‘রাজনীতি করতে দল থাকতে হয়, পদ পদবী দরকার হয় না’
jugantor
‘রাজনীতি করতে দল থাকতে হয়, পদ পদবী দরকার হয় না’

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি  

২০ জানুয়ারি ২০২২, ০০:১৯:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে পরাজয়ের পর মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকারকে দল থেকে বহিষ্কার করেছে বিএনপি। এর আগে তার দুটি দলীয় পদও হারান তিনি।

মঙ্গলবার বিএনপি থেকে বহিষ্কার করার পর বুধবার বেলা ১১টার দিকে নগরীর মাসদাইর এলাকায় নিজ বাড়িতে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন বিএনপির এই সাবেক নেতা।

নিজের অভিমত ব্যক্ত করতে গিয়ে তৈমুর আলম বলেন, আমি মনে করি রাজনীতি করতে গেলে একটা দল থাকতে হয়। কিন্তু পদ পদবী দরকার হয় না। ব্যক্তি ইমেজ ভালো থাকলে জনগণ এমনিতেই আপনার পাশে থাকবে।

এ সময় তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন একটা মিথ্যার ফ্যাক্টরি, প্রশাসন একটা মিথ্যার ফ্যাক্টরি। জনগণ এখন মিথ্যার কষাঘাতে জর্জরিত। এই মিথ্যার বিরুদ্ধে দাঁড়ানোই হবে আমার কাজ। আমি জাতীয়তাবাদী ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী। আমি না হয় বিএনপির কর্মী বা সমর্থক হয়ে থাকবো। সমর্থককে তো আর বহিষ্কার করতে পারবে না।

তিনি আরও বলেন, আমি বিএনপির সমৃদ্ধি কামনা করি, তারকে রহমানের বাংলাদেশে আগমন কামনা করি। তার সুস্বাস্থ্য কামনা করি। একইসঙ্গে বেগম খালেদা জিয়ার আশু রোগমুক্তি কামনা করি। যেহেতু দল আমাকে আন্দোলন সংগ্রাম থেকে মুক্তি দিয়েছে তাই এখন আমার সামনে ২টিই কাজ। একটি হলো বেগম খালেদা জিয়ার জন্য জনমত সৃষ্টি করা আর ইভিএম নামের ভোট ডাকাতির বাক্সের বিরুদ্ধে জনগণকে সচেতন করে তোলা।

গত ২ জানুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা কাউন্সিলের পদ থেকে প্রত্যাহার করা হয়। এর আগে জেলা বিএনপির আহবায়কের পদ থেকে তৈমুর আলমকে সরিয়ে জেলা বিএনপির এক নাম্বার যুগ্ম আহবায়ক মনিরুল ইসলাম রবিকে ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক করা হয়।

‘রাজনীতি করতে দল থাকতে হয়, পদ পদবী দরকার হয় না’

 নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি 
২০ জানুয়ারি ২০২২, ১২:১৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে পরাজয়ের পর মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকারকে দল থেকে বহিষ্কার করেছে বিএনপি। এর আগে তার দুটি দলীয় পদও হারান তিনি।

মঙ্গলবার বিএনপি থেকে বহিষ্কার করার পর বুধবার বেলা ১১টার দিকে নগরীর মাসদাইর এলাকায় নিজ বাড়িতে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন বিএনপির এই সাবেক নেতা।

নিজের অভিমত ব্যক্ত করতে গিয়ে তৈমুর আলম বলেন, আমি মনে করি রাজনীতি করতে গেলে একটা দল থাকতে হয়। কিন্তু পদ পদবী দরকার হয় না। ব্যক্তি ইমেজ ভালো থাকলে জনগণ এমনিতেই আপনার পাশে থাকবে।

এ সময় তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন একটা মিথ্যার ফ্যাক্টরি, প্রশাসন একটা মিথ্যার ফ্যাক্টরি। জনগণ এখন মিথ্যার কষাঘাতে জর্জরিত। এই মিথ্যার বিরুদ্ধে দাঁড়ানোই হবে আমার কাজ। আমি জাতীয়তাবাদী ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী। আমি না হয় বিএনপির কর্মী বা সমর্থক হয়ে থাকবো। সমর্থককে তো আর বহিষ্কার করতে পারবে না।

তিনি আরও বলেন, আমি বিএনপির সমৃদ্ধি কামনা করি, তারকে রহমানের বাংলাদেশে আগমন কামনা করি। তার সুস্বাস্থ্য কামনা করি। একইসঙ্গে বেগম খালেদা জিয়ার আশু রোগমুক্তি কামনা করি। যেহেতু দল আমাকে আন্দোলন সংগ্রাম থেকে মুক্তি দিয়েছে তাই এখন আমার সামনে ২টিই কাজ। একটি হলো বেগম খালেদা জিয়ার জন্য  জনমত সৃষ্টি করা আর ইভিএম নামের ভোট ডাকাতির বাক্সের বিরুদ্ধে জনগণকে সচেতন করে তোলা। 

গত ২ জানুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা কাউন্সিলের পদ থেকে প্রত্যাহার করা হয়। এর আগে জেলা বিএনপির আহবায়কের পদ থেকে তৈমুর আলমকে সরিয়ে জেলা বিএনপির এক নাম্বার যুগ্ম আহবায়ক মনিরুল ইসলাম রবিকে ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : নাসিক নির্বাচন ২০২২

১৭ জানুয়ারি, ২০২২