মঞ্চে বিশৃঙ্খলা, বক্তৃতা শেষ না করেই নেমে গেলেন এলজিআরডি মন্ত্রী
jugantor
মঞ্চে বিশৃঙ্খলা, বক্তৃতা শেষ না করেই নেমে গেলেন এলজিআরডি মন্ত্রী

  সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি  

২২ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৫৪:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

মঞ্চে বিশৃঙ্খলা। এমন অবস্থায় বক্তৃতা অসমাপ্ত রেখেই মঞ্চ থেকে নেমে গেলেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম। শুক্রবার দুপুরে নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভা কমিউনিটি সেন্টার উদ্বোধন করেন তিনি। মন্ত্রীর সম্মানার্থে দেওয়া হয় গার্ড অব অনার। তিনি বেলুন উড়িয়ে ও ফিতা কেটে উত্তরাঞ্চলের দৃষ্টিনন্দন বহুমুখী ওই কমিউনিটি সেন্টার উদ্বোধন করেন।

নতুন নির্মিত কমিউনিটি সেন্টারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি হয় এর মিলনায়তনে। এতে সভাপতিত্ব করেন সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র রাফিকা আকতার জাহান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলাল উদ্দিন আহমেদ, নীলফামারী-৪ আসনের সাংসদ আহসান আদেলুর রহমান, নীলফামারী জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান ও পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান।

পৌর মেয়র রাফিকা আকতার জাহান অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। পরে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন এলজিআরডি মন্ত্রী। তিনি বলেন, যারা তালেবানদের মুক্তিযোদ্ধা বানাতে চায় তারা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি নয়। বাংলাদেশ আপামর মানুষের দেশ হবে এটাই ছিল বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন।

মন্ত্রী বলেন, আমরা দরিদ্রতার নাগপাশ থেকে বেরিয়ে এসে উন্নত দেশের কাতারে শামিল হচ্ছি। একশ্রেণির মানুষ এ উন্নয়নকে ভালো চোখে দেখছে না। দেশে কৃষি, বিদ্যুৎ, যোগাযোগ খাতে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

তিনি সৈয়দপুরের উন্নয়ন সম্পর্কে বক্তব্য রাখছিলেন। এ সময় মঞ্চে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। এতে ক্ষুব্ধ হন মন্ত্রী। তিনি মঞ্চ ছেড়ে নেমে আসতে চাইলে মেয়র তাকে থামতে অনুরোধ করেন। কিন্তু বাধা অতিক্রম করে মঞ্চ ত্যাগ করে বেরিয়ে যান মন্ত্রী।

কেন এমন ঘটল তা জানতে চাওয়া হয় সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান তথা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোখছেদুল মোমিনের কাছে। তিনি উত্তরে বলেন, বিষয়টি বুঝে উঠতে পারলাম না। হয়তো মন্ত্রী মঞ্চে বিশৃঙ্খলা দেখেই ক্ষুব্ধ হয়ে থাকতে পারেন। এ নিয়ে মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানান তিনি।

মঞ্চে বিশৃঙ্খলা, বক্তৃতা শেষ না করেই নেমে গেলেন এলজিআরডি মন্ত্রী

 সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি 
২২ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মঞ্চে বিশৃঙ্খলা। এমন অবস্থায় বক্তৃতা অসমাপ্ত রেখেই মঞ্চ থেকে নেমে গেলেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম। শুক্রবার দুপুরে নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভা কমিউনিটি সেন্টার উদ্বোধন করেন তিনি। মন্ত্রীর সম্মানার্থে দেওয়া হয় গার্ড অব অনার। তিনি বেলুন উড়িয়ে ও ফিতা কেটে উত্তরাঞ্চলের দৃষ্টিনন্দন বহুমুখী ওই কমিউনিটি সেন্টার উদ্বোধন করেন।

নতুন নির্মিত কমিউনিটি সেন্টারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি হয় এর মিলনায়তনে। এতে সভাপতিত্ব করেন সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র রাফিকা আকতার জাহান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলাল উদ্দিন আহমেদ, নীলফামারী-৪ আসনের সাংসদ আহসান আদেলুর রহমান, নীলফামারী জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান ও পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান।

পৌর মেয়র রাফিকা আকতার জাহান অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। পরে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন এলজিআরডি মন্ত্রী। তিনি বলেন, যারা তালেবানদের মুক্তিযোদ্ধা বানাতে চায় তারা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি নয়। বাংলাদেশ আপামর মানুষের দেশ হবে এটাই ছিল বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন।

মন্ত্রী বলেন, আমরা দরিদ্রতার নাগপাশ থেকে বেরিয়ে এসে উন্নত দেশের কাতারে শামিল হচ্ছি। একশ্রেণির মানুষ এ উন্নয়নকে ভালো চোখে দেখছে না। দেশে কৃষি, বিদ্যুৎ, যোগাযোগ খাতে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

তিনি সৈয়দপুরের উন্নয়ন সম্পর্কে বক্তব্য রাখছিলেন। এ সময় মঞ্চে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। এতে ক্ষুব্ধ হন মন্ত্রী। তিনি মঞ্চ ছেড়ে নেমে আসতে চাইলে মেয়র তাকে থামতে অনুরোধ করেন। কিন্তু বাধা অতিক্রম করে মঞ্চ ত্যাগ করে বেরিয়ে যান মন্ত্রী।

কেন এমন ঘটল তা জানতে চাওয়া হয় সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান তথা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোখছেদুল মোমিনের কাছে। তিনি উত্তরে বলেন, বিষয়টি বুঝে উঠতে পারলাম না। হয়তো মন্ত্রী মঞ্চে বিশৃঙ্খলা দেখেই ক্ষুব্ধ হয়ে থাকতে পারেন। এ নিয়ে মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন