শিশু-গৃহবধূদেরও হয়রানি করছে সরকার: মির্জা ফখরুল
jugantor
শিশু-গৃহবধূদেরও হয়রানি করছে সরকার: মির্জা ফখরুল

  ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি  

১৬ মে ২০২১, ২১:৪০:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন দিয়ে মানুষের কথা বলার স্বাধীনতাকে শূন্যের কোঠায় নামিয়েছে। এখন কোনো সাংবাদিক কিছু লিখলে সরকার যদি মনে করে সংবাদটি তাদের বিপক্ষে যায়, তাহলে সেই সাংবাদিককে হয়রানিমূলক মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠিয়ে দিচ্ছে।

তিনি বলেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় শিশু থেকে শুরু করে গৃহবধূদেরও ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে সরকার।

রোববার বিকালে ঠাকুরগাঁও শহরের আশ্রমপাড়ার একটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত জাতীয়তাবাদী জেলা আইনজীবী ফোরামের সঙ্গে মতবিনিময়কালে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার আইন-আদালত এ দুটোকেই তারা নিজেদের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। তারা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিধান যেটা আমাদের সংবিধানে আইন করে হয়েছিল সেটাকে বাতিল করে দিয়েছে। আজকে দেশে যে ফ্যাসিবাদ, কর্তৃত্ববাদ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, তা থেকে মুক্ত করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, এ সরকার ভিন্ন আঙ্গিকে দেশে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করেছে। দেশে রাজনৈতিক দলগুলোর মতামত না নিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করে দিয়েছে।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে তিনি বলেন, বিদেশে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা করার ক্ষেত্রে বাধা নিষেধ না থাকা সত্ত্বেও অনুমতি দেয়নি সরকার।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শরিফ, পৌর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল হালিম প্রমুখ।

শিশু-গৃহবধূদেরও হয়রানি করছে সরকার: মির্জা ফখরুল

 ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি 
১৬ মে ২০২১, ০৯:৪০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন দিয়ে মানুষের কথা বলার স্বাধীনতাকে শূন্যের কোঠায় নামিয়েছে। এখন কোনো সাংবাদিক কিছু লিখলে সরকার যদি মনে করে সংবাদটি তাদের বিপক্ষে যায়, তাহলে সেই সাংবাদিককে হয়রানিমূলক মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠিয়ে দিচ্ছে।

তিনি বলেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় শিশু থেকে শুরু করে গৃহবধূদেরও ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে সরকার।

রোববার বিকালে ঠাকুরগাঁও শহরের আশ্রমপাড়ার একটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত জাতীয়তাবাদী জেলা আইনজীবী ফোরামের সঙ্গে মতবিনিময়কালে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার আইন-আদালত এ দুটোকেই তারা নিজেদের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। তারা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিধান যেটা আমাদের সংবিধানে আইন করে হয়েছিল সেটাকে বাতিল করে দিয়েছে। আজকে দেশে যে ফ্যাসিবাদ, কর্তৃত্ববাদ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, তা থেকে মুক্ত করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, এ সরকার ভিন্ন আঙ্গিকে দেশে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করেছে। দেশে রাজনৈতিক দলগুলোর মতামত না নিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করে দিয়েছে।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে তিনি বলেন, বিদেশে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা করার ক্ষেত্রে বাধা নিষেধ না থাকা সত্ত্বেও অনুমতি দেয়নি সরকার।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শরিফ, পৌর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল হালিম প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর