যারা শারীরিক পরিশ্রম করেন তাদের করোনা হচ্ছে না: মতিয়া চৌধুরী
jugantor
যারা শারীরিক পরিশ্রম করেন তাদের করোনা হচ্ছে না: মতিয়া চৌধুরী

  শেরপুর প্রতিনিধি   

০৭ মে ২০২১, ২২:৪৬:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, যারা পরিশ্রম করেন, গায়ে রোদ লাগান তাদের করোনা হচ্ছে না।

তিনি বলেন, কৃষক-শ্রমিক মাঠে প্রচণ্ড রোদে ধান কাটছেন, গৃহকর্মীরা কাজ করছেন তাদের কিন্তু করোনা নেই।

শুক্রবার দুপুরে তিনি তার নির্বাচনী এলাকা শেরপুরের নকলা উপজেলা পরিষদ চত্বরের মুক্তমঞ্চে দরিদ্র মানুষের মধ্যে প্রীতি উপহার, করোনা সুরক্ষা সামগ্রী ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে অনুদান বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

মতিয়া চৌধুরী আরও বলেন, করোনা শুরু হওয়ার পর গুজব উঠে পত্রিকা ধরলে করোনা হয়। কিন্তু কোভিড বিশেষজ্ঞরা যখন বললেন পত্রিকাতে করোনা নেই তখন কিন্তু মানুষ ফের পত্রিকা পড়া শুরু করেন। আজ পর্যন্ত পত্রিকা পড়ে কারও কিন্তু করোনা হয়নি। এ সময় তিনি প্রত্যেককে কমপক্ষে ১৫ মিনিটে গায়ে রোদ লাগাতে এবং লবণ জলে গড়গড়া অথবা ভাপ নিতে অনুরোধ করেন। কারণ হিসেবে তিনি কোভিড বিশেষজ্ঞদের উদাহরণ টেনে বলেন, চিকিৎসকরা বলছেন- রোদে ভিটামিন ডি আছে। এটা করোনা প্রতিরোধে কাজ করে। আর গরম লবণ পানি করোনাভাইরাস মেরে ফেলে। তাই আপনারা রোদ লাগাবেন, ভাপ নিবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে দেশে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে উল্লেখ করে মতিয়া চৌধুরী বলেন, পার্শ্ববর্তী দেশে যেভাবে মানুষ মারা যাচ্ছে সেই তুলনায় আমরা অনেক ভালো আছি। আল্লাহর রহমতে এবং প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণে এটা সম্ভব হচ্ছে। তিনি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য সবাইকে আহ্বান জানান।

যারা শারীরিক পরিশ্রম করেন তাদের করোনা হচ্ছে না: মতিয়া চৌধুরী

 শেরপুর প্রতিনিধি  
০৭ মে ২০২১, ১০:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, যারা পরিশ্রম করেন, গায়ে রোদ লাগান তাদের করোনা হচ্ছে না। 

তিনি বলেন, কৃষক-শ্রমিক মাঠে প্রচণ্ড রোদে ধান কাটছেন, গৃহকর্মীরা কাজ করছেন তাদের কিন্তু করোনা নেই। 

শুক্রবার দুপুরে তিনি তার নির্বাচনী এলাকা শেরপুরের নকলা উপজেলা পরিষদ চত্বরের মুক্তমঞ্চে দরিদ্র মানুষের মধ্যে প্রীতি উপহার, করোনা সুরক্ষা সামগ্রী ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে অনুদান বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

মতিয়া চৌধুরী আরও বলেন, করোনা শুরু হওয়ার পর গুজব উঠে পত্রিকা ধরলে করোনা হয়। কিন্তু  কোভিড বিশেষজ্ঞরা যখন বললেন পত্রিকাতে করোনা নেই তখন কিন্তু মানুষ ফের পত্রিকা পড়া শুরু করেন। আজ পর্যন্ত পত্রিকা পড়ে কারও কিন্তু করোনা হয়নি। এ সময় তিনি প্রত্যেককে কমপক্ষে ১৫ মিনিটে গায়ে রোদ লাগাতে এবং লবণ জলে গড়গড়া অথবা ভাপ নিতে অনুরোধ করেন। কারণ হিসেবে তিনি কোভিড বিশেষজ্ঞদের উদাহরণ টেনে বলেন, চিকিৎসকরা বলছেন- রোদে ভিটামিন ডি আছে। এটা করোনা প্রতিরোধে কাজ করে। আর গরম লবণ পানি করোনাভাইরাস মেরে ফেলে। তাই আপনারা রোদ লাগাবেন, ভাপ নিবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে দেশে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে উল্লেখ করে মতিয়া চৌধুরী বলেন, পার্শ্ববর্তী দেশে যেভাবে মানুষ মারা যাচ্ছে সেই তুলনায় আমরা অনেক ভালো আছি। আল্লাহর রহমতে এবং প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণে এটা সম্ভব হচ্ছে।  তিনি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য সবাইকে আহ্বান জানান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন