গাজীপুরে ইসিকে সহায়তা করছে সরকার: ওবায়দুল কাদের

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৫ জুন ২০১৮, ২০:৫৩ | অনলাইন সংস্করণ

নির্বাচন
ইসির নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে গাজীপুরে ভোট কেন্দ্রে পাঠানো হচ্ছে ব্যালট বাক্স। ছবি-যুগান্তর

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের আজকের নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলমের বিজয়ের বিষয়ে ১০০ ভাগ আশাবাদ প্রকাশ করেছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এ নির্বাচনে সরকারের হস্তক্ষেপের অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সরকার নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীন ও কর্তৃত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনে সহায়তা করছে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জানান, দলের বিশেষ বর্ধিত সভার অংশ হিসেবে আগামী ৩০ জুন ও সাত জুলাই ইউনিয়ন পরিষদের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক এবং চেয়ারম্যানদের সঙ্গে বসবেন সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দলের সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের আজকের নির্বাচন নিয়ে এ সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়।

এতে আরও উপস্থিত ছিলেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, জাহাঙ্গির কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নাহার চাঁপা, সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামূল হক শামীম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মুহিবুল হাসান চৌধুরীন ওফেল, উপপ্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপদফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য এস এম কামাল হোসেন, অ্যাডভোকেট এ বি এম রিয়াজুল কবির কাওছার প্রমুখ।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, রংপুর, কুমিল্লা, খুলনায় যেমন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে তেমনি গাজীপুরেও অবাদ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সরকার এতে কোনো হস্তক্ষেপ করছে না। বরং নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীন ও কর্তৃত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনে সহায়তা করছে। জনগণকে স্বতঃস্ফুর্তভাবে যাকে খুশি তাকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আওয়ামী লীগ আমলে সব নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। এ সরকার ১৫ ফেব্রুয়ারি, মাগুরা ও ঢাকা-১০ মার্কা নির্বাচন করতে চায় না।

বিএনপি নেতা মওদুদ আহমদের সমালোচনা করে কাদের বলেন, যিনি নির্বাচন নিয়ে বড় বড় কথা বলেছেন, তার এলাকায় নির্বাচনের সময় সিরাজপুর কেন্দ্রে ১টার সময় গিয়ে তিনি (মওদুদ) বলেছিলেন, এখনো নির্বাচন শেষ হয়নি। তারা সকাল ১০টার মধ্যে নির্বাচন শেষ করতে চায়, ভোট ডাকাতি করে, কেন্দ্র দখল করে এবং ভোট জালিয়াতি করে নির্বাচনের রাজনীতি প্রশ্নবিদ্ধ করেছে বলে মন্তব্য করেন কাদের।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিএনপি বরাবরের মতোই বিভিন্ন অভিযোগ করে। এসব তাদের পুরনো ভাঙা রেকর্ড। নির্বাচন এলে বিএনপি যদি নির্বাচনে অংশ নেয়, তাহলে রেজাল্ট হওয়া পর্যন্ত ‘নির্বাচনে কারচুপি হবে, নির্বাচনে ভোট ডাকাতি চলছে এজেন্ট বের করে দেয়া হচ্ছে’ বলে অভিযোগ করে যাবে বলে মন্তব্য করেন কাদের।

তিনি বলেন, এমন কিছু বাক্য আছে যা তারা রেজাল্টের আগ পর্যন্ত আওড়াতে থাকে। রেজাল্টের আগ পর্যন্ত নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা বিএনপির পুরনো অভ্যাস। তাদের খুশি করতে হলে নির্বাচনে জিতিয়ে দিতে হবে, তাহলে তারা ইসির প্রশংসা করবে।

আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভার অংশ হিসেবে দুই ধাপে ইউনিয়ন পরিষদের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক এবং দলীয় চেয়ারম্যানরা দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার সরকারি বাসভবন গণভবনে বৈঠকে যোগ দেবেন বলে জানান ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, এর প্রথম ধাপ অনুষ্ঠিত হবে ৩০ জুন সকাল সাড়ে ১১টায়। এতে অংশগ্রহণ করবে চট্টগ্রাম বিভাগ, সিলেট বিভাগ, রাজশাহী এবং বরিশাল বিভাগ। ৭ জুলাই সকাল সকাল সাড়ে ১১টায় দ্বিতীয় ধাপে অংশগ্রহণ করবে ঢাকা বিভাগ, ময়মনসিংহ বিভাগ, রংপুর বিভাগ ও খুলনা বিভাগের অন্তর্গত ইউনিয়নগুলোর দলীয় চেয়ারম্যান, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরা।

উল্লেখ্য, দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে গত ২৩ জুন জেলা, থানা, মহানগর ও পৌরসভার নেতাদের ঢাকায় ডেকে বর্ধিত সভা করে নির্দেশনা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।

ঘটনাপ্রবাহ : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ২০১৮

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter