তিন সিটির পর জাতীয় নির্বাচনের সিদ্ধান্ত: মওদুদ

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৯ জুন ২০১৮, ২০:৫৩ | অনলাইন সংস্করণ

আলোচনা সভায় মওদুদ
আলোচনা সভায় মওদুদ। ছবি-যুগান্তর

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, সিলেট, বরিশাল ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন দেখে বিএনপি সিদ্ধান্ত নেবে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে কি না।

তিনি বলেন, তিন সিটি নির্বাচন যদি খুলনা ও গাজীপুরের মতো হয়, তাহলে বিএনপি মানুষের কাছে প্রমাণ করতে পারবে দলীয় সরকারের অধীনে কোনো দিন নির্বাচন সুষ্ঠু হয় না। সেক্ষেত্রে বিএনপিকে নতুন করে চিন্তা করতে হবে সাধারণ নির্বাচনে কোনো দলীয় সরকারের অধীনে দলটি নির্বাচন করবে, নাকি করবে না।

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সভা আয়োজন করে জিয়া সাংস্কৃতিক সংগঠনের-জিসাস। সংগঠনটির সভাপতি আবুল হাশেম রানার সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ারুল আজীম, সহধর্মবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট দীপেন দেওয়ান, সহসাংস্কৃতিক সম্পাদক মনির খান, সহপ্রচার সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ প্রমুখ। অনুষ্ঠানে কারাবন্দি খালেদা জিয়ার ওপর লেখা একটি গানের সিডি উন্মোচন করা হয়।

মুওদুদ আহমদ বলেন, নির্বাচনে যাওয়া না যাওয়া নিয়ে দলকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সেই পথ দেখিয়ে দেবে। তিনি বলেন, আজ এ জিনিসটা স্পষ্ট করা দরকার। সে জন্য আমি চেষ্টা করলাম যতটুকু সম্ভব স্পষ্ট করা। কেননা তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনই জাতীয় নির্বাচনের আগে শেষ নির্বাচন হবে।

মওদুদ আহমদ বলেন, দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন সুষ্ঠু হতে পারে না এটা আমরা খুলনা ও গাজীপুর সিটি নির্বাচনের মাধ্যমে প্রমাণ করতে পেরেছি। এখন প্রশ্ন হলো, আমরা তিন সিটি নির্বাচনে কেন অংশগ্রহণ করেছি? এর উত্তর একটাই। উত্তর হলো আমরা বারবার প্রমাণ করতে চাই।

নির্বাচন কমিশন প্রসঙ্গে মওদুদ আহমদ বলেন, কমিশন সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে। এটা একটা তল্পিবাহক, আজ্ঞাবহ প্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠানকে সংবিধানে যে অধিকার ও ক্ষমতা দেয়া হয়েছে তা প্রয়োগ করার মতো শক্তি, ক্ষমতা বা সাহস এ নির্বাচন কমিশনের নেই। এই কমিশন রাখা না রাখা, থাকা না থাকা একই ব্যাপার।

তিনি বলেন, উন্নয়ন ফ্লাইওভারের মাধ্যমে বা রাস্তাঘাটের মাধ্যমে হয় না। মূল্যবোধের মাধ্যমে, চর্চার মাধ্যমে, গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা ও সংস্কৃতির মাধ্যমে জাতি সত্যিকার অর্থে সাফল্য লাভ করে। অথচ সবকিছুই এখন হারিয়ে গেছে।

মওদুদ আহমদ বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া জেলে। সরকার চেষ্টা করছে তার মুক্তি বিলম্বিত করতে। দেরি হলেও খালেদা জিয়া জনগণের মধ্যে ফিরে আসবেন। তার মুক্তির পথ কেউ বন্ধ করতে পারবে না। যেদিন তিনি ফিরে আসবেন, সেদিন থেকে বাংলাদেশের রাজনীতিতে নতুন ধারা সূচিত হবে। গণতন্ত্রের নতুন জোয়ার তৈরি হবে। সেই জোয়ার বন্ধ করার ক্ষমতা এ সরকারের থাকবে না।

ঘটনাপ্রবাহ : রাজশাহী-বরিশাল-সিলেট সিটি নির্বাচন ২০১৮

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter