তিন সিটির পর এ সরকারের অধীনে আর ভোট নয়: গয়েশ্বর

  রাজশাহী ব্যুরো ২৪ জুলাই ২০১৮, ২২:১৫ | অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির এক সংবাদ সম্মেলনে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়
বিএনপির এক সংবাদ সম্মেলনে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। ছবি: যুগান্তর

রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে অংশ নেয়া বিএনপির ‘প্রি-টেস্ট’ বলে জানিয়েছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

তিনি বলেন, এই নির্বাচনে যদি কারচুপি কিংবা অনিয়ম হয় তবে এই সরকারের অধীনে আর কোনো ‘প্রহসনের’ নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে না।

মঙ্গলবার বিকালে রাজশাহী মহানগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিএনপির এক সংবাদ সম্মেলনে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এসব কথা বলেন।

রাজশাহী সিটি নির্বাচনে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা উপলক্ষে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সরকারের উদ্দেশে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, সিটি নির্বাচনে সরকার পরিবর্তন হয় না এটা আমরা সবাই জানি। সেই নির্বাচনে যদি জনগণের ভোটের প্রতি আপনাদের ধৈর্য, সহ্য বা গ্রহণ করার মানসিকতা না থাকে, তাহলে সরকার পরিবর্তনের যে নির্বাচন, সেই জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও বিএনপি অংশ নেবে না।

গত ১৫ মে এবং ২৬ জুন যথাক্রমে খুলনা ও গাজীপুর সিটিতে দলের মেয়রপ্রার্থীরা বড় ব্যবধানে হারার পর ভোটে কারচুপির অভিযোগ করেছিল বিএনপি। দলটির অভিযোগ, ওই দুটি সিটিতে তাদের নেতাকর্মী ও ভোটাররা যাতে ভোটকেন্দ্রে না আসে সে জন্য ভয়ভীতি দেখানো হয়। পাশাপাশি কেন্দ্র দখল করে সিল মেরে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীদের জয়ী করা হয়েছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, আর মাত্র তিনটি সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন বাকি আছে। ‘প্রি-টেস্ট’ হিসেবে আমরা এসব সিটির নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। সরকারের অধীনে এটাই আমাদের শেষ নির্বাচন হতে পারে। বর্তমান সরকারের অধীনে আর কোনো নির্বাচনে বিএনপি আর যাবে না। ফেয়ার নির্বাচনের পূর্বশর্ত নিরপেক্ষ সরকার, সেটা নিশ্চিত করেই আমরা আগামীতে জাতীয় নির্বাচনের কথা ভাবব।

বিএনপির এই কেন্দ্রীয় নেতা আরও বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বন্দিদশায় মানবেতর জীবনযাপন করছেন। নির্জনতা এবং একাকিত্বটাও এক ধরনের বড় শাস্তি। তাই আমরা এই নির্বাচনকে খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন হিসেবেই দেখছি। আমরা এই নির্বাচনে জয়ী হয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনকে বেগবান করতে চাই।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, মাহমুদুল ইসলাম টুকু, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও গয়েশ্বরের পুত্রবধূ নিপুন রায় চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সভাপতি ও মেয়রপ্রার্থী মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, তার প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট ও জেলা বিএনপির সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন তপু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ঘটনাপ্রবাহ : রাজশাহী-বরিশাল-সিলেট সিটি নির্বাচন ২০১৮

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter