আইন করেও আ.লীগের শেষ রক্ষা হবে না: মির্জা ফখরুল
jugantor
আইন করেও আ.লীগের শেষ রক্ষা হবে না: মির্জা ফখরুল

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৫:৫৭:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল

নির্বাচন কমিশন (ইসি) আইন করেও আওয়ামী লীগের শেষ রক্ষা হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ভাবছে— নির্বাচন কমিশন আইন করে বেঁচে যাবে। বাকশাল করেও তাদের শেষ রক্ষা হয়নি, নির্বাচন কমিশন আইন করেও আওয়ামী লীগের শেষ রক্ষা হবে না।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম হলে এক আলোচনাসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয় দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, ইসি গঠন আইন পাস করার এখতিয়ার এই সরকারের নেই। এই আইন শুধু আমাদের কাছে নয়, সারাদেশের মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য নয়।

ইসি আইন বিএনপি মানে না জানিয়ে দলটির মহাসচিব বলেন, নির্বাচন কমিশন আইন আমরা মানি না। এ হাসিনা সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনের প্রশ্নই উঠতে পারে না। আমরা আবার বাকশালে ঢুকতে চাই না। আমরা বলেছি পদত্যাগ করুন। পদত্যাগ করে নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন। সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে নির্বাচন কমিশন গঠিত হবে। সেই নির্বাচনের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে। সেই নির্বাচনে জনগণের প্রতিনিধিরা নির্বাচিত হবে।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমানউল্লাহ আমান সভায় সভাপতিত্ব করেন। সদস্যসচিব আমিনুল হক সভা সঞ্চালনা করেন। সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সাবেক সংসদ সদস্য জহির উদ্দিন স্বপন প্রমুখ।

আইন করেও আ.লীগের শেষ রক্ষা হবে না: মির্জা ফখরুল

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৭ জানুয়ারি ২০২২, ০৩:৫৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল
আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল। ছবি: সংগৃহীত

নির্বাচন কমিশন (ইসি) আইন করেও আওয়ামী লীগের শেষ রক্ষা হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
 
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ভাবছে— নির্বাচন কমিশন আইন করে বেঁচে যাবে। বাকশাল করেও তাদের শেষ রক্ষা হয়নি, নির্বাচন কমিশন আইন করেও আওয়ামী লীগের শেষ রক্ষা হবে না।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম হলে এক আলোচনাসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয় দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, ইসি গঠন আইন পাস করার এখতিয়ার এই সরকারের নেই। এই আইন শুধু আমাদের কাছে নয়, সারাদেশের মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য নয়।

ইসি আইন বিএনপি মানে না জানিয়ে দলটির মহাসচিব বলেন, নির্বাচন কমিশন আইন আমরা মানি না। এ হাসিনা সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনের প্রশ্নই উঠতে পারে না। আমরা আবার বাকশালে ঢুকতে চাই না। আমরা বলেছি পদত্যাগ করুন। পদত্যাগ করে নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন। সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে নির্বাচন কমিশন গঠিত হবে। সেই নির্বাচনের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে। সেই নির্বাচনে জনগণের প্রতিনিধিরা নির্বাচিত হবে।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমানউল্লাহ আমান সভায় সভাপতিত্ব করেন। সদস্যসচিব আমিনুল হক সভা সঞ্চালনা করেন। সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সাবেক সংসদ সদস্য জহির উদ্দিন স্বপন প্রমুখ।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন