খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য প্রতিবেদন সরকারের ইচ্ছার প্রতিফলন: রিজভী

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৪:২১ | অনলাইন সংস্করণ

রুহুল কবির রিজভী
সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ফাইল ছবি

খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে মেডিকেল বোর্ড যে প্রতিবেদন দিয়েছে তাতে সরকারের ইচ্ছার প্রতিফলন হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

সোমবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, খালেদা জিয়াকে চরম স্বাস্থ্যঝুঁকিতে নিয়ে যাওয়ার জন্যই সরকারের ইচ্ছানুযায়ী মেডিকেল বোর্ড ‘ম্যানুফ্যাকচারিং প্রতিবেদন’ দিয়েছে। আর সে জন্যই তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের বোর্ডে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি।

এ ধরনের প্রয়াসকে ‘একগুঁয়েমি ও প্রতিহিংসাপরায়ণ’ উল্লেখ করেন তিনি।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় সরকারি মেডিকেল বোর্ডের এ পরামর্শ ‘একদেশদর্শী ও সার্বজনীন চিকিৎসানীতির পরিপন্থী’ উল্লেখ করে রিজভী বলেন, একজন রোগীকে তার পছন্দ অনুযায়ী চিকিৎসা দেয়া উচিত, এটি তার মানবাধিকার, সেটি না করে কর্তৃপক্ষ জোর করে নিজেদের পছন্দের চিকিৎসকদের দিয়ে দেশনেত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো চরম প্রতিহিংসাপরায়ণ জেদেরই বহিঃপ্রকাশ।

সাবেক এ প্রধানমন্ত্রীর চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের অন্তর্ভুক্ত করে বেসরকারি কোনো বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি করে সুচিকিৎসা নিশ্চিত করার আহ্বান জানান তিনি।

বিএনপির এ নেতা আরও বলেন, আমরা আগেই বলেছিলাম- দেশনেত্রীর স্বাস্থ্য নিয়ে সরকার দলের অনুগত বোর্ড সদস্যরা সরকারের পছন্দানুযায়ী পরামর্শ দেবেন, সেটিই প্রমাণিত হল।

‘দেশনেত্রীর স্বাস্থ্য যদি ঝুঁকিপূর্ণ না হয়, তা হলে অন্যের সাহায্য ছাড়া তিনি এপাশ-ওপাশ হতে পারেন না কেন?’ যোগ করেন রিজভী।

নির্বিচারে হামলা, মামলা, গ্রেফতার, দমন-পীড়নে আগামী জাতীয় নির্বাচনে ভোটাধিকার হরণের ছায়া পড়তে শুরু করেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

রিজভী বলেন, একটা নির্জন বিরাণভূমিতে সরকার একতরফা নির্বাচনের আয়োজন করছে। ১৬ কোটি মানুষের আত্মশক্তিকে ভুলে গেছে সরকার। স্বৈরাচারকে বেশি দিন সহ্য করার ইতিহাস নেই এ দেশের মানুষের।

তিনি বলেন, এ দেশের পলিমাটির ধুলোয় জনগণের দ্রোহ ভাসছে। মামলা খেয়ে, গ্রেফতার হয়ে কারান্তরীণ হওয়ার পরও বিএনপি ঐক্যবদ্ধ, এটিই আমাদের ব্যতিক্রমী শক্তি।

শেখ হাসিনাকে পদত্যাগ করতেই হবে দাবি করে বিএনপির সিনিয়ির যুগ্ম মহাসচিব বলেন, নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন দিতেই হবে। আর সেই নির্বাচনে বিএনপির নেতৃত্ব দেবেন খালেদা জিয়া। স্বৈরাচারের লৌহকপাট আর বেশি দিন বন্ধ রাখা যাবে না। খালেদা জিয়ার মুক্তিই হচ্ছে গণতন্ত্রের শক্তি।

রিজভী বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ঢাকাসহ সারা দেশ থেকে বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের পাশাপাশি আটক করে তা অস্বীকার ও গুম করে দেয়ার ঘটনায় বিরাজ করছে এক ভয়াল আতঙ্কজনক পরিবেশ।

ঘটনাপ্রবাহ : কারাগারে খালেদা জিয়া

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×