লাঠিসোঁটা নিয়ে বেরিয়ে রাজনীতি করা যাবে না: মন্ত্রী
jugantor
লাঠিসোঁটা নিয়ে বেরিয়ে রাজনীতি করা যাবে না: মন্ত্রী

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৮ নভেম্বর ২০২২, ২২:১৪:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

‘নির্বাচিত সরকারের গুণগান নিয়ে আপনার সন্দেহ থাকতে পারে। আসেন, বসেন, কাগজপত্র দেখেন। কিন্তু লাঠি নিয়ে দলবেঁধে বেরিয়ে অন্যায় কথা বলে রাজনীতি করা যাবে না।’

রাজধানীর ব্র্যাক ইন সেন্টারে সোমবার ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সমাজের মূল ধারায় একীভ‚তকরণে করণীয়’ শীর্ষক সেমিনারের প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এসব কথা বলেছেন।

মন্ত্রী বলেন, লাঠিসোঁটা নিয়ে বেরিয়ে অমুক তারিখের পরে ক্ষমতায় থাকতে দিব না। আমাদের কথায় দেশ চলবে- এই ধরনের কথা বললে শুধু রাজনীতির ক্ষতি নয়, আখেরে আমাদের অর্থনীতিও ক্ষতি হবে। আর অর্থনীতি ক্ষতি হলে আমাদের জীবনমান আরও নিচে যাবে।

ডিজঅ্যাবল্ড রিহ্যাবিলিটেশন অ্যান্ড রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশন (ডিআরআর) আয়োজনে সেমিনারের সভাপতিত্ব করে সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক ফরিদা ইয়াসমিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য মেহের আফরোজ চুমকি ও সংসদ সদস্য শবনম জাহান শীলা।

এর আগে সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ডিআরআরের ম্যানেজার শাকিল আহমেদ ও সেমিনার সঞ্চালনা করেন সংগঠনের উপদেষ্টা স্বপ্না রেজা।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আমাদের সার্বিকভাবে অর্থনৈতিকভাবে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে হবে। পরিবর্তন শুরু হয়েছে। এটা সবাই স্বীকার করে। এমন কী আমাদের যারা সংকীর্ণ মন নিয়ে রাজনীতি করে তারাও এই পরিবর্তন শিকার করেন, যে আমরা অনেক ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে সক্ষম হয়েছি।

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, মাহাথিরের ২২ বছর যদি ভালো হয় তাহলে কোন যুক্তিতে বলেন শেখ হাসিনার দশ বছর ভালো নয়, এটা মাথায় আসে না।

এ সময় তিনি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান।

সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, আগে সমাজে প্রতিবন্ধী শিশুদের লুকিয়ে রাখার এক ধরনের মানসিকতা দেখা যেত, এখন সে অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে।

লাঠিসোঁটা নিয়ে বেরিয়ে রাজনীতি করা যাবে না: মন্ত্রী

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৮ নভেম্বর ২০২২, ১০:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

‘নির্বাচিত সরকারের গুণগান নিয়ে আপনার সন্দেহ থাকতে পারে। আসেন, বসেন, কাগজপত্র দেখেন। কিন্তু লাঠি নিয়ে দলবেঁধে বেরিয়ে অন্যায় কথা বলে রাজনীতি করা যাবে না।’

রাজধানীর ব্র্যাক ইন সেন্টারে সোমবার ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সমাজের মূল ধারায় একীভ‚তকরণে করণীয়’ শীর্ষক সেমিনারের প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এসব কথা বলেছেন।

মন্ত্রী বলেন, লাঠিসোঁটা নিয়ে বেরিয়ে অমুক তারিখের পরে ক্ষমতায় থাকতে দিব না। আমাদের কথায় দেশ চলবে- এই ধরনের কথা বললে শুধু রাজনীতির ক্ষতি নয়, আখেরে আমাদের অর্থনীতিও ক্ষতি হবে। আর অর্থনীতি ক্ষতি হলে আমাদের জীবনমান আরও নিচে যাবে। 

ডিজঅ্যাবল্ড রিহ্যাবিলিটেশন অ্যান্ড রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশন (ডিআরআর) আয়োজনে সেমিনারের সভাপতিত্ব করে সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক ফরিদা ইয়াসমিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য মেহের আফরোজ চুমকি ও সংসদ সদস্য শবনম জাহান শীলা।

এর আগে সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ডিআরআরের ম্যানেজার শাকিল আহমেদ ও সেমিনার সঞ্চালনা করেন সংগঠনের উপদেষ্টা স্বপ্না রেজা।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আমাদের সার্বিকভাবে অর্থনৈতিকভাবে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে হবে। পরিবর্তন শুরু হয়েছে। এটা সবাই স্বীকার করে। এমন কী আমাদের যারা সংকীর্ণ মন নিয়ে রাজনীতি করে তারাও এই পরিবর্তন শিকার করেন, যে আমরা অনেক ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে সক্ষম হয়েছি।

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, মাহাথিরের ২২ বছর যদি ভালো হয় তাহলে কোন যুক্তিতে বলেন শেখ হাসিনার দশ বছর ভালো নয়, এটা মাথায় আসে না। 

এ সময় তিনি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান। 

সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, আগে সমাজে প্রতিবন্ধী শিশুদের লুকিয়ে রাখার এক ধরনের মানসিকতা দেখা যেত, এখন সে অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন