'বিএনপি পানি ঘোলা করে খাবে'

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৫ মে ২০১৮, ২১:৩৭ | অনলাইন সংস্করণ

খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম
খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। ফাইল ছবি

বিএনপি এখন নানা শর্ত দিলেও পরে সব মেনেই একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে বলে মনে করেছেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, আমরা বুঝতে পারছি, তারা পানি ঘোলা করে খাবে। তারা হয়তো শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে আসবে। আমরাও সেটা চাই।

শনিবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের নেতা প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদারের ১০৭তম জন্মবার্ষিকীর আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

কামরুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশে এই মুহূর্তে কোনো সংকট নেই। নির্বাচন নিয়ে কোনো আলাপ-আলোচনা বা সমঝোতার প্রশ্নই আসে না।

তিনি বলেন, আমরা চাই সবার অংশগ্রহণমূলক একটি নির্বাচন। ড. কামাল হোসেন সাহেবরাও নির্বাচনে আসুক আমরা চাই। কমিউনিস্ট পার্টির যারা নির্বাচন সম্পর্কে কথাবার্তা বলেন, তারাও নির্বাচনে আসুক আমরা চাই। সংবিধানের মধ্য থেকে গতবারের মতো নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের যে ইঙ্গিত প্রধানমন্ত্রী দিয়েছেন, তাতে বিএনপির অংশগ্রহণের সুযোগ থাকছে না বলে জানান মন্ত্রী।

কামরুল ইসলাম বলেন, বেগম খালেদা জিয়া ও তার দলের সংসদে যেহেতু কোনো অবস্থান নেই, সেহেতু নির্বাচনকালীন সরকারে তাদের থাকার কোনো সুযোগ নেই।

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, দণ্ড যদি আদালত স্থগিত করেন, তার জামিন দেন বা না দেন সেটা কোনো প্রশ্ন না, দণ্ড স্থগিত করলে তিনি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি যাই বলুক না কেন, নির্বাচন সময়মতোই হবে, নির্বাচনকালীন সরকারেও শেখ হাসিনাই নেতৃত্ব দেবেন।

নির্বাচন যদি কেউ বানচাল করতে চায়, জনগণের জানমালের ক্ষতি করতে চায়, আগুন সন্ত্রাস করতে চায়, তাদের ছেড়ে দেয়া হবে না, বিএনপিকে হুশিয়ার করেন তিনি।

তারেক রহমান সম্পর্কে কামরুল বলেন, আজকে পত্রিকায় দেখলাম তারেক রহমান ‘হোয়াইট এন্ড ব্লু কনসালটেন্স’ নামে লন্ডনে একটি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি করেছেন ২০১৫ সালে। সেখানে তার পরিচয় তিনি ব্রিটিশ নাগরিক। তার স্ত্রী বেগম জোবায়দা রহমান তার অন্যতম পরিচালক। তারেক রহমানের বিদেশি নাগরিক হিসেবে কোম্পানি প্রতিষ্ঠার বিষয়ে তারা (বিএনপি) কী উত্তর দেবেন, সেটা জানতে চাই।

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির অভ্যন্তরীণ দলীয় সংকটকে তাদের নিজেদেরকেই দূর করতে হবে।

তিনি বলেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া দুর্নীতির মামলায় জেলে রয়েছেন এবং লন্ডনপ্রবাসী দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের দেশে নাগরিকত্ব নেই।

বিএনপির দলীয় সংকটকে জাতীয় সংকট হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে দাবি করে হাছান আরও বলেন, দেশে কোনো রাজনৈতিক সংকট না থাকায় বিএনপির সঙ্গে আলোচনার কোনো সুযোগ নেই।

আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টা লায়ন চিত্ত রঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার, সাবেক সংসদ সদস্য সারাহ বেগম কবরী, অরুণ সরকার রানা প্রমুখ।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.