জাপা ক্ষমতায় গেলে ৩০ আসন সংখ্যালঘুদের জন্য রাখা হবে: এরশাদ

প্রকাশ : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:৫৫ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

জন্মাষ্টমী উপলক্ষে সনাতন সম্প্রদায় এবং বিশিষ্ট নাগরিকদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। ছবি-যুগান্তর

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, আগামী ২০ বছর পর বাংলাদেশে হিন্দু জনগোষ্ঠীর সংখ্যা দ্বিগুণ হবে। ড. আবুল বারাকাত তার বইয়ে উল্লেখ করেছেন আগামী ২০ বছর পর বাংলাদেশে কোনো হিন্দু থাকবে না। কিন্তু আমি চ্যালেঞ্জ করে বলছি, আগামী ২০ বছর পর এর সংখ্যা দ্বিগুণ হবে। 

মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর গুলশান ইমানুয়েলস কনভেনশন সেন্টারে জন্মাষ্টমী উপলক্ষে সনাতন সম্প্রদায়ের নেতারা এবং বিশিষ্ট নাগরিকদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়ের সভাপতিত্বে জাপা চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা সোমনাথ দে'র সঞ্চালনায় শুভেচ্ছা বিনিময় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ, জাপার কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, আজম খান, মেজর অব. খালেদ আখতার, হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতা রানা দাশ গুপ্ত, কৃষ্ণ কীর্তণ দাস, নোকল চন্দ্র সাহা, তাপস পাল, সুজন দে প্রমুখ।

এরশাদ আরও বলেন, বুকে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ লালন করি। মুক্তিযুদ্ধের সময় হিন্দুদের আত্মত্যাগের কথা ভোলা যাবে না। জাতীয় পার্টি ক্ষমতা থাকাকালীন তার নানান উন্নয়ন তুলে ধরে ধরেন তিনি। 

এ সময় এইচ এম এরশাদ আক্ষেপ করে বলেন, ক্ষমতায় থাকাকালে হিন্দুরা আমাকে সহযোগিতা করেননি। কারণ, আমি রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম করেছিলাম। 

তিনি বলেন, আমি অন্য ধর্মগুলোকেও সম্মান দিয়েছিলাম। আমার জীবনের যত কিশোর বন্ধু রয়েছে তার সিংহভাগই হিন্দু। আমার শিক্ষাগুরুও হিন্দু।

সাবেক এ রাষ্ট্রপতি বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাপা ক্ষমতায় গেলে সংরক্ষিত ৩০টি আসন সংখ্যালঘুদের জন্য রাখা হবে। এ সময় তিনি দুর্গাপূজায় হিন্দুদের ছুটি বাড়ানোর জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।