ক্ষমতার লোভে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি বিপক্ষে যোগ দিয়েছে: কামরুল

  যুগান্তর রিপোর্ট ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:১৫ | অনলাইন সংস্করণ

খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম
খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। ফাইল ছবি

উৎকৃষ্ট ক্ষমতার লোভে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তি, মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তির সঙ্গে যোগ দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ড. কামাল হোসেন, বদরুদ্দোজা চৌধুরী, আ স ম আব্দুর রব ও মাহমুদুর রহমান মান্না জাতীয় ঐক্যর নামে ক্ষমতার উৎকৃষ্ট লোভের জন্য মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তি হয়েও, মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তির সঙ্গে যোগ দিয়েছেন।

মঙ্গলবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেঞ্জ লাউঞ্জে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত ‘গণতন্ত্রের মানসকন্যা শেখ হাসিনা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

জাতীয় ঐক্যর ডাক যারা দিয়েছেন তাদের উদ্দেশে কামরুল ইসলাম বলেন, আপনাদের রাজনীতি মানুষ বুঝে গেছে। মানুষ এখন আর বোকা নয়। আপনাদের রাজনীতির ইতিহাস মানুষের জানা আছে। তাই যতই জাতীয় ঐক্যের ডাক দেন না কেন, কোনো লাভ হবে না। জনগণ আপনাদের ডাকে সাড়া দেবে না।

নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য বিএনপি যে শর্ত জুড়ে দিয়েছে তার জবাবে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপির কোনো শর্ত পূরণ হবে না। আন্দোলনের মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা সম্ভব নয়, আইনের মাধ্যম ছাড়া।

বিএনপিকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ২০১৪ সালের মতো যদি আবারো আগুন সন্ত্রাস করেন তাহলে তার রূপ হবে ভয়াবহ। তাদের স্থান হবে কারাগারে। তাই কোনো শর্ত দিয়ে লাভ নেই। সুবোধ বালকের মতো নির্বাচনে আসেন। সরকার গঠন না করতে পারলেও বিরোধী দল হিসেবে সংসদে থাকতে পারবেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের দুটি শক্তি মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তি আর মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তি। আর এই বিপক্ষের শক্তিই হলো বিএনপি। আপনারা দেখেন রাজাকার, আলবদর, বামরাই বিএনপির নেতৃত্ব দিচ্ছে। তারা এই নেতৃত্বের মাধ্যমেই নির্বাচন বানচাল করতে চায়। দেশকে বিভীষিকাময় করতে চায়।

বিএনপি বাংলাদেশের জনগণের স্বার্থের, গণতন্ত্রের, উন্নয়নের বিরুদ্ধে কাজ করছে দাবি করে তিনি বলেন, তাই তাদের বিরুদ্ধে দুর্বার প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যেমন আন্দোলন করেছেন ঠিক তেমনই শেখ হাসিনা মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তির বিরুদ্ধে এখনো আন্দোলন করছেন।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, পাকিস্তানের এই প্রেতাত্মাদের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। পাশাপাশি উন্নয়নের জন্য শেখ হাসিনাকে আবারো ক্ষমতায় আনার লক্ষ্যে এই ষড়যন্ত্রকারীদের দেশের রাজনীতি থেকে বিদায় করতে হবে।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা লায়ন চিত্তরঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় আরও বক্তব্য রাখেন, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল ও মহাসচিব শাবান মাহমুদ, আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার, মিজানুর রহমান বিটু অরুণ সরকার রানা প্রমুখ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter