আ’লীগ-বিএনপি দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি রোধে ব্যর্থ: জিএম কাদের
jugantor
আ’লীগ-বিএনপি দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি রোধে ব্যর্থ: জিএম কাদের

  যুগান্তর রিপোর্ট  

০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭:৩১:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

আ’লীগ-বিএনপি দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি রোধে ব্যর্থ: জিএম কাদের

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের বলেছেন, দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি একটি দেশের প্রত্যাশিত উন্নয়নের অন্তরায়। গেল ত্রিশ বছরে আওয়ামী লীগ-বিএনপি দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি রোধ করতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই দেশের মানুষ বঞ্চিত হয়েছে সুশাসন থেকে।

তিনি বলেন, পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ নয় বছরের শাসনামলে দেশে উন্নয়ন ও সুশাসন দিতে সমর্থ হয়েছিলেন। তাই দেশের মঙ্গলময় ভবিষ্যতের জন্য জাতীয় পার্টি সরকার অনিবার্য হয়ে পড়েছে।

শুক্রবার জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের উত্তরার বাসভবনে এক অনুষ্ঠানে লালমনিরহাট থেকে আসা জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি এসব কথা বলেন।

লালমনিরহাট জেলা যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রবিউল ইসলাম বসুনীয়া জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের হাতে ফুল দিয়ে জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা শেরিফা কাদের, জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী এমপি, অ্যাডভোকেট মো. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, আলমগীর সিকদার লোটন, এমরান হোসেন মিয়া, উপদেষ্টা ড. নূরুল আজাহার শামীম, যুগ্ম মহাসচিব ইকবাল হোসেন তাপস, দফতর সম্পাদক-২ এমএ রাজ্জাক খান, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইসহাক ভূঁইয়া, আজহার সরকার, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাদেক বাদল, শাহজাহান কবির, শহীদ হোসেন সন্টু, যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু তৈয়ব, দ্বীন ইসলাম শেখ এবং লালমনিরহাট জেলা সদস্য সচিব মো. সেকেন্দার আলী।

আ’লীগ-বিএনপি দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি রোধে ব্যর্থ: জিএম কাদের

 যুগান্তর রিপোর্ট 
০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আ’লীগ-বিএনপি দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি রোধে ব্যর্থ: জিএম কাদের
ফাইল ছবি

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের বলেছেন, দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি একটি দেশের প্রত্যাশিত উন্নয়নের অন্তরায়। গেল ত্রিশ বছরে আওয়ামী লীগ-বিএনপি দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি রোধ করতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই দেশের মানুষ বঞ্চিত হয়েছে সুশাসন থেকে। 

তিনি বলেন, পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ নয় বছরের শাসনামলে দেশে উন্নয়ন ও সুশাসন দিতে সমর্থ হয়েছিলেন। তাই দেশের মঙ্গলময় ভবিষ্যতের জন্য জাতীয় পার্টি সরকার অনিবার্য হয়ে পড়েছে।

শুক্রবার জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের উত্তরার বাসভবনে এক অনুষ্ঠানে লালমনিরহাট থেকে আসা জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি এসব কথা বলেন।  

লালমনিরহাট জেলা যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রবিউল ইসলাম বসুনীয়া জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের হাতে ফুল দিয়ে জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা শেরিফা কাদের, জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী এমপি, অ্যাডভোকেট মো. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, আলমগীর সিকদার লোটন, এমরান হোসেন মিয়া, উপদেষ্টা ড. নূরুল আজাহার শামীম, যুগ্ম মহাসচিব ইকবাল হোসেন তাপস, দফতর সম্পাদক-২ এমএ রাজ্জাক খান, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইসহাক ভূঁইয়া, আজহার সরকার, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাদেক বাদল, শাহজাহান কবির, শহীদ হোসেন সন্টু, যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু তৈয়ব, দ্বীন ইসলাম শেখ এবং লালমনিরহাট জেলা সদস্য সচিব মো. সেকেন্দার আলী।