১ অক্টোবর থেকে নেতাকর্মীদের রেডি হতে বললেন মওদুদ

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:৫৯ | অনলাইন সংস্করণ

আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।
আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। ছবি-যুগান্তর

আগামী ১ অক্টোবর থেকে আন্দোলনের জন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিতে দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

তিনি বলেন, আমরা এবার খালি মাঠে গোল দিতে দেব না। উই উইল নট এলাউ দিস গভমেন্ট গো আন্ডার চ্যালেঞ্জ। জনগণকে নিয়েই আমরা থাকব। আসুন পহেলা অক্টোবর থেকে রেডি হয়ে যান।

তিনি বলেন, এই সরকার হলো নীতি নৈতিকতাবিহীন। তাদের নীতি-নৈতিকতা বলে কিছু নেই। আওয়ামী লীগ হলো মিথ্যাচারের চ্যাম্পিয়ন।

মঙ্গলবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে সভার আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম ’৭১।

সংগঠনটির সভাপতি ঢালী আমিনুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম আজাদ, রফিক শিকদার, শাহরিন ইসলাম শায়লা প্রমুখ।

মওদুদ আহমদ বলেন, স্বৈরাচারী সরকারকে অপসারণ করতে হলে সারা জাতিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়াকে আরও শক্তিশালী করতে হবে। মাঠে নামতে হবে। জনগণের জোয়ার এই সরকারকে দেখাতে হবে এবং দেখবে সরকার।

তিনি বলেন, জনগণকে সঙ্গে নিয়ে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আমরা আগামী নির্বাচন অংশগ্রহণ করে এই সরকারকে অপসারিত করব। তা করব শান্তিপূর্ণভাবে ভোটের মাধ্যমে, কোনো ভায়োলেন্সের মাধ্যমে নয়।

জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া নিয়ে নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের জবাবে মওদুদ আহমদ বলেন, যখন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া ড. কামাল হোসেন এবং ডা. বদরুদ্দোজা চৌধুরী শুরু করলেন তখন তারা (ক্ষমতাসীনরা) স্বাগত জানালেন। কিন্তু এখন প্রধানমন্ত্রী বলছেন, দুর্নীতি, ঘুষখোর, সুদখোরদেরকে নিয়ে ঐক্য তৈরি করা হয়েছে। এরা জনগণের জন্য কিছু করতে পারবে না।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে এই ধরনের অশালীন বক্তব্য আমরা কখনোই আশা করি না। এতে একটা জিনিস পরিষ্কার হয়েছে এই সরকার আতঙ্কিত হয়েছেন। বিচলিত হয়েছে এই জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার অগ্রগতি দেখে। সে কারণে আজকে তাদের গাত্রদাহ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীসহ সরকারের কেউ এটা সহ্য করতে পারছেন না।

মওদুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করব- আপনি এই বক্তব্য প্রত্যাহার করুন। তা নাহলে রাজনীতিতে কোনো শালীনতা আর থাকবে না। কারণ দুর্নীতির কথা যদি বলেন তাহলে বর্তমান সরকারের চেয়ে আমাদের গত ৫০/৬০ বছরে এমনকি পাকিস্তান আমল থেকে শুরু করে কোনো সরকার এত দুর্নীতি করে নাই। আর আজকে আমাদের আপনি দোষারোপ করছেন।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে মওদুদ আহমদ বলেন, দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের টাকা চলে গেল একজনও গ্রেফতার হয়নি। কয়লা উধাও হয়ে গেল, পাথর চলে গেল, কঠিন শিলা চলে গেল একজনও গ্রেফতার হয়নি। শেয়ার মার্কেট লুট হয়ে গেল একজনও প্রেফতার হয়নি। ব্যাংকগুলো সব ফোকলা হয়ে গেছে, হাজার হাজার কোটি টাকা নিয়ে গেছে সরকারি দলের মদদপুষ্ট ব্যক্তিরা। বাংলাদেশে মানুষ এত বোকা নয় প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার জনপ্রিয়তা আপনাদের বক্তব্যের পর আরও বৃদ্ধি পাবে। কারণ তারা জানে জাতি ঐক্যবদ্ধ হয় যে কোনো স্বৈরাচারী সরকারের পতন হয়।

মওদুদ আহমদ বলেন, এটা একটা স্বৈরাচার সরকার। তাদের আচার-আচরণ, চিন্তা-চেতনা, ধ্যান-ধারণা কী রকম সেটা আমরা এখন বুঝতে পারছি। আর তিন মাসও বাকি নেই। যেখানে সব মামলা প্রত্যাহার করে নেয়ার কথা। যেখানে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে দেয়ার কথা। যেখানে বিরোধী দলের ওপর যাতে নিপীড়ন ও মামলা-মোকদ্দমা না হয় সেগুলো দেখার কথা সেখানে তারা কী করছে, ভৌতিক ও গায়েবি মামলা দিচ্ছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter