ভয়াবহ দুর্যোগও মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছি: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী
jugantor
ভয়াবহ দুর্যোগও মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছি: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

  পিরোজপুর প্রতিনিধি  

০৮ জুলাই ২০২১, ২১:০৬:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, মনে রাখতে হবে- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন বেঁচে আছেন ততদিন একটি লোকও অনাহারে থাকবে না, বিনা চিকিৎসায় মারা যাবে না। ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগকেও আমরা মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছি।

বৃহস্পতিবার সকালে পিরোজপুর সদর উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত শহিদ ওমর ফারুক মিলনায়তনে করোনাকালীন কর্মহীন ও অসহায় মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার মানবিক খাদ্য সহায়তা প্রদান উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাহী কর্মকর্তা বশির আহমেদের সভাপতিত্বে এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে- জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক চৌধুরী রওশন ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

পরে সদর পৌরসভা ও সদর উপজেলার ৯টি সংগঠনের ৬৭৫ জন পরিবহণ শ্রমিক, অটোরিকশাচালক, নরসুন্দর, হোটেল শ্রমিক, ধোপা, হরিজন সম্প্রদায় এবং স্বর্ণ ও স্টুডিও কর্মচারীদের প্রতিজনকে নগদ ৫শ টাকা করে বিতরণ করা হয়েছে।

ভয়াবহ দুর্যোগও মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছি: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

 পিরোজপুর প্রতিনিধি 
০৮ জুলাই ২০২১, ০৯:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, মনে রাখতে হবে- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন বেঁচে আছেন ততদিন একটি লোকও অনাহারে থাকবে না, বিনা চিকিৎসায় মারা যাবে না। ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগকেও আমরা মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছি।

বৃহস্পতিবার সকালে পিরোজপুর সদর উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত শহিদ ওমর ফারুক মিলনায়তনে করোনাকালীন কর্মহীন ও অসহায় মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার মানবিক খাদ্য সহায়তা প্রদান উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

অনুষ্ঠানে সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাহী কর্মকর্তা বশির আহমেদের সভাপতিত্বে এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে- জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক চৌধুরী রওশন ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। 

পরে সদর পৌরসভা ও সদর উপজেলার ৯টি সংগঠনের ৬৭৫ জন পরিবহণ শ্রমিক, অটোরিকশাচালক, নরসুন্দর, হোটেল শ্রমিক, ধোপা, হরিজন সম্প্রদায় এবং স্বর্ণ ও স্টুডিও কর্মচারীদের প্রতিজনকে নগদ ৫শ টাকা করে বিতরণ করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন