উপজেলা চেয়ারম্যানরা অশিক্ষিত, থার্ড ক্লাস: সুর বদলে যা বললেন ভিপি নুর
jugantor
উপজেলা চেয়ারম্যানরা অশিক্ষিত, থার্ড ক্লাস: সুর বদলে যা বললেন ভিপি নুর

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৪৭:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

নুর

উপজেলা চেয়ারম্যানদের নিয়ে দেওয়া বক্তব্যে সুর পালটিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি ও ছাত্র-যুব-শ্রমিক অধিকার পরিষদের সমন্বয়ক নুরুল হক নুর। তার বক্তব্য খণ্ডিতভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এনডিপি) ৩২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় নুর বলেছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যানরা অশিক্ষিত ও থার্ড ক্লাস। এদেরকে কেন শিক্ষিত ইউএনওরা মানবে।

নুরের এমন বক্তব্যে রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। বিশ্লেষকরা এই বক্তব্য রাজনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত বলে মন্তব্য করেন।

এ প্রসঙ্গে বৃহস্পতিবার এক ভিডিও বার্তা দেন নুরুল হক নুর। তিনি বলেন, গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে আমার দেওয়া একটি বক্তব্য দু’একটি গণমাধ্যমভুলভাবে উপস্থাপন করেছে। এই কারণে মানুষ বিভ্রান্ত হয়েছে। কিছু মানুষ উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে।

নুরুল হক নুর বলেন, বিষয়টি আমি পরিষ্কার (ক্লিয়ার) করতে চাই। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে দেওয়া বক্তব্যে আমি বলেছিলাম, যারা জনগণের ভোট ছাড়া জনপ্রতিনিধি হয়েছে বা পেশিশক্তি ব্যবহার করে ভোট ছাড়াই জনপ্রতিনিধি হয়েছে; তারা থার্ডক্লাস মানসিকতার। কোনো সুস্থ্য মস্তিষ্কের বিবেকসম্পন্ন মানুষ কখনো জনগণের ভোট ছাড়া গায়ের জোরে জনপ্রতিনিধি হতে চায় না।

নুর বলেন, আমার বক্তব্য ছিল- যারা বিনা ভোটে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে; তাদেরকে ইউএনওরা কেন সম্মান দেবে সে বিষয়ে। আমি বলেছি,যারা জনসমর্থন নিয়ে নির্বাচিত হয়েছে,ইউএনওরা তাদের স্যালাটু জানাবে। সুতরাং এই বক্তব্য নিয়ে কোনো বিভ্রান্তির সুযোগ নেই।

তার বক্তব্য বা লেখালেখিতে কেউ ব্যথা পেলে রাজনৈতিক শিষ্টাচারের জায়গা থেকে ক্ষমা চাইতে রাজি মন্তব্য করে নুর বলেন, বর্তমান এই প্রতিকূল সময়েও অনেক স্বতন্ত্রপ্রার্থী জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিজীয় হচ্ছেন। তাদেরকে আমরা স্যালুট জানাই।

ডাকসুর সাবেক ভিপি নুর গণমাধ্যমকে সংশোধন করে বক্তব্য উপস্থাপনের আহ্বান জানান। একইসঙ্গে শুভাকাঙ্খীদেরও এই বক্তব্য শেয়ার করার আহ্বান জানান।

নুর বলেন, যারা গণতন্ত্রের পক্ষের শক্তি, তাদের নিজেদের মধ্যে যদি ছোটখাটো ভুলভ্রান্তি সৃষ্টি হয়; তাহলে বৃহত্তর গণতান্ত্রিক সংগ্রাম ব্যাহতহবে। বিভ্রান্তির ঊর্ধ্বে থেকে দেশে এখনগণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা, জনগণের অধিকার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা প্রয়োজন। এই লক্ষ্যে তাদের নতুন দল শিগগিরই আত্মপ্রকাশ করবে বলে জানান তিনি।

উপজেলা চেয়ারম্যানরা অশিক্ষিত, থার্ড ক্লাস: সুর বদলে যা বললেন ভিপি নুর

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নুর
ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর। ফাইল ছবি

উপজেলা চেয়ারম্যানদের নিয়ে দেওয়া বক্তব্যে সুর পালটিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি ও ছাত্র-যুব-শ্রমিক অধিকার পরিষদের সমন্বয়ক নুরুল হক নুর। তার বক্তব্য খণ্ডিতভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এনডিপি) ৩২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় নুর বলেছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যানরা অশিক্ষিত ও থার্ড ক্লাস। এদেরকে কেন শিক্ষিত ইউএনওরা মানবে। 

নুরের এমন বক্তব্যে রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। বিশ্লেষকরা এই বক্তব্য রাজনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত বলে মন্তব্য করেন।

এ প্রসঙ্গে বৃহস্পতিবার এক ভিডিও বার্তা দেন নুরুল হক নুর। তিনি বলেন, গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে আমার দেওয়া একটি বক্তব্য দু’একটি গণমাধ্যম ভুলভাবে উপস্থাপন করেছে। এই কারণে মানুষ বিভ্রান্ত হয়েছে। কিছু মানুষ উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। 

নুরুল হক নুর বলেন, বিষয়টি আমি পরিষ্কার (ক্লিয়ার) করতে চাই। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে দেওয়া বক্তব্যে আমি বলেছিলাম, যারা জনগণের ভোট ছাড়া জনপ্রতিনিধি হয়েছে বা পেশিশক্তি ব্যবহার করে ভোট ছাড়াই জনপ্রতিনিধি হয়েছে; তারা থার্ডক্লাস মানসিকতার। কোনো সুস্থ্য মস্তিষ্কের বিবেকসম্পন্ন মানুষ কখনো জনগণের ভোট ছাড়া গায়ের জোরে জনপ্রতিনিধি হতে চায় না।

নুর বলেন, আমার বক্তব্য ছিল- যারা বিনা ভোটে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে; তাদেরকে ইউএনওরা কেন সম্মান দেবে সে বিষয়ে। আমি বলেছি, যারা জনসমর্থন নিয়ে নির্বাচিত হয়েছে, ইউএনওরা তাদের স্যালাটু জানাবে। সুতরাং এই বক্তব্য নিয়ে কোনো বিভ্রান্তির সুযোগ নেই।

তার বক্তব্য বা লেখালেখিতে কেউ ব্যথা পেলে রাজনৈতিক শিষ্টাচারের জায়গা থেকে ক্ষমা চাইতে রাজি মন্তব্য করে নুর বলেন, বর্তমান এই প্রতিকূল সময়েও অনেক স্বতন্ত্রপ্রার্থী জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিজীয় হচ্ছেন। তাদেরকে আমরা স্যালুট জানাই।

ডাকসুর সাবেক ভিপি নুর গণমাধ্যমকে সংশোধন করে বক্তব্য উপস্থাপনের আহ্বান জানান। একইসঙ্গে শুভাকাঙ্খীদেরও এই বক্তব্য শেয়ার করার আহ্বান জানান।

নুর বলেন, যারা গণতন্ত্রের পক্ষের শক্তি, তাদের নিজেদের মধ্যে যদি ছোটখাটো ভুলভ্রান্তি সৃষ্টি হয়; তাহলে বৃহত্তর গণতান্ত্রিক সংগ্রাম ব্যাহত হবে। বিভ্রান্তির ঊর্ধ্বে থেকে দেশে এখন গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা, জনগণের অধিকার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা প্রয়োজন। এই লক্ষ্যে তাদের নতুন দল শিগগিরই আত্মপ্রকাশ করবে বলে জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন