গাজীপুরে খুলনা স্টাইলে নির্বাচন হলে পরিণতি ভয়াবহ: মওদুদ

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৩ জুন ২০১৮, ১৮:৪৭ | অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরে খুলনা স্টাইলে নির্বাচন হলে পরিণতি ভয়াবহ: মওদুদ
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। ছবি: সংগৃহীত

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন খুলনা স্টাইলে হলে এর পরিণতি ভয়াবহ হবে।

তিনি বলেন, এ নির্বাচন হবে সরকার ও নির্বাচন কমিশনের জন্য একটা এসিড টেস্ট। আমরা দেখব তারা কী করেন? গাজীপুরের নির্বাচন দেখে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব বাকি তিন সিটি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব কি করব না।

শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনাসভায় মওদুদ এসব কথা বলেন। কারাবন্দি খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির দাবিতে সভার আয়োজন করে বাংলাদেশ ইয়ুথ ফোরাম।

সংগঠনের উপদেষ্টা মেহেদী হাসান পলাশের সভাপতিত্বে ও সভাপতি মুহাম্মদ সাইদুর রহমানের পরিচালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সহপ্রচার সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম যুক্তরাজ্য শাখার সভাপতি ব্যারিস্টার আনোয়ার হোসেন, বাংলাদেশ লেবার পার্টির একাংশের মহাসচিব হামদুল্লাহ আল মেহেদি প্রমুখ।

মওদুদ আহমদ বলেন, গাজীপুরের নির্বাচনে অসম্ভব জনসমর্থন রয়েছে ধানের শীষের পক্ষে। আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, যদি খুলনা স্টাইলে নির্বাচন গাজীপুরেও করা হয় এর পরিণতি হবে ভয়াবহ।

২৬ জুন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে। এ নির্বাচন দেখে বিএনপি তিন সিটি নির্বাচনে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করবে জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা তিনটি সিটি কর্পোরেশনে মনোনয়ন দেব। সব কিছুই করছি আমরা। কারণ আমরা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করি। গাজীপুরের নির্বাচনের পরে আমরা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব বরিশাল, সিলেট, ও রাজশাহীর নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব কি করব না।

মওদুদ আহমদ বলেন, জুন মাস পার হয়ে যাচ্ছে। ডিসেম্বর মাস বাদ দিয়ে দেন। মাঝখানে থাকে আর মাত্র চার মাস। সময় এসেছে এখন প্রতিরোধ গড়ে তোলার সময়। অন্যায়-অবিচার-অত্যাচার-নির্যাতন, বিচারবহির্ভূত হত্যা-গুম-গ্রেফতার-মিথ্যা মামলা-এসবের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। এসবের প্রতিরোধ করার জন্য যথেষ্ট শক্তি অর্জন করতে হবে, ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে ঐক্য গড়ে তোলার আহ্বান জানান এ বিএনপি নেতা।

দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে একটি ভিত্তিহীন মামলায় সাজা দিয়ে সরকার আটকে রেখেছে অভিযোগ করে সাবেক আইনমন্ত্রী বলেন, নিম্ন আদালত নির্বাহী বিভাগের অধীনে চলে গেছে। হাইকোর্ট থেকে ম্যাজিস্ট্রেটকে বললেন খালেদা জিয়ার জামিনের আবেদনগুলো খুব তাড়াতাড়ি করে নিষ্পত্তি করে দেন। সেই ম্যাজিস্ট্রেট এত বড়, কী বলব? স্পর্ধাই বলব, হাইকোর্টকে অমান্য করে, হাইকোর্টকে অবমাননা করে জামিনের আবেদন শুনেছেন ঠিকই কিন্তু আদেশ দেবেন ৫ জুলাইতে। আদালত অবমাননা এর চাইতে আর বড় কী হতে পারে?

তিনি বলেন, কেন ম্যাজিস্ট্রেট আদেশ মানেন না? কেন হাইকোর্টকে অবজ্ঞা করেন? সুপ্রিমকোর্টের মান-মর্যাদা, উজ্জ্বল ভাবমূর্তি কেন তারা (ম্যাজিস্টেট) নষ্ট করতে পারেন? একটি মাত্র কারণে তারা জানে যে, তাদের এখন সুপ্রিমকোর্টের কাছে জবাবদিহি করতে হবে না, হয় না। তারা এখন নির্বাহী বিভাগের অধীনে কাজ করেন।

মওদুদ আহমদ বলেন, জামিন পাওয়া একটি মানুষের মৌলিক অধিকার। খালেদা জিয়া শুধু একজন সাধারণ নাগরিক নন। হাইকোর্টের আদেশ একজন ম্যাজিস্ট্রেট অবজ্ঞা করতে পারেন এটা আমরা কল্পনা করতে পারিনা। সামরিক শাসনের সময়েও আমরা এ ধরনের আচরণ দেখিনি।

সরকারকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া অবশ্যই মুক্তি পাবেন। কত দেরি করাবেন আপনারা, কত কৌশল করবেন। কতভাবে আপনারা বিলম্বিত করবে। জামিন তার হবেই। তিনি মুক্ত হয়ে আসবেন এবং তাকে নিয়েই আমরা নির্বাচন করব।

হেরে যাওয়ার ভয়ে আওয়ামী লীগ আগামী জাতীয় নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করতে পারে বলেও মন্তব্য করেন মওদুদ আহমদ। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতা হারাতে চাইবে না। কারণ তারা যে অন্যায় করেছে সবকিছু ধরা পড়ে যাবে। সে ভয়ে তারা নির্বাচন বানচাল করতে পারে তাই আমাদের সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সম্পূর্ণ মিথ্যার ওপর টিকে আছে। এই দলই স্বাধীনতার পর একটি সুন্দর সংবিধান দিয়েছিল। আবার সে দলই দুই বছর পর বাকশালী শাসন চালু করে। সেদিন থেকেই দেশে রাজনৈতিক দুর্যোগ শুরু হয়। গণতন্ত্রের দুর্যোগ শুরু হয়। এই দলের কোনো নেতা স্বীকার করে না যে তারা পঁচাত্তর সালে একদলীয় শাসন চালু করেছিল। তারা ভুল স্বীকারও করে না। আজকে আবারও ১০ বছর একদলীয় শাসন তারা চালিয়ে যাচ্ছে। এই দেশে কখন গণতন্ত্র চালু হবে মানুষ জানে না।

ঘটনাপ্রবাহ : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ২০১৮

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter