তোমাকে স্মরণ করতে আসিনি, ক্ষমা চাইতে আসছি: জাফরুল্লাহ চৌধুরী
jugantor
তোমাকে স্মরণ করতে আসিনি, ক্ষমা চাইতে আসছি: জাফরুল্লাহ চৌধুরী

  যুগান্তর প্রতিবেদন, টাঙ্গাইল  

১৮ নভেম্বর ২০২১, ০১:১৮:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ও ভাসানী অনুসারী পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, মজলুম জননেতা আজকে আমরা তোমাকে স্মরণ করতে আসিনি। আজকে তোমার কাছে ক্ষমা চাইতে আসছি। ১৯৭২ সালে তুমি বলেছিলে কেউ খাবে কেউ খাবে না, তা হবে না, তা হবে না। দুর্ভাগ্য ৫০ বছর পরেও আজকে মানুষ অনাহারে আছে, পুষ্টিহীনতায় ভুগছে। আজকে তুমি যুগস্রষ্টা। তুমি অনেক কিছু দেখতে পেয়েছ, যা আমরা দেখতে পাইনি। ক্ষমতা তোমার লক্ষ্য ছিল না, তোমার লক্ষ্য ছিল মানুষের সুখ-শান্তি ও সেবা।

বুধবার দুপুরে মওলানা ভাসানীর ৪৫তম মৃত্যুবার্ষিকীতে টাঙ্গাইলের সন্তোষে তার মাজারে শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

জাফরুল্লাহ চৌধুরীর নেতৃত্বে ভাসানী অনুসারী পরিষদ, গণসংহতি আন্দোলন এবং রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের নেতারা ভাসানীর মাজারে পৌঁছেন। তারা মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এ সময় জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সাথে ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের সদস্য হাসনাত কাইয়ুম, বীর মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এআরএম সোলাইমান প্রথমে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর ভাসানীর পরিবারসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

দুপুরে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুর নেতৃত্বে বিএনপির নেতাকর্মী, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা খন্দকার নাজিম উদ্দিন ও জেলা জাপার সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম চাকলাদারের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি, টাঙ্গাইল প্রেস ক্লাবের পক্ষে সভাপতি জাফর আহমেদ, ন্যাপ ভাসানী, ওয়াকার্স পার্টি, জেএসডি এবং বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

তোমাকে স্মরণ করতে আসিনি, ক্ষমা চাইতে আসছি: জাফরুল্লাহ চৌধুরী

 যুগান্তর প্রতিবেদন, টাঙ্গাইল 
১৮ নভেম্বর ২০২১, ০১:১৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ও ভাসানী অনুসারী পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, মজলুম জননেতা আজকে আমরা তোমাকে স্মরণ করতে আসিনি। আজকে তোমার কাছে ক্ষমা চাইতে আসছি। ১৯৭২ সালে তুমি বলেছিলে কেউ খাবে কেউ খাবে না, তা হবে না, তা হবে না। দুর্ভাগ্য ৫০ বছর পরেও আজকে মানুষ অনাহারে আছে, পুষ্টিহীনতায় ভুগছে। আজকে তুমি যুগস্রষ্টা। তুমি অনেক কিছু দেখতে পেয়েছ, যা আমরা দেখতে পাইনি। ক্ষমতা তোমার লক্ষ্য ছিল না, তোমার লক্ষ্য ছিল মানুষের সুখ-শান্তি ও সেবা।

বুধবার দুপুরে মওলানা ভাসানীর ৪৫তম মৃত্যুবার্ষিকীতে টাঙ্গাইলের সন্তোষে তার মাজারে শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।
 
জাফরুল্লাহ চৌধুরীর নেতৃত্বে ভাসানী অনুসারী পরিষদ, গণসংহতি আন্দোলন এবং রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের নেতারা ভাসানীর মাজারে পৌঁছেন। তারা মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এ সময় জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সাথে ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের সদস্য হাসনাত কাইয়ুম, বীর মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এআরএম সোলাইমান প্রথমে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর ভাসানীর পরিবারসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

দুপুরে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুর নেতৃত্বে বিএনপির নেতাকর্মী, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা খন্দকার নাজিম উদ্দিন ও জেলা জাপার সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম চাকলাদারের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি, টাঙ্গাইল প্রেস ক্লাবের পক্ষে সভাপতি জাফর আহমেদ, ন্যাপ ভাসানী, ওয়াকার্স পার্টি, জেএসডি এবং বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন