রাষ্ট্রীয় সব প্রতিষ্ঠান নৈতিকভাবে ভেঙে পড়েছে: আ স ম রব
jugantor
রাষ্ট্রীয় সব প্রতিষ্ঠান নৈতিকভাবে ভেঙে পড়েছে: আ স ম রব

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৮ নভেম্বর ২০২২, ২০:১৭:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেছেন, বর্তমান সরকার গণতন্ত্রের পথ থেকে বিচ্যুত হয়ে কর্তৃত্ববাদী শাসনের মাধ্যমে ‘বল প্রয়োগ’ ও ‘ভয় উৎপাদনের’ শাসন ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে। এখন গোপনীয়ভাবেও ব্যক্তিগত মতপ্রকাশের ক্ষেত্রে ভয় কার্যকর হয়ে পড়ছে। এ ভয়ংকর শাসন ব্যবস্থার কারণে জনগণ গণতন্ত্র থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ফলে রাষ্ট্রীয় সব প্রতিষ্ঠান আইনগত ও নৈতিকভাবে ভেঙে পড়েছে।

তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ক্ষমতা ধরে থাকায় একটি আনুগত্যশীল সুবিধাভোগী গোষ্ঠী সরকারের অনৈতিক ও বর্বরোচিত কাজের সমর্থক হয়ে উঠেছে; যা সমাজের জন্য হুমকি।

সোমবার দলের স্থায়ী কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে আ স ম রব এসব কথা বলেন। উত্তরার বাসভবনে অনুষ্ঠিত এ সভায় আরও বক্তব্য দেন- ছানোয়ার হোসেন তালুকদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ মিয়া, তানিয়া রব, শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন প্রমুখ।

জেএসডি সভাপতি বলেন, সম্প্রতি সরকার নিজেই স্বীকার করেছে ভোট চুরি জনগণ মেনে নেয় না। যারা ভোট চুরির অপরাধে অপরাধী জনগণ তাদের রাষ্ট্রক্ষমতা থেকে পদত্যাগে বাধ্য করে।

‘সুতরাং ভোট চুরির অপরাধে আওয়ামী লীগ অপরাধী, যেহেতু পদত্যাগ করার নৈতিক শক্তি সরকারের নেই, সেহেতু বর্তমান সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করাই জনগণের রাজনৈতিক কর্তব্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। অন্যায় করার পর অন্যায়ের ন্যায্যতা প্রমাণ করা ভয়াবহ অন্যায়।’

তিনি আরও বলেন, হাইব্রিড রিজিম পরিবর্তনের পর আমাদের অংশীদারিত্বের গণতন্ত্র হবে দেশ শাসনে সবার অংশগ্রহণ, জনগণের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা এবং ক্ষমতাসীনদের জবাবদিহি নিশ্চিত করা।

রাষ্ট্রীয় সব প্রতিষ্ঠান নৈতিকভাবে ভেঙে পড়েছে: আ স ম রব

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৮ নভেম্বর ২০২২, ০৮:১৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেছেন, বর্তমান সরকার গণতন্ত্রের পথ থেকে বিচ্যুত হয়ে কর্তৃত্ববাদী শাসনের মাধ্যমে ‘বল প্রয়োগ’ ও ‘ভয় উৎপাদনের’ শাসন ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে। এখন গোপনীয়ভাবেও ব্যক্তিগত মতপ্রকাশের ক্ষেত্রে ভয় কার্যকর হয়ে পড়ছে। এ ভয়ংকর শাসন ব্যবস্থার কারণে জনগণ গণতন্ত্র থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ফলে রাষ্ট্রীয় সব প্রতিষ্ঠান আইনগত ও নৈতিকভাবে ভেঙে পড়েছে।

তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ক্ষমতা ধরে থাকায় একটি আনুগত্যশীল সুবিধাভোগী গোষ্ঠী সরকারের অনৈতিক ও বর্বরোচিত কাজের সমর্থক হয়ে উঠেছে; যা সমাজের জন্য হুমকি।

সোমবার দলের স্থায়ী কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে আ স ম রব এসব কথা বলেন। উত্তরার বাসভবনে অনুষ্ঠিত এ সভায় আরও বক্তব্য দেন- ছানোয়ার হোসেন তালুকদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ মিয়া, তানিয়া রব, শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন প্রমুখ।

জেএসডি সভাপতি বলেন, সম্প্রতি সরকার নিজেই স্বীকার করেছে ভোট চুরি জনগণ মেনে নেয় না। যারা ভোট চুরির অপরাধে অপরাধী জনগণ তাদের রাষ্ট্রক্ষমতা থেকে পদত্যাগে বাধ্য করে।

‘সুতরাং ভোট চুরির অপরাধে আওয়ামী লীগ অপরাধী, যেহেতু পদত্যাগ করার নৈতিক শক্তি সরকারের নেই, সেহেতু বর্তমান সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করাই জনগণের রাজনৈতিক  কর্তব্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। অন্যায় করার পর অন্যায়ের ন্যায্যতা প্রমাণ করা ভয়াবহ অন্যায়।’ 

তিনি আরও বলেন, হাইব্রিড রিজিম পরিবর্তনের পর আমাদের অংশীদারিত্বের গণতন্ত্র হবে দেশ শাসনে সবার অংশগ্রহণ, জনগণের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা এবং ক্ষমতাসীনদের জবাবদিহি নিশ্চিত করা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন