'তিনি এখনো পাকিস্তানের ট্রেনে অবস্থান করছেন'
jugantor
'তিনি এখনো পাকিস্তানের ট্রেনে অবস্থান করছেন'

  কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি  

০৮ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫০:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, গণতন্ত্রের নামে রাজাকারদের, জঙ্গিদের, খুনিদের হালাল করার রাজনীতি বাংলাদেশে করতে দেয়া হবে না, চলবে না। বাংলাদেশের সংবিধান যারা উড়িয়ে দিতে চায়, জাতির পিতাকে মানে না, ত্রিশ লাখ শহীদ মানে না, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দেয় না- তারা বাংলাদেশের কেউ না। আমি বহুদিন আগে বলেছিলাম বেগম খালেদা জিয়া আপনি পাকিস্তানে চলে যান। বাংলাদেশ ভালো লাগে না থাকার দরকার কী। উনি এখনো রাজাকারদের পার্টনারশিপে আছেন। জঙ্গি পার্টনারশিপে আছেন। তিনি এখনো পাকিস্তানের ট্রেনেই অবস্থান করছেন।

শুক্রবার দুপুরে কুড়িগ্রাম শেখ রাসেল অডিটরিয়ামে জেলা জাসদের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে ইনু বলেন, আপনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে বিস্ময়কর উন্নয়ন হচ্ছে। অনেক উন্নয়ন হয়েছে। সেই উন্নয়নে তাক লাগছে সবাই। কিন্তু সেই উন্নয়নের রেলগাড়ির ভিতরে ঘরকাটা ইঁদুররা ঢুকে গেছে। উন্নয়নের সুফল খেয়ে ফেলছে। সাধারণ মানুষের কাছে সুফল যাচ্ছে না। এ ঘরকাটা ইঁদুররা হলো দুর্নীতিবাজ।

তিনি বলেন, এদের কোনো জাত নাই পাত নাই। এ ঘরকাটা ইঁদুররা হচ্ছে অর্থনৈতিক শত্রু, গরিবের শত্রু; দেশের শত্রু। এরা সরকারের ঘরের ভিতরের শত্রু। এরা দিনকে রাত আর রাতকে দিন করছে। এরা টেন্ডারবাজি, ডাণ্ডাবাজি করে মানুষকে অপমান করে। দুর্নীতির সিন্ডিকেটরা উন্নয়নকে আটকে দেবে।

এ সময় জাসদ নেতা লুৎফর রহমান বাচ্চুর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন- কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নইমুল আহসান জুয়েল, ওবায়দুর রহমান চুন্নু, আব্দুল্লাহিল কাইয়ুম, এমদাদুল হক এমদাদসহ জেলা নেতারা। জেলার ৯টি উপজেলাসহ পার্শ্ববর্তী জেলার প্রতিনিধিরা সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন।

পরে জেলা জাসদের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে গোলাম হাবিবুর রহমান বিদ্যুৎকে সভাপতি এবং তৌহিদুল ইসলাম বকসী ঠাণ্ডাকে সাধারণ সম্পাদক করে জেলা জাসদের ৪৪ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।

'তিনি এখনো পাকিস্তানের ট্রেনে অবস্থান করছেন'

 কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি 
০৮ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, গণতন্ত্রের নামে রাজাকারদের, জঙ্গিদের, খুনিদের হালাল করার রাজনীতি বাংলাদেশে করতে দেয়া হবে না, চলবে না। বাংলাদেশের সংবিধান যারা উড়িয়ে দিতে চায়, জাতির পিতাকে মানে না, ত্রিশ লাখ শহীদ মানে না, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দেয় না- তারা বাংলাদেশের কেউ না। আমি বহুদিন আগে বলেছিলাম বেগম খালেদা জিয়া আপনি পাকিস্তানে চলে যান। বাংলাদেশ ভালো লাগে না থাকার দরকার কী। উনি এখনো রাজাকারদের পার্টনারশিপে আছেন। জঙ্গি পার্টনারশিপে আছেন। তিনি এখনো পাকিস্তানের ট্রেনেই অবস্থান করছেন।

শুক্রবার দুপুরে কুড়িগ্রাম শেখ রাসেল অডিটরিয়ামে জেলা জাসদের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে ইনু বলেন, আপনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে বিস্ময়কর উন্নয়ন হচ্ছে। অনেক উন্নয়ন হয়েছে। সেই উন্নয়নে তাক লাগছে সবাই। কিন্তু সেই উন্নয়নের রেলগাড়ির ভিতরে ঘরকাটা ইঁদুররা ঢুকে গেছে। উন্নয়নের সুফল খেয়ে ফেলছে। সাধারণ মানুষের কাছে সুফল যাচ্ছে না। এ ঘরকাটা ইঁদুররা হলো দুর্নীতিবাজ। 

তিনি বলেন, এদের কোনো জাত নাই পাত নাই। এ ঘরকাটা ইঁদুররা হচ্ছে অর্থনৈতিক শত্রু, গরিবের শত্রু; দেশের শত্রু। এরা সরকারের ঘরের ভিতরের শত্রু। এরা দিনকে রাত আর রাতকে দিন করছে। এরা টেন্ডারবাজি, ডাণ্ডাবাজি করে মানুষকে অপমান করে। দুর্নীতির সিন্ডিকেটরা উন্নয়নকে আটকে দেবে।

এ সময় জাসদ নেতা লুৎফর রহমান বাচ্চুর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন- কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নইমুল আহসান জুয়েল, ওবায়দুর রহমান চুন্নু, আব্দুল্লাহিল কাইয়ুম, এমদাদুল হক এমদাদসহ জেলা নেতারা। জেলার ৯টি উপজেলাসহ পার্শ্ববর্তী জেলার প্রতিনিধিরা সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন।

পরে জেলা জাসদের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে গোলাম হাবিবুর রহমান বিদ্যুৎকে সভাপতি এবং তৌহিদুল ইসলাম বকসী ঠাণ্ডাকে সাধারণ সম্পাদক করে জেলা জাসদের ৪৪ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন