেকে সাজা স্থগিতের মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য গত ২ মার্চ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বরাবর আবেদন করা হয়েছিল।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : খালেদা জিয়ার চিকিৎসা