পূজামণ্ডপে হামলার ব্যাপারে যা বললেন মির্জা ফখরুল
jugantor
পূজামণ্ডপে হামলার ব্যাপারে যা বললেন মির্জা ফখরুল

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৮ অক্টোবর ২০২১, ২৩:৪৯:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

ফখরুল

সারাদেশে পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনা সরকারি মদদেই হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার রাতে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

দুর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানাতে বিএনপি উদ্যোগে এই সভার আয়োজন করা হয়। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন এবং হিন্দু সম্প্রদায়কে শারদীয়া শুভেচ্ছা জানান।

মতবিনিময় সভায় মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা বার বার বলছি, দাঙ্গা, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করা ক্ষমতাসীনদের মদদ ছাড়া সম্ভব নয়। নিঃসন্দেহে যারা আক্রমণ চালিয়েছে তারা কোনো বিরোধী দলের রাজনৈতিক নেতাকর্মী নয়। এটা আজকে সব জায়গা প্রমাণিত হয়ে গেছে। এটা পরিস্কার হয়েছে আওয়ামী লীগ ক্ষমতাকে আরও দীর্ঘায়িত করার জন্য এসব অপকর্ম করছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, বিএনপি সবসময় সব ধর্মের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী ।

খালেদা জিয়ার শাসনামলে হিন্দুদের উপাশনালয় মন্দির নির্মাণ, সংস্কার এবং মন্দির ভিত্তিক পাঠাগার নির্মাণসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়গুলো তুলে ধরেন সাবেক এই প্রতিমন্ত্রী।

হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান রেখে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আপনাদের শুধু এইটুকু বলতে চাই যে, আওয়ামী লীগ প্রতারণা রাজনীতি করে। আওয়ামী লীগ জনগনের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতার রাজনীতি করে।

বিএনপি নেতা সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট গৌতম চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে ও অমলেন্দু দাস অপুর সঞ্চালনায় মতবিনিময় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, নিতাই রায় চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, বিজন কান্তি সরকার, কেন্দ্রীয় নেতা জয়ন্ত কুমার কুন্ড, অপর্না রায় দাস, জনগোমেজ, অশোক কুণ্ডু, সুশীল বড়ুয়া, রমেশ দত্ত, কামাক্ষা চন্দ্র দাস, সঞ্চয় দে রিপন, সৌরভ পাল, মিল্টন বৌদ্দ, জয়দেব জয়, বিশ্বজিত ভদ্র, বিশ্বজিত ভদ্র,সীমান্ত দাস, সঞ্চয় গুপ্ত ও পলাশ মন্ডল প্রমুখ।

সিরাজগঞ্জ, নেত্রকোনা, চট্টগ্রাম, গাজীপুর, টাঙ্গাইল, জয়দেবপুর, লক্ষীপুর, নওগাঁ, কিশোরগঞ্জ, নড়াইল, ময়মনসিংহ, বরিশাল, জামালপুরসহ বিভিন্ন জেলা থেকে হিন্দু,বৌদ্ধ, খ্রিস্টান কল্যাণ ফ্রন্ট ও ছাত্র যুব ফ্রন্টের দেড় শতাধিক সদস্য এই মতবিনিময় অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

পূজামণ্ডপে হামলার ব্যাপারে যা বললেন মির্জা ফখরুল

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৮ অক্টোবর ২০২১, ১১:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফখরুল
ছবি : সংগৃহীত

সারাদেশে পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনা সরকারি মদদেই হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

সোমবার রাতে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

দুর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানাতে বিএনপি উদ্যোগে এই সভার আয়োজন করা হয়। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন এবং হিন্দু সম্প্রদায়কে শারদীয়া শুভেচ্ছা জানান।

মতবিনিময় সভায় মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা বার বার বলছি, দাঙ্গা, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করা ক্ষমতাসীনদের মদদ ছাড়া সম্ভব নয়। নিঃসন্দেহে যারা আক্রমণ চালিয়েছে তারা কোনো বিরোধী দলের রাজনৈতিক নেতাকর্মী নয়। এটা আজকে সব জায়গা প্রমাণিত হয়ে গেছে। এটা পরিস্কার হয়েছে আওয়ামী লীগ ক্ষমতাকে আরও দীর্ঘায়িত করার জন্য এসব অপকর্ম করছে। 

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, বিএনপি সবসময় সব ধর্মের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী ।

খালেদা জিয়ার শাসনামলে হিন্দুদের উপাশনালয় মন্দির নির্মাণ, সংস্কার এবং মন্দির ভিত্তিক পাঠাগার নির্মাণসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়গুলো তুলে ধরেন সাবেক এই প্রতিমন্ত্রী। 

হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান রেখে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আপনাদের শুধু এইটুকু বলতে চাই যে, আওয়ামী লীগ প্রতারণা রাজনীতি করে। আওয়ামী লীগ জনগনের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতার রাজনীতি করে। 

বিএনপি নেতা সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট গৌতম চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে ও অমলেন্দু দাস অপুর সঞ্চালনায় মতবিনিময় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, নিতাই রায় চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, বিজন কান্তি সরকার, কেন্দ্রীয় নেতা জয়ন্ত কুমার কুন্ড, অপর্না রায় দাস, জনগোমেজ, অশোক কুণ্ডু, সুশীল বড়ুয়া, রমেশ দত্ত, কামাক্ষা চন্দ্র দাস, সঞ্চয় দে রিপন, সৌরভ পাল, মিল্টন বৌদ্দ, জয়দেব জয়, বিশ্বজিত ভদ্র, বিশ্বজিত ভদ্র,সীমান্ত দাস, সঞ্চয় গুপ্ত ও পলাশ মন্ডল প্রমুখ।

সিরাজগঞ্জ, নেত্রকোনা, চট্টগ্রাম, গাজীপুর, টাঙ্গাইল, জয়দেবপুর, লক্ষীপুর, নওগাঁ, কিশোরগঞ্জ, নড়াইল, ময়মনসিংহ, বরিশাল, জামালপুরসহ বিভিন্ন জেলা থেকে হিন্দু,বৌদ্ধ, খ্রিস্টান কল্যাণ ফ্রন্ট ও ছাত্র যুব ফ্রন্টের দেড় শতাধিক সদস্য এই মতবিনিময় অনুষ্ঠানে  অংশ নেন। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন