৩ সিটিতেই আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিজয় দেখছেন জয়

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৯ জুলাই ২০১৮, ১৪:২৫ | অনলাইন সংস্করণ

সজীব ওয়াজেদ জয়
ফাইল ছবি

বরিশাল, রাজশাহী ও সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিজয় দেখছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও যোগাযোগবিষয়ক উপদেষ্টা ও তার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়।

আজ রোববার নিজের ফেসবুক পেজে দেয়া এক পোস্টে তিনি জানিয়েছেন, তার নিয়োজিত একটি গবেষণা দলের জনমত জরিপে তিন সিটি কর্পোরেশনেই আওয়ামী লীগ প্রার্থী এগিয়ে রয়েছেন।

বরিশাল, রাজশাহী ও সিলেটে ভোটারদের ওপর চলতি জুলাইজুড়ে এ গবেষণা চালিয়েছে রিসার্চ ডেভেলপমেন্ট সেন্টার (আরডিসি)।

সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, গত পাঁচ বছর ধরে আরডিসির মাধ্যমে আমরা জরিপ পরিচালনা করছি। তাদের জরিপের পদ্ধতি ও ফল বরাবরই আমার সঠিক মনে হয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের মনে রাখতে হবে যে, যেহেতু জরিপগুলো গত এক মাস ধরে করা হয়েছে এবং এর মধ্যে নির্বাচনী প্রচার জোরেশোরে চলেছে, তাই জরিপ ও নির্বাচনের ফলে কিছুটা তফাৎ হতে পারে।

কিন্তু আমি আত্মবিশ্বাসী যে বরিশাল ও রাজশাহীতে আওয়ামী লীগ বিশাল ব্যবধানে জয়ের পথে। যদিও সিলেটে আমরা কিছুটা এগিয়ে আছি। এ মুহূর্তে আসলে কাউকেই বিজয়ী হিসেবে দেখার সুযোগ নেই বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগবিষয়ক উপদেষ্টা।

তিনি বলেন, বিএনপি অনেক ধরনের অভিযোগ করতে থাকে, কিন্তু আসল কথা হচ্ছে- তাদের কোনো জনপ্রিয়তাই নেই। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের জনসমর্থন দিন দিন বাড়ছে। নির্বাচনী লড়াইয়ে বিএনপি এখন আওয়ামী লীগের জন্য কোনো প্রতিদ্বন্দ্বীই না।

জয় বলেন, আমি আমাদের দলীয় নেতাকর্মী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ও নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানাব, তারা যেন সজাগ থাকেন। কারণ আমাদের আশঙ্কা বিএনপি ভোটকেন্দ্র দখল করে জালভোট দিয়ে সেই দায় আমাদের ওপর চাপানোর চেষ্টা চালাবেন।

নির্বাচন বিতর্কিত করতে বিএনপির তৎপরতার বিষয়ে তিনি বলেন, আপনারা সবাই বিএনপি নেতাদের এরূপ ষড়যন্ত্রের ফোনালাপ সম্প্রতি শুনেছিলেন গাজীপুর নির্বাচনের সময়। বিএনপির প্রার্থীরা যতই ভোটারদের কাছে যান, ততই তারা বুঝতে পারেন তাদের দল বাংলাদেশের মানুষ থেকে কতটা দূরে সরে গেছে। তাই আওয়ামী লীগকে বিতর্কিত করে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করাই তাদের একমাত্র কৌশল।

জরিপের ফল এখানে হুবহু দেয়া হল-

বরিশাল

সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ (আওয়ামী লীগ) : ৪৪.০%

মজিবর রহমান সরোয়ার (বিএনপি) : ১৩.১%

অন্যান্য প্রার্থীরা : ০.৮%

সিদ্ধান্তহীন : ২৩.৫%

উত্তর দেননি : ১৫.৯%

বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ১২৪১ নিবন্ধিত ভোটারের মধ্যে এ জরিপটি চালানো হয়।

রাজশাহী

খায়রুজ্জামান লিটন (আওয়ামী লীগ): ৫৮.০%

মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল (বিএনপি): ১৬.৪%

অন্যান্য প্রার্থীরা : ০.৯%

সিদ্ধান্তহীন : ১২.৩%

উত্তর দেননি : ৯.৬%

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১২৯৪ নিবন্ধিত ভোটারের মধ্যে এ জরিপটি চালানো হয়।

সিলেট

বদরউদ্দিন আহমদ কামরান (আওয়ামী লীগ) : ৩৩.০%

আরিফুল হোক চৌধুরী (বিএনপি) : ২৮.১%

অন্যান্য প্রার্থীরা : ১.৩%

সিদ্ধান্তহীন : ২৩.০%

উত্তর দেননি : ১২.৬%

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ১১৯৬ নিবন্ধিত ভোটারের মধ্যে এ জরিপটি চালানো হয়।

সিটি কর্পোরেশনের ভোটার তালিকায় নারী ও পুরুষ ভোটারের অনুপাত এবং বরিশাল, রাজশাহী ও সিলেট শহরের ২০১১ সালের শুমারির বয়স সম্পর্কিত তথ্যের বিন্যাস অনুযায়ী এ জরিপের ফল উপস্থাপন করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের ভোটার নিবন্ধের তালিকায় থাকা ঠিকানা ধরে জরিপে অংশগ্রহণকারী নির্বাচন করা হয়।

নির্বাচন কমিশনের ভোটার তালিকা থেকে ঠিকানা নিয়ে জরিপের জন্য নমুনা বাছাই করা হয়। এর মধ্য থেকে যারা নিজেদের সিটি কর্পোরেশনের ভোটার বলে নিশ্চিত করেন, তাদেরই জরিপে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এ জরিপে ভুলের মাত্রা ধরা হয় +/-২.৫।

ঘটনাপ্রবাহ : রাজশাহী-বরিশাল-সিলেট সিটি নির্বাচন ২০১৮

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter