সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টে উদ্দেশ্যমূলক এ ঘটনা: ইউনাইটেড ইসলামী পার্টি
jugantor
সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টে উদ্দেশ্যমূলক এ ঘটনা: ইউনাইটেড ইসলামী পার্টি

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৫ অক্টোবর ২০২১, ০০:৫৮:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

তীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে

দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে উদ্দেশ্যমূলক কুমিল্লার ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে দাবি করেছেন বাংলাদেশ ইউনাইটেড ইসলামীপার্টির চেয়ারম্যান মাওলানা ইসমাইল হোসাইন।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে আয়োজিত জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করেন তিনি।

ইসমাইল হোসাইন বলেন, ‘গতকাল কুমিল্লায় যে ঘটনা ঘটানো হয়েছে তা নাটক, ষড়যন্ত্র ও দেশের ভেতরে অশান্তি করার জন্য হয়েছে। দেশের ভেতরে কয়েকদিন আগে হেফাজত তাণ্ডব চালিয়েছিল। আরেকটি তাণ্ডব চালাতে এটি ঘটানো হয়েছে ও ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। সরকারকে বিপদে ফেলতে, দেশে অশান্তি তৈরি করতে এটি করা হয়েছে।’


তিনি বলেন, সকল ধর্মের মানুষের সঙ্গে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্ববোধ বজায় রেখে একে অপরের বিপদাপদে এগিয়ে আসাই আমাদের শান্তির ধর্ম ইসলাম ও রাসুলের (সা.) শিক্ষা। বিদায় হজের ভাষণে মহানবীর (সা.) সুস্পষ্ট ঘোষণা ছিল- মানুষের সঙ্গে মানুষের মাতৃতুল্য সহবস্থান নিশ্চিত করতে হবে। কোন প্রকার সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বা অশান্তি সৃষ্টি করতে কঠোরভাবে বারণ করে গেছেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধে হিন্দু-মুসলিমসহ সকল ধর্মের মানুষ কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে যুদ্ধ করেছিল বলেই আমরা পেয়েছি এই সোনার বাংলা। সকল ধর্ম-বর্ণের মানুষের মিলিত রক্তস্রোতের বিনিময়ে আজকের এই স্বাধীন বাংলাদেশ।

কুমিল্লায় ঘটে যাওয়া অপ্রত্যাশিত ঘটনা সম্পর্কে মাওলানা ইসমাইল হোসাইন বলেন, সাম্প্রদায়িক অপশক্তির দোসররাই কুমিল্লার ঘটনা ঘটিয়েছে বলে আমরা বিশ্বাস করি। এরা অতীতেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ও ফটোশপের মাধ্যমে বিকৃত ছবি ছড়িয়ে দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও শান্তি বিনষ্ট করতে চেয়েছিল। কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়েছে। যাদের ইন্ধনে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে তাদের চিহ্নিত করে, অবিলম্বে আইনের আওতায় আনতে সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টে উদ্দেশ্যমূলক এ ঘটনা: ইউনাইটেড ইসলামী পার্টি

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৫ অক্টোবর ২০২১, ১২:৫৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
তীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে
জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ইউনাইটেড ইসলামী পার্টির সংবাদ সম্মেলন।

দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে উদ্দেশ্যমূলক কুমিল্লার ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে দাবি করেছেন বাংলাদেশ ইউনাইটেড ইসলামী পার্টির চেয়ারম্যান মাওলানা ইসমাইল হোসাইন। 

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে আয়োজিত জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করেন তিনি। 

ইসমাইল হোসাইন বলেন, ‘গতকাল কুমিল্লায় যে ঘটনা ঘটানো হয়েছে তা নাটক, ষড়যন্ত্র ও দেশের ভেতরে অশান্তি করার জন্য হয়েছে। দেশের ভেতরে কয়েকদিন আগে হেফাজত তাণ্ডব চালিয়েছিল। আরেকটি তাণ্ডব চালাতে এটি ঘটানো হয়েছে ও ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। সরকারকে বিপদে ফেলতে, দেশে অশান্তি তৈরি করতে এটি করা হয়েছে।’


তিনি বলেন, সকল ধর্মের মানুষের সঙ্গে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্ববোধ বজায় রেখে একে অপরের বিপদাপদে এগিয়ে আসাই আমাদের শান্তির ধর্ম ইসলাম ও রাসুলের (সা.) শিক্ষা। বিদায় হজের ভাষণে মহানবীর (সা.) সুস্পষ্ট ঘোষণা ছিল- মানুষের সঙ্গে মানুষের মাতৃতুল্য সহবস্থান নিশ্চিত করতে হবে। কোন প্রকার সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বা অশান্তি সৃষ্টি করতে কঠোরভাবে বারণ করে গেছেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধে হিন্দু-মুসলিমসহ সকল ধর্মের মানুষ কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে যুদ্ধ করেছিল বলেই আমরা পেয়েছি এই সোনার বাংলা। সকল ধর্ম-বর্ণের মানুষের মিলিত রক্তস্রোতের বিনিময়ে আজকের এই স্বাধীন বাংলাদেশ। 

কুমিল্লায় ঘটে যাওয়া অপ্রত্যাশিত ঘটনা সম্পর্কে মাওলানা ইসমাইল হোসাইন বলেন, সাম্প্রদায়িক অপশক্তির দোসররাই কুমিল্লার ঘটনা ঘটিয়েছে বলে আমরা বিশ্বাস করি। এরা অতীতেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ও ফটোশপের মাধ্যমে বিকৃত ছবি ছড়িয়ে দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও শান্তি বিনষ্ট করতে চেয়েছিল। কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়েছে। যাদের ইন্ধনে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে তাদের চিহ্নিত করে, অবিলম্বে আইনের আওতায় আনতে সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন